সত্যিই কি একটি হাতি উত্তরাখণ্ডে একটি বাসকে খাদে পড়ে যাওয়া থেকে বাঁচিয়েছে?

বুম আনুসন্ধান করে দেখেছে যে ছবিটি আসলে ২০০৭ সালের নভেম্বেরের বাংলাদেশের ছবি, যেখানে সাইক্লোন সিডারের পর রাস্তা পরিষ্কার করতে একটি হাতিকে কাজে লাগানো হয়েছিল।

একটি হাতির একটি বাস ঠেলার ছবি সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করা হয়েছে মিথ্যে দাবির সঙ্গে। ছবিটিতে মিথ্যে দাবি করা হয়েছে যে উত্তরাখণ্ডে হাতিটি একটি বাসকে খাদে পড়ে যাওয়া থেকে আটকে আনেক মানুষের প্রাণ বাঁচিয়েছে।

ছবির সঙ্গে থাকা লেখায় দাবি করা হয়েছে, “এই হাতিটি উত্তরাখণ্ডে একটি বাসকে খাদে পড়ে যাওয়া থেকে আটকে আনেক মানুষের প্রাণ বাঁচিয়েছে জয় গণেশ।”

(হিন্দিতে লেখা মূল টেক্সট: उत्तराखंड में खाई में गिर रही बस को रोक कर इस हाथी ने लोगो की जान बचाई जय गणेशा)

ফেসবুক পোস্টের স্ক্রিনশট।

পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

তথ্য যাচাই

ইয়ান্ডেক্স নামে একটি রাশিয়ান সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করে আমরা রিভার্স ইমেজ করে দেখতে পাই যে ছবিটি ভারতের নয়, বাংলাদেশের। ‘বাংলাদেশে সাইক্লোনের বলি এক হাজারের বেশি মানুষ’ এই শিরোনামের একটি প্রতিবেদনে এই ছবিটি ব্যবহার করা হয়েছে।

দ্য স্টারের প্রতিবেদন।

এ ছাড়া আমরা দেখতে পাই, ২০০৭ সালের ১৬ নভেম্বর পাভেল রহমান এপি ইমেজের জন্য এই ছবিটি তোলেন।

এপি ইমেজেস এর স্ক্রিনশট।

 

ছবিটির ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “একটি হাতি আটকে যাওয়া একটি বাসকে ঠেলে সরাচ্ছে। বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা থেকে ১২০ কিলোমিটার দূরে বরিশালে রাস্তা পরিস্কার করতে হাতিটিকে কাজে লাগানো হয়েছে। শুক্রবার, নভেম্বর ১৬, ২০০৭।”  

সাইক্লোন সিডার একটি ক্রান্তীয় ঘুর্নিঝড়। এই ঝড়টিই এখনও অবধি বাংলাদেশে সবচেয়ে মারাত্মক প্রাকৃতিক বিপর্যয়, যাতে প্রায় ১৫০০০ মানুষ মারা যায়।

Claim Review :  উত্তারাখন্ডে বাস খাদে পড়ে যাওয়ার হাত থেকে হাতি বাঁচিয়ে রক্ষা করল প্রাণ
Claimed By :  FACEBOOK POST
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story