Connect with us

মমতা কী জনসভায় বলেছেন “৪২ টা আসন দিন, হিন্দু কীভাবে কাঁদাতে হয় দেখিয়ে দেব?”

মমতা কী জনসভায় বলেছেন “৪২ টা আসন দিন, হিন্দু কীভাবে কাঁদাতে হয় দেখিয়ে দেব?”

মমতা বলেছিলেন, “৪২টা আসন দিন, দিল্লি কীভাবে কাঁপাতে হয় দেখিয়ে দেব।” বুম ২০ এপ্রিল ২০১৯ ওই শিরোনামে প্রকাশিত বর্তমান সংবাদপত্রের প্রতিবেদনটি খুজে পেয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি বাংলা সংবাদপত্রের ছবি ভাইরাল হয়েছে। এরকম একটি ফেসবুক পোস্টে দেখা যাচ্ছে, সংবাদপত্রটিতে প্রথম পাতার শিরোনাম দেওয়া হয়েছে, “৪২ টা আসন দিল, হিন্দু কীভাবে কাঁদাতে হয় দেখিয়ে দেব: মমতা।” ছবিটিতে সংবাদপত্রটির নাম ‘বর্তমান’ রয়েছে। ছবিটির চারপাশে লাল রঙের বর্ডার দেওয়া আছে।

ভাইরাল হওয়া সম্পাদিত বর্তমান সংবাদপত্রের কদর্থ শিরোনাম


তথ্য যাচাই

বুম একটি পোস্টে রাষ্ট্রবাদী বিজেপি ও অন্য একজন ব্যবহারকারীর নামে সার্চ করলেও ওই পোস্টটির হদিস পায়নি সংশ্লিষ্ট প্রোফইল গুলোতে।

বুম বাংলাতে বর্তমানপত্রিকা ডট কমে কিওয়ার্ড সার্চ করেছিল। শনিবার ২০ এপ্রিল ২০১৯ ওই শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদনটি খুজে পেয়েছে। প্রতিবেদনটি পড়া যাবে এখানে। শুক্রবার বহরমপুর স্টেডিয়ামে দলীয় প্রার্থী অপূর্ব (ডেভিড) সরকারের সমর্থনে আয়োজিত জনসভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ওই আপ্তবাক্য বলেন, “৪২’এ ৪২টা আসন দিন। দিল্লি কীভাবে কাঁপাতে হয়, দেখিয়ে দেব। কীভাবে দখল হবে দিল্লি, সেটাও জানা আছে।”

সংবাদপত্রটি মমতার বক্তব্য নিয়ে, শিরোনাম লেখে, “৪২টা আসন দিন, দিল্লি কীভাবে কাঁপাতে হয় দেখিয়ে দেব: মমতা।” ভাইরাল হওয়া সংবাদপত্রের ছবিটিতে ‘দিল্লী’ শব্দ বদলে ‘হিন্দু’ লেখা হয়েছে এবং ‘কাঁপাতে’ শব্দের ‘পা’ এর বদলে ‘দা’ করে ‘কাঁদাতে’ করা হয়েছে। ফটোশপটি অপটু হাতে করা। হরফের ধরন ও আকারের তারতম্য সহজেই ধারা পরে।

কয়েকজন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারী বর্তমান পত্রিকার ছবি দিয়ে সংশোধন করেছেন। এরকম দুটি পোস্ট আর্কাইভ করা আছে এখানেএখানে

(BOOM is now available across social media platforms. For quality fact check stories, subscribe to our Telegram and WhatsApp channels. You can also follow us on Twitter and Facebook.)

Claim Review : মমতা বলেছেন ৪২ টা আসন দিলে, হিন্দু কীভাবে কাঁদাতে হয় দেখিয়ে দেবেন

Fact Check : FALSE


Continue Reading

Sk Badiruddin is a Kolkata-based journalist and a fact-checking staff at Boom’s Bangla desk. Earlier, he was a translator for TRID India, news desk assistant of Onkar News, science news contributor for AIR Kolkata and culture writer for a small scale newspaper.

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

To Top