ভোটার লিস্টে আপনার নাম না থাকলে আপনি কি ‘চ্যালেঞ্জ ভোটের’ দাবি জানাতে পারেন?

বুম দেখেছে, ভাইরাল বার্তায় প্রচারিত এ ধরনের তিনটি দাবির মধ্যে দুটিই ভুয়ো

হোয়াট্সঅ্যাপের একটি বার্তায় দাবি করা হয়েছে, ভোটার তালিকায় নাম না থাকলেও একজন ভোটার ‘চ্যালেঞ্জ ভোট’ দেওয়ার দাবি জানাতে পারে । বার্তাটি ভুয়ো । বার্তার দ্বিতীয় দাবিটি হল, যদি অন্য কেউ আপনার ভোট দিয়ে দেয়, তাহলে আপনি ‘টেন্ডার ভোট’ দিতে পারেন । এই দাবিটি সঠিক ।

ভাইরাল হওয়া বার্তাটিতে বলা হয়েছে—‘যদি আপনি ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে গিয়ে দেখেন আপনার নাম ভোটার তালিকায় নেই, তাহলে জনপ্রতিনিধিত্ব আইনের ৪৯/ক ধারায় আধার কার্ড দেখিয়ে আপনি ‘চ্যালেঞ্জ ভোট’ দেবার দাবি জানাতে পারেন ।

যদি আপনি দেখেন যে, অন্য কেউ ইতিমধ্যেই আপনার ভোট দিয়ে চলে গেছে, তাহলেও আপনি ‘টেন্ডার ভোট’ দেবার দাবি করতে পারেন এবং নিজের ভোট নিজে দিতে পারেন ।
যদি কোনও ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে ১৪ শতাংশেরও বেশি টেন্ডার ভোট পড়ে, তবে সেই কেন্দ্রে পুনরায় ভোটগ্রহণ করাতে হবে ।

এই বার্তাটি যত বেশি সম্ভব গোষ্ঠী ও বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে শেয়ার করুন, যাতে ভোটদান বিষয়ে সচেতনতা বাড়ে ।’

তথ্য যাচাই

মহারাষ্ট্রের মুখ্য নির্বাচনী অফিসারের মাধ্যমে বুম নির্বাচন কমিশনের সহযোগী সংগঠন ভি সিটিজেন্স অ্যাকশন নেটওয়ার্ক (ভিক্যান)-এর কাছে পৌঁছয় । ভিক্যান মহারাষ্ট্রের মুখ্য নির্বাচনী অফিসারের কাছ থেকে ভাইরাল বার্তাটির জবাব পেয়েছে ।

১ নং দাবিঃ আপনি ভোটকেন্দ্রে পৌঁছে ভোটার তালিকায় আপনার নাম না দেখতে পেলে আধার কার্ড কিংবা ভোটার কার্ড দেখিয়ে ৪৯/ক ধারায় ‘চ্যালেঞ্জ ভোট’ দেওয়ার দাবি করতে পারেন ।

তথ্যঃ মিথ্যা ।

ভিক্যান-এর জবাব অনুযায়ী, ভোটার তালিকায় আপনার নাম না থাকলে আপনি ভোট দিতে পারবেন না ।

২০১৯-এর ফেব্রুয়ারিতে পোলিং এজেন্টদের জন্য নির্বাচন কমিশন যে হ্যান্ডবুক প্রকাশ করেছে, বুম দেখেছে, সেখানে স্পষ্ট বলা আছে, ভোটার তালিকার মাধ্যমেই পোলিং অফিসার প্রাথমিকভাবে ভোটারকে শনাক্ত করবেন ।

২ নং দাবিঃ যদি আপনি দেখেন, অন্য কেউ আপনার আগেই আপনার ভোটটি দিয়ে চলে গেছে, তখন আপনি ‘টেন্ডার ভোট’ দেবার দাবি করতে পারেন ।

তথ্যঃ সত্য ।

ভিক্যান-কে মহারাষ্ট্রের নির্বাচনী আধিকারিকের পাঠানো জবাবেও এই দাবি সমর্থিত । পূর্বোক্ত হ্যান্ডবুকেও বলা আছে, যদি দেখা যায় কারও বৈধ ভোট অন্য কেউ আগে দিয়ে গেছে, তবে প্রিজাইটিং অফিসার সেই ভোটারকে ব্যালট পেপার মারফত টেন্ডার ভোট দেওয়ার অনুমতি দিতে পারেন ।

৩ নং দাবিঃ যদি কোনও বুথে ১৪ শতাংশেরও বেশি টেন্ডার ভোট পড়ে, তবে নির্বাচন কমিশন সেই বুথে নতুন করে ভোটগ্রহণ করাতে পারেন ।

তথ্যঃ মিথ্যা ।

মহারাষ্ট্রের নির্বাচনী আধিকারিক জানালেন, ১৪ শতাংশ বা তার বেশি টেন্ডার ভোট পড়লে পুনর্নির্বাচনের কোনও বিধান নেই । প্রথমত, এত বেশি শতাংশ টেন্ডার ভোট পড়ার সম্ভাবনা থাকে না । তবে যদি তা পড়েও, তাহলেও সেই বুথে পুনর্নির্বাচন করার কোনও নিয়ম নেই ।

নির্বাচন কমিশন প্রকাশিত হ্যান্ডবুকেও এই মর্মে কোনও বিধি বা বিধান নেই ।

হ্যান্ডবুকটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন ।

Claim :   ভোটার তালিকায় নাম না থাকলেও একজন ভোটার ‘চ্যালেঞ্জ ভোট’ দেওয়ার দাবি জানাতে পারে
Claimed By :  Social Media
Fact Check :  Partly True, Partly False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.