জয়সলমেরের দলিত মোটর মিস্ত্রীর হাত কেটে নেওয়ার ঘটনা সাম্প্রদায়িক রঙ মাখিয়ে সোশাল মিডিয়ায় ছড়াচ্ছে

জয়সলমেরের ইন্দিরা কলোনিতে ১৫ জুলাই ২০১৯ এক দলিত মিস্ত্রী সুরেশ সৌনের হাতদুটি কব্জি থেকে কেটে নেয় কয়েকজন যুবক। বুম যাচাই করে দেখেছে ওই দুস্কৃতকারীদের ধর্মীয় পরিচয়ের দাবিটি সঠিক নয়।

সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া চারটি ছবিতে রাজস্থানের জয়সলমেরের এক ব্যক্তির বীভৎস হাতকাটা দুটি ছবি শেয়ার করে ভুয়ো দাবি করা হয়েছে ওই দুস্কৃতকারী মুসলিম। ছবি গুলিতে এক ব্যক্তির দুটি হাতই কব্জি থেকে কাটা। রক্তা ঝড়ছে কাটা হাত থেকে। ছবিগুলি বীভৎস হওয়ায় বুম ছবিটি এখানে প্রকাশ করতে অসম্মত হয়েছে।

ভাইরাল হওয়া ফেসবুক পোস্টিতে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, জয়সলমের এ। আঙুল দেখুন। শক্তি সিং এর হাত কেটে দিয়েছে মুসলিমরা। কাল দিনের বেলা চারটেই।

(মূল পোস্টের ক্যাপশন: Jeslmer me. aanguli dikhae par. sakti Singh ke hath Kat diy. Muslim logo ne.. Kal din ki 4 baje)

এই প্রতিবেদন লেখার সময় পর্যন্ত পোস্টটিতে ২,১০০ জন শেয়ার, ২৫৭ জন লাইক এবং ১১১ জন মন্তব্য করেছেন। (সতর্কতা ছবিগুলি হিংসাত্মক) পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টিটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

মিথ্যে দাবি সহ ভাইরাল পোস্ট।

তথ্য যাচাই

বুম রিভার্স সার্চ করে জেনেছে ঘটনাটি রাজস্থানের জয়সলমেরের ইন্দিরা কলোনির। ওই হাত কাটা ব্যক্তির নাম শক্তি সিং নয়। এবং আক্রমন করা দুস্কৃতী মুসলিম নন।

১৫ জুলাই ২০১৯ সোমবার মোটর মিস্ত্রী সুরেশ সৌনকে তরোয়াল দিয়ে হাত কেটে দেয় কয়েকজন যুবক। ইন্দিরা কলোনিতে ওই দলিত ব্যক্তি গাড়ি সারাইয়ের কাজ করছিলেন সেসময়। চার-পাঁচ বছরের পুরনো গাড়ি সংক্রান্ত বিবাদের জেরে তারা ওই বীভৎস ঘটনা ঘটায়।

ওই ঘটনায় অভিযুক্তরা হল বদোড়া গ্রামের শ্যাম সিং, রাজু সিং, পুমন সিং, অখিরাজ সিং। বলেরো গাড়ি চেপে এসে প্রকাশ্য দিবালোকে তারা এই বীভৎস ঘটনা ঘটায়। আক্রান্ত সুরেশকে স্থানীয় হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পর যোধপুরের হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। পুলিশ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে।

বিস্তারিত জানা যাবে প্রত্রিকাদৈনিক ভাস্করে প্রকাশিত প্রতিবেদনে।

পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনের স্ক্রিনশট।
দৈনিক ভাস্করে প্রকাশিত প্রতিবেদনের স্ক্রিনশট।
Claim :   জয়সলমেরে মুসলিম লোকেরা প্রকাশ্য দিবালোকে শক্তি সিংয়ের হাত কেটে দিয়েছে
Claimed By :  FACEBOOK POST
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.