ভুয়ো বার্তা: বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু হুমকি দিলেন রাষ্ট্রপুঞ্জ ও তুরস্ককে

বুম প্যালেস্তাইন সম্পর্কে তুরস্ক ও রাষ্ট্রপুঞ্জের অবস্থান নিয়ে ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর মন্তব্য খুঁজে পায়নি।

সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া পোস্টে দাবি করা হয়েছে ইজরায়েলের (Israel) প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু (Benjamin Netanyahu) রাষ্ট্রপুঞ্জ (United Nations) (ভারতীয় বাংলায় রাষ্ট্রপুঞ্জ) ও তুরস্কের (Turkey) বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন যেন তারা নিজের সীমা অতিক্রম না করে। প্যালেস্তাইন-ইজরায়েল (Palestine Israel Conflicts) এর মধ্যে চলা যুদ্ধের প্রেক্ষিতে এই বার্তাটি ভাইরাল হয়েছে।

বুম দেখে প্যালেস্তাইন-ইজরায়েল-এর সংঘর্ষ চলাকালীন রাষ্ট্রপুঞ্জ ও তুরস্ককের বিরুদ্ধে বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু (Benjamin Netanyahu) কোনও মন্তব্য করেনননি।

গাজা স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী এপর্যন্ত ২১৩ জন প্যালেস্তাইনির মৃত্যু হয়েছে, তার মধ্যে রয়েছেন ৬১ জন শিশু ও ৩৬ জম মহিলা। আহত হয়েছেন ১,৪৪০ জন। গাজায় সংকট তৈরি হয়েছে জ্বালানি, চিকিৎসা দ্রব্য ও পানীয় জলের। অন্যদিকে বসতি এলাকায় রকেট হানায় ইজরায়েলে মারা গেছে ১০ ব্যক্তি যার মধ্যে রয়েছে এক ৫ বছরের বালক ও এক সেনা। আমেরিকার রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন যুদ্ধ বিরতির আবেদনজানিয়েছেন

সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া বার্তাটিতে লেখা হয়েছে, "ইজরায়েল স্পষ্ট ভাবে জাতিসংঘ ও তুরস্ককে জানিয়ে দিয়েছে তারা যেনো নিজেদের লিমিটে থাকে.. তারা আরও বলেছে, ফিলিস্তিনের রক্ষায় যে দেশ ইজরায়েলের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনী নামাবে তাদেরকেও শেষ করে দেওয়া হবে.. "হামাসের আত্মসমর্পণ না করা পর্যন্ত ইজরায়েল সেনাবাহিনী সামনের দিকে এগোতে থাকবে আর আত্মসমর্পণের সময় ইজরায়েলের সেনাবাহিনী যেখানে থাকবে, সেখান পর্যন্ত ইজরায়েল রাষ্ট্রের নতুন আন্তর্জাতিক সীমানা হবে...বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু। একেই বলে রাষ্ট্রীয় নেতা।"

এরকম একটি ফেসবুক পোস্ট দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

আরেকটি পোস্ট দেখা যাবে এখানে

বুম দেখে একই বয়ানে ফেসবুকে বিভিন্ন পেজে ভাইরাল হয়েছে বার্তাটি।


তথ্য যাচাই

বুম ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর নিজস্ব ও সরকারী টুইটার অ্যাকাউন্ট ও গণমাধ্যমের প্রতিবেদন ক্ষতিয়ে দেখে তুরস্ক ও রাষ্ট্রপুঞ্জের বিরুদ্ধে কোনও মন্তব্য করেননি তিনি।

আতীতে নেতানিয়াহু রাষ্ট্রপুঞ্জের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন। যেমন ২০১৪ সালে বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু রাষ্ট্রপুঞ্জের সাধারণ সভায় ভাষণ দেওয়ার সময় রাষ্ট্রপুঞ্জের মানবধিকার কাউন্সিলকে (United Nations Human Rights Council) সন্ত্রাসীদের অধিকার রক্ষার কাউন্সিল বলে আখ্যা দিয়েছিলেন।

তুরস্কের তরফে রাষ্ট্রপতি রিচেপ তায়িপ এর্দোয়ান রাষ্ট্রপুঞ্জে ও ৫৭-সদস্যের অর্গানাইজেশান অফ ইসলামিক কোঅপারেশনকে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন। রুশ রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গেও আলোচনা করেন রিচেপ তায়িপ এর্দোয়ান।

কিন্তু এসবের পরও ইজরায়েলের তরফে এখনও পর্যন্ত তুরস্ক ও রাষ্ট্রপুঞ্জের বিরুদ্ধে কিছু প্রতিক্রিয়া দেওয়া হয়নি।

নেতানিয়াহু সন্ত্রাসী আক্রমণের বিরুদ্ধে তাঁর দেশের লড়াইয়ের অধিকারে পাশে থাকার জন্য টুইট করেন। ওই টুইটে ব্যবহার করেন ২৫ টি দেশের পতাকা। এই পতাকা ব্যবহারের বিষয়টিতে ঘোরতর আপত্তি জানিয়েছে বসনিয়া (Bosnia), হেরজোগাভেনিয়া (Herzegovina) ও অস্ট্রেলিয়া (Australia) প্রভৃতি দেশ।

রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের ভার্চুয়াল বৈঠকে অতিসত্ত্বর দুপক্ষের যুদ্ধ বিরতির আবেদন জানিয়েছে ভারতও। নিরাপত্তা পরিষদে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি ও কূটনীতিক টিএস তিরুমূর্তি ভারতের তরফে একথা বলেন।

আরও পড়ুন: আঘাতের ভেক ধরছে প্যালেস্তাইনের নাগরিকরা? ছড়াল পুরনো ভিডিও

Claim Review :   ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু বলেছেন জাতিসংঘ বা রাষ্ট্রপুঞ্জ ও তুরস্ক যেন নিজের সীমা অতিক্রম না করে
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story