তামিলনাড়ুতে ২০১৪ সালে ‘আইসিস’ লেখা টি-শার্ট পরা তরুণদের একটি ছবি কেরলের বলে চালানো হচ্ছে

বুম দেখেছে, ছবিটি ২-১৪ সালে তামিলনাড়ুতে তোলা হয়, যেখানে একদল তরুণ ‘আইসিস’ লেখা টি-শার্ট পরে দাঁড়িয়ে রয়েছে।

একদল তরুণ ইসলামিক স্টেট অফ ইরাক অ্যান্ড আল শাম (আইসিস) সংগঠনের নাম লেখা টি-শার্ট পরে ফোটো তুলিয়েছিল। এখন বলা হচ্ছে, সেটা নাকি কেরলে ভোটের পর তোলা ছবি।

হোয়াট্স্যাপে একটি বার্তায় বলা হয়েছে—"এই ছবিটি কেরলে ভোটগ্রহণের পর তোলা।আইসিস-চিহ্নিত টি-শার্ট পরা এই লোকেদের মানসিকতা কী, সেটা খুবই স্পষ্ট। কংগ্রেস দলের নির্বাচনী ইস্তাহার অনুযায়ী, দল যদি ভোটে জেতে, তাহলে এই সব লোককে জাতীয়তা-বীরোধী বলে গণ্য করা হবে না। কংগ্রেসের বিজয় অতএব ভারতকে একটি ইসলামি রাষ্ট্রে পরিণত করবে।"

বুম তার হোয়াট্সঅ্যাপ হেল্পলাইন নম্বরেও (৭৭০০৯০৬১১১)এই বার্তাটি পেয়েছে এবং এটি ফেসবুক ও টুইটারেও ভাইরাল হয়েছেঃ

পোস্টটি দেখতে এখানে (Insert Link: ) এবং তার আর্কাইভ বয়ান দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

তথ্য যাচাই

ছবিটির খোঁজখবর চালিয়ে দেখা গেছে, এটি ২০১৪ সালের একটি পুরনো ছবি এবং কেরলে নয়, তামিলনাড়ুতে তোলা। কিন্তু চলতি লোকসভা নির্বাচনের তৃতীয় দফায় কেরলে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয় ২৩ এপ্রিল, ২০১৯ তারিখে । তাই কেরলে ভোট হয়ে যাওয়ার পর ছবিটি তোলা হয়েছে বলে যে দাবি, তা সম্পূর্ণ ভুয়ো।

২০১৪ সালের অগস্ট মাসে তামিলনাড়ুর রামনাথপুরম জেলার থোন্ডিতে একটি মসজিদের সামনে ২৬ জন তরুণ আইসিস-মার্কা টি-শার্ট পরে এই ছবিটি তোলান।

ডেকান হেরাল্ড সংবাদপত্র রিপোর্ট করে, ‘২০১৪ সালের ৫ অগস্ট আবদুল রহমান ও মহ্ম্দ রিনওয়ান নামে দুই ব্যক্তিকে ওই বিতর্কিত টি-শার্ট বিলি করা এবং মসজিদের সামনে তা পরে ছবি তোলানোর দায়ে গ্রেফতার করা হয়।’

রিপোর্টটিতে আরও বলা হয়, ‘ব্যাংককে কর্মরত রহমান রমজানের সময় থোন্ডিতে তার দেশের বাড়িতে ফিরে এসে তার বন্ধু রিনওয়ান মারফত তিরুপুরের একটি সংস্থাকে ওই ধরনের ১০০টি টি-শার্ট বানানোর অর্ডার দেয়।’

পুলিশ ধৃতদের মধ্যে ২৪ জনকে ছেড়ে দেয়, কেননা কোনও সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের সঙ্গে তাদের যোগসাজশের কোনও প্রমাণ মেলেনি l তারা কেবল সরল বিশ্বাসে ওই টি-শার্টগুলি কেনে এবং প্রতিটির জন্য ২০০ টাকা করে দামও দেয় বলে স্থানীয় পুলিশ সংবাদপত্রটিকে জানায়।

Claim Review :   ছবিটি কেরলে ভোটগ্রহণের পর তোলা।আইসিস-চিহ্নিত টি-শার্ট পরা এই লোকেদের মানসিকতা কী, সেটা খুবই স্পষ্ট
Claimed By :  FACEBOOK POSTS
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story