মার্কিন বিমানবন্দরে পাকিস্তানের মন্ত্রীর নগ্ন তল্লাশি—দাবিতে ছড়াল বদলানো ছবি

বুম দেখে ২০১২ সালের মূল ছবিটি পোর্টল্যান্ড বিমানবন্দরে এক যাত্রীর, যিনি তল্লাশিতে ক্ষুব্ধ হয়ে নিজের পোশাক খুলে ফেলেন।

২০১২ সালে পোর্টল্যান্ড (Portland Airport) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ফটকে নিজের জামাকাপড় খুলে এক যাত্রীর নগ্ন (naked) হওয়ার ছবিতে পাকিস্তানের সাংসদ শাহরিয়ার খান আফ্রিদির (Shehryar Khan Afridi) মুখ ফোটোশপ করে জুড়ে দিয়ে মিথ্যা (False Claims) দাবি করা হচ্ছে যে, আফ্রিদিকে নাকি নিউইয়র্কের জেএফকে বিমানবন্দরে বেআব্রু করে তল্লাশি করা হয়েছে।

পাকিস্তানের কাশ্মীর বিষয়ক কমিটির সভাপতি আফ্রিদিকে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান রাষ্ট্রপুঞ্জের সাধারণ পরিষদে পাক প্রতিনিধিদলের নেতা করে নিউ ইয়র্ক পাঠালে ২০২১ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর তিনি মার্কিন মুলুকে পা রাখেন। তল্লাশি নেওয়ার জন্য তাঁকে নিউইয়র্কের জেএফকে বিমানবন্দরে কিছুক্ষণ আটকে রাখা হলেও অচিরেই তাঁকে যেতে দেওয়া হয় বলে ডন সংবাদপত্রে ১৯ সেপ্টেম্বর খবরও ছাপা হয়। সূত্রের খবর উদ্ধৃত করে ডন পত্রিকা লেখে, আফ্রিদিকে ঘন্টা খানেক ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় এবং নিউ ইয়র্কের পাকিস্তানি কনসুলেট তাঁর প্রতিনিধিত্ব বৈধ বলে জানালে তবে যেতে দেওয়া হয়।

এই প্রেক্ষাপটেই ৩টি ছবি একসঙ্গে শেয়ার করা হয়েছে, যার দুটিতে এক ব্যক্তিকে উলঙ্গ হয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে এবং তৃতীয়টিতে আফ্রিদিকে জেএফকে বিমানবন্দরে তল্লাশি করার খবরের গ্রাফিকস দেখানো হচ্ছে। এই তিনটি ছবি একসঙ্গে শেয়ার করে ভুয়ো দাবি করা হচ্ছে যে এটা আফ্রিদির তল্লাশি নেওয়ারই ছবিl

সঙ্গে ক্যাপশন দেওয়া হয়েছে— "পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শাহরিয়ার আফ্রিদিকে মার্কিন বিমানবন্দরে জামাকাপড় খুলে উলঙ্গ করে তল্লাশি নেওয়া হচ্ছে ।"


পোস্টটি দেখতে ক্লিক করুন এখানে


এই পোস্টটি দেখতে ক্লিক করুন এখানে

আরও পড়ুন: ভুয়ো খবর: কলকাতায় বাবাকে হাতে টানা রিক্সায় চাপালেন আইএএস কন্যা

তথ্য যাচাই

বুম যাচাই করে দেখে শাহরিয়ার খান আফ্রিদির মুখটি ফোটোশপ করে ভাইরাল হওয়া ছবিতে জোড়া হয়েছে।

ছবিটি খোঁজখবর করে বুম দেখেছে, এটি কিছু সংবাদ-প্রতিবেদন থেকে নেওয়া, যা ২০১২ সালের এপ্রিল মাসের একটি ঘটনা বিবৃত করেছিল। সে সময় তল্লাশির নামে বাড়াবাড়ির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে জন ই ব্রেনান নামে এক ব্যক্তি পোর্টল্যান্ড আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নিজের সব জামা-কাপড় খুলে উলঙ্গ হয়েছিলেন।

এনবিসি নিউজ-এর রিপোর্টে প্রকাশিত সেই ছবিটি দেখলেই স্পষ্ট হবে যে, ভাইরাল হওয়া ছবির ব্যক্তির মুখ আর এই ছবির ব্যক্তির মুখ এক নয়।


ছবিটির ক্যাপশন এই রকম, "১৭ এপ্রিল, পোর্টল্যান্ড বিমানবন্দরে তোলা ছবি...নিরাপত্তা-তল্লাশির এলাকা দিয়ে যাওয়ার সময় জন ই ব্রেনান তল্লাশির বাড়াবাড়ির প্রতিবাদে উলঙ্গ হয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছেন । ঘটনার খবরে লেখা হয়, মঙ্গলবার ব্রেনানের এই কার্যকলাপে কিছু যাত্রী চোখ ঢেকে ফেলেন এবং বা্চ্চাদের চোখেও চাপা দিয়ে দেন, বাকিরা অনেকে চেয়ে থাকেন, হাসাহাসি করেন, কেউ-কেউ ছবিও তুলে নেন । ব্রেনান পরে জানান, তিনি নিয়মিত বিমানে যাতায়াত করেন ।"

ওই বছরেরই (২০১২) ১৯ এপ্রিল আমরা এবিসি নিউজ-এর ইউটিউব চ্যানেলে ঘটনাটির একটি প্রতিবেদন আপলোড হতেও দেখেছি।


রিপোর্টটি দেখুন এখানে

শুধু তাই নয়, আফ্রিদি নিজেও টুইট করে এই খবরটিকে ভুয়ো বলে বর্ণনা করেছেন এবং এটিকে ভারতীয়দের উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অপপ্রচার বলে আখ্যা দিয়েছেন, যেহেতু তিনি কাশ্মীর প্রসঙ্গ নিয়ে রাষ্ট্রপুঞ্জে দরবার করতে এসেছেন।

ভাইরাল হওয়া ছবির সঙ্গে আসল ছবিটার তুলনা করলে আমরা স্পষ্ট দেখতে পাচ্ছি, শাহরিয়র আফ্রিদির মুখটি জন ব্রেনানের মুখের উপর ফোটোশপ করে জোড়া হয়েছে।


Updated On: 2021-11-10T18:54:27+05:30
Claim :   পাক মন্ত্রীকে আমেরিকার বিমান বন্দরে নগ্ন করে তল্লাশি
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.