বিজেপির রাণাঘাট প্রার্থী কি হনুমান সেজে রাস্তায় প্রচারে নেমেছিলেন?

বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ওই প্রচার সভায় উপস্থিত ছিলেন। বুম তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করলে, উনি বলেন, “যে ব্যক্তিটি হনুমান সেজেছে, সে একজন বিজেপি কর্মী।"

একটি ছবিতে এক ব্যক্তিকে হনুমান সেজে রাণাঘাটে নির্বাচনী প্রচার করতে দেখা যাচ্ছে এবং মিথ্যে দাবি সমেত সেটি ভাইরাল হয়েছে। ছবিটিতে যাকে হনুমানের বেশে গাড়ির বনেটের ওপর দেখা যাচ্ছে, তাকে রাণাঘাটের বিজেপি প্রার্থী জগন্নাথ সরকার বলে চিহ্নিত করা হয়েছে।

অনেক সোশাল মিডিয়া ব্যবহারকারী, নির্বাচনী প্রচারে ওই ধরনের ‘সার্কাস’ করার জন্য বিজেপির সমালোচনা করেছেন। একটি টুইটের ক্যাপশানে বলা হয়েছে, “অবিশ্বাস্য মনে হলেও, গাড়ির বনেটে যে কার্টুন চরিত্রটি বসে আছে, সে হল রাণাঘাটের বিজেপি প্রার্থী জগন্নাথ সরকার। এমন দৃশ্য হাস্যকর হতে পারে, কিন্তু সেটা বিষয় নয়। এটা দেখিয়ে দেয় যে, ১) বিজেপি বাঙালি আর বাঙালি হিন্দুদের থেকে কতটা বিচ্ছিন্ন। ২) বাংলায় জন্মগ্রহণকারী বিজেপির লোকেরা হিন্দি সাম্রাজ্যবাদের বাহক।”



ছবিগুলি বেশ কয়েকটি ফেসবুক পেজেও ভাইরাল হয়েছে। বলা হচ্ছে, “সং সেজেছে রানাঘাটের বিজেপি প্রার্থী জগন্নাথ সরকার। ভোট চাইছে হনুমান সেজে! হায় রে কি দুরবস্থা! কোথায় যাচ্ছে এ দেশের রাজনীতি! মানুষের কি কোনও বোধবুদ্ধি নেই??”

তথ্য যাচাই

আসলে ছবিগুলি বিজেপি প্রার্থী জগন্নাথ সরকারের নয়। মিথ্যে করেই সেগুলি তাঁর ছবি বলে চালিয়ে দেওয়া হয়েছে। সেগুলি এক বিজেপি কর্মীর, যিনি ওই বেশ ধারণ করেছিলেন।

বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ওই প্রচার সভায় উপস্থিত ছিলেন। বুম তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করলে, উনি বলেন, “যে ব্যক্তিটি হনুমান সেজেছে, সে একজন বিজেপি কর্মী। ওই রোড-শো’র পুরোটা সময় উনি ছিলেন। হনুমানজি সেজে উনি খুব উৎসাহ বোধ করছিলেন। তাই আমরা তাঁকে অনুমতি দিই। তাছাড়া, কয়েক হাজার মানুষ সেখানে উপস্থিত ছিলেন। কী ঘটেছে তাঁরা তো দেখেছেন। এটা খুবই অদ্ভুত ব্যাপার যে, জগন্নাথ সরকারকে, ওই ব্যক্তি যিনি হনুমান সেজেছিলেন, তাঁর সঙ্গে গুলিয়ে ফেলছেন কিছু লোক।

ঘোষের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে যে ছবিগুলি পোস্ট করা হয়েছিল বুম সেগুলি বিশ্লেষণ করে। দেখা যায় সরকার সেখানে সাদা পাঞ্জাবি পরে উপস্থিত ছিলেন।

Claim Review :   সং সেজেছে রানাঘাটের বিজেপি প্রার্থী জগন্নাথ সরকার
Claimed By :  FACEBOOK POSTS
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story