মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কী নরেন্দ্র মোদীকে প্রণাম করতে যাচ্ছেন? না ছবিটি অবশ্যই ফটোশপ করা

ছবি দুটি ফটোশপ করে একে অপরের পাশে বসানো হয়েছে। বুম নরেন্দ্র মোদীর মূল ছবিটি খুঁজে পেয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটি ফেসবুক পোস্টের ছবিতে নরেন্দ্র মোদীকে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রণামের ভঙ্গিমাতে দেখা যাচ্ছে। ছবিটিতে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, "ক্ষমা করো প্রভু আর হবেনা ভুল আমিও জানি এরাজ্যে থাকবেনা তৃণমূল।" ছবিটি অবশ্যই ব্যাঙ্গাত্মক।

পোস্টটি ৬৯১ জন লাইক ও ৩৮১ জন শেয়ার করেছেন। পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

ভাইরাল হওয়া পোস্টটি।

তথ্য যাচাই

ছবিটি দেখেই মনে হয় দুর্বলভাবে ফটোশপ করা। ছবি দুটি ফটোশপ করে একে অপরের পাশে বসানো হয়েছে। বুম নরেন্দ্র মোদীর মূল ছবিটি খুঁজে পেয়েছে।

বুম নরেন্দ্র মোদীর আসল ছবিটি খুজে পেয়েছে। ২০১৩ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর রেডিইফ-এ প্রকাশিত হয়েছিল।

ওই ওয়েবপেজের দ্বিতীয় ছবিটি হল ওই আসল ছবিটি। ছবিটি মানব অধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টির ওয়েববসাইটেও পাওয়া যাবে।

রেডইফে প্রকাশিত প্রতিবেদনে থাকা ছবিটি

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবিটির উজ্বলতা কম হওয়ায় বুমের পক্ষে ওই ছবিটিকে চিহ্নিত করা সম্ভব হয়নি।

অবশ্য, ওই সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারী এই ছবিটি রসিকতা করে হয়ত তৈরি করে থাকবেন।

তৃণমূল কংগ্রেসের লোকসভা নির্বাচনে ফলাফলে আসন কমে যাওয়া এবং রাজ্যে বিজেপির উল্লেখযোগ্য সাফল্য দেখা গেছে। এব্যাপারে বুমের প্রতিবেদন পড়া যাবে এখানে

উল্লেখ্য, এবারের ভোট প্রচারে মমতা ও মোদীর নির্বাচনী বাকযুদ্ধ চরম আকার নেয়। আক্রমণ প্রতি আক্রম নেমে আসে ব্যাক্তিগত স্তরেও।

মিম তৈরি করা নিয়ে এরাজ্যে এক বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সে মামলা গড়ায় সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত। পরে দেশের সর্বোচ্চ আদালত ওই বিজেপি কর্মী প্রিয়াঙ্কা শর্মা কে ক্ষমা চাইতে বলে এবং রাজ্য পুলিশকে তার জামিনের নির্দেশ দেয়।

Claim Review :   মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নরেন্দ্র মোদীর কাছে ক্ষমা চাইছেন।
Claimed By :  FACEBOOK POSTS
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story