মহিলাদের বন্দুক দেখিয়ে ব্রিগেডে আনল তৃণমূল?

ভিডিওটিতে তৃণমূল কংগ্রেস পার্টির (টিএমসি) পতাকা ধরে থাকা মহিলাদের দেখা যায়, এবং তাদের ভয় দেখিয়ে দুজন মুখোশধারী পুরুষকে দেখা যায়।

একটি ২০১৮-এর ভিডিও, যেখানে একজন বন্দুকধারী ব্যক্তি মহিলাদের লাইন করে হুমকি দিচ্ছে, নতুন করে ভাইরাল হচ্ছে ব্রিগেড প্রসঙ্গে। ভিডিওটি কে সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল করে মিথ্যা প্রচার চালানো হচ্ছে যে তৃণমূল সমর্থকরা হাতে বন্দুক নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্প্রতি অনুষ্ঠিত বিরোধী সমাবেশে অংশগ্রহণের জন্য মানুষকে বাধ্য করাছে।

ভিডিওটিতে তৃণমূল কংগ্রেস পার্টির (টিএমসি) পতাকা ধরে থাকা মহিলাদের দেখা যায়, এবং তাদের ভয় দেখিয়ে দুজন মুখোশধারী পুরুষকে দেখা যায়।

এই ভিডিওটি হিন্দিতে একটি বার্তা দিয়ে শেয়ার হচ্ছে চরম ভাবে দাবি করে যে, ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯-এ অনুষ্ঠিত পশ্চিমবঙ্গের ইউনাইটেড ইন্ডিয়া সমাবেশে যোগ দিতে বন্দুকযুদ্ধে মহিলারা ভয় পেয়েছিল।

ফেসবুক পোস্টের লিখন – बंगाल कलकत्ता के "महागठबंधन" का सच देख लीजिए TMC कार्यकर्ताओं ने "बंदूक" की नोक पर जनता को रैली में ले जा रहें हैं, क्या इनेह इसी जनता और इस भारत देश के देशवाशियों की फिक्र है ? जनता पर ऐसा जुल्म कभी नही देखा मैने कभी किसी सरकार में नहीं देखा..

কিন্তু, ভিডিওটি পুরানো এবং এপ্রিল ২০১৮ সালের এপ্রিলের সময় শুট করা হয় যখন পশ্চিমবঙ্গে পঞ্চায়েত নির্বাচন সহিংসতা মারাত্মক পর্যায় পৌঁছায়। এই ভিডিওটি ইন্ডিয়া টুডে এর ইন্দ্রজিত কুণ্ডু দ্বারা শুটিং হয়েছিল, যিনি এই ঘটনার আড়ালে ছিলেন। ভিডিওতে পুরুষদের পরিচয় স্পষ্ট নয়।

"আমি ১৯ জানুয়ারির বিরোধী ঐক্য সমাবেশে উপস্থিত ছিলাম, কিন্তু এমন কোন ঘটনা ঘটেনি যেখানে মুখোশধারী পুরুষরা মানুষকে বন্দুক দেখায়"। ইন্দ্রজিৎ কুণ্ডু, প্রিন্সিপাল করেস্পন্দেন্ট, ইন্ডিয়া টুডে বুমকে জানান। "এই ভিডিওটি পঞ্চায়েতের নির্বাচনে বাঁকুড়ার সোনামুখীতে শুট করা হয়।" একই ক্লিপ ইন্ডিয়া টুডের ভিডিওতে মে 2018 থেকে 1.41 সেকেন্ডে দেখা যাবে। ভিডিওটি পূর্বে কুইন্ট তথ্য যাচাই করে ভুল প্রমাণ করে।

Show Full Article
Next Story