২০১৫ সালে লখনউ পুলিশ দ্বারা জনৈক বৃদ্ধের টাইপরাইটার ভাঙার ঘটনা সাম্প্রতিক বলে শেয়ার হল

বুম দেখে ছবিটি ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বর মাসের একটি ঘটনার।

একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে এক পুলিশ প্রবীণ এক ব্যক্তির টাইপরাইটার ভেঙ্গে দিচ্ছে। বলিউডের গীতিকার জাভেদ আখতার চার বছর আগেকার ওই ভিডিও সাম্প্রতিক বলে টুইট করেছেন।

আখতার একটি ছবি টুইট করেন। ক্যাপশনে লেখেন, “এই প্রবীণ মানুষটি বেকারদের চাকরির দরখাস্ত টাইপ করতেন। তার টাইপরাইটারটি এখন আর সারানোর অবস্থায় নেই।”



টুইটটি দেখা যাবে এখানে। টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

তথ্য যাচাই

আখতারের টুইটের প্রত্যুত্তরে যে সব জবাব আসে, তাতে আখতারকে অনেকেই জানান যে, ছবিগুলি ২০১৫’র একটি ঘটনার। সেইগুলি থেকে ‘ওল্ড ম্যান’ (বৃদ্ধ), ‘টাইপরাইটার’, ‘ব্রোকেন’ (ভাঙ্গা), এই কয়েকটি প্রধান শব্দ বেছে নিয়ে আমরা সার্চ করি। দেখা যায়, ছবিগুলি ২০১৫ সালের একটি ঘটনা সংক্রান্ত।

এনডিটিভির প্রতিবেদন।

২০১৫ সালের ২০ সেপ্টেম্বর এনডিটিভি’র প্রতিবেদনে ওই একই ছবি ব্যবহার করা হয়েছিল।

খবরে বলা হয়, উত্তর প্রদেশের এক সাব-ইন্সপেক্টর প্রদীপ কুমার লখনউয়ের হজরতগঞ্জে কৃষ্ণ কুমার নামের এক বয়স্ক ব্যক্তির টাইপরাইটার লাথি মেরে ভেঙ্গে দেন। ওই জায়গাটিকে দখলমুক্ত করার জন্যই নাকি উনি ওই কাজ করেছিলেন।

সেখান দিয়ে যাওয়ার সময় একজন চিত্র সাংবাদিক ওই ঘটনার ছবিগুলি তোলেন। সেগুলি সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গেলে, ইন্সপেক্টর কুমারকে সাসপেন্ড করা হয়।

তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদবের নির্দেশে পুলিশের ডেপুটি সুপারিনটেনডেন্ট এবং সিনিয়র সুপারিনটেনডেন্ট কৃষ্ণ কুমারের সঙ্গে দেখা করে তাকে একটি নতুন টাইপরাইটার দিয়ে আসেন।

Updated On: 2019-11-18T11:06:00+05:30
Claim Review :   ছবির দাবি সম্প্রতি পুলিশ বৃদ্ধের টাইপরাইটার ভেঙে দেয়
Claimed By :  JAVED AKHTAR
Fact Check :  MISLEADING
Show Full Article
Next Story