ভুয়ো সতর্কবার্তাঃ এক আহত রুশ সৈনিকের ছবি ভারতীয় সেনা জওয়ানের ছবি বলে ভাইরাল হয়েছে

একজন আহত রুশ সৈনিকের ফোটো ভাইরাল করে দাবি করা হচ্ছে, ইনি নাকি একজন ভারতীয় জওয়ান, যিনি হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে পুলওয়ামার প্রতিশোধ নিতে চলেছেন

জনৈক রুশ সৈনিকের একটি পুরনো ছবি সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এই দাবি সহ যে, ইনি একজন ভারতীয় জওয়ান যিনি হাসপাতালের শুশ্রূষাশয্যা ছেড়ে পুলওয়ামা হত্যাকাণ্ডের বদলা নিতে বেরিয়ে পড়েছেন ।

পোস্টের আর্কাইভ ভার্সন এখানে দেখুন।

ছবিটির সঙ্গে হিন্দিতে যে ক্যাপশনটি দেওয়া হচ্ছে, সেটি এ রকমঃ “মোদী সরকার দীর্ঘজীবী হোক যখন এই ভারতীয় জওয়ানটি জানতে পারেন যে সেনাবাহিনীকে জঙ্গি মোকাবিলায় ঢালাও অনুমতি দেওয়া হয়েছে, তখন তিনি হাসপাতালে নিজের চিকিৎসা ছেড়েই শত্রুর বিরুদ্ধে বদলা নিতে বেরিয়ে পড়েন । এটাই আমাদের সেনাবাহিনীর মনোবল । জয় হিন্দ, বন্দে মাতরম্ ।”

বুম দেখেছে, হিন্দি ক্যাপশন সহ পোস্টটি ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে ।

তথ্য যাচাই

ছবিটির খোঁজ নিয়ে দেখা গেল, রুশ সার্চ ইঞ্জিন ইয়ানডেক্স কয়েকটি লিংক দিয়েছে, যেখানে এই ছবিটি অতীতে একাধিক উপলক্ষে ব্যবহৃত হয়েছে । অধিকাংশ ক্ষেত্রেই ছবিটি রুশ সৈনিক ম্যাক্সিম আলেকজান্দ্রোভিচ রাজুমোভস্কির ছবি বলে বলে শনাক্ত হয়েছে ।

ভারতীয় ফেসবুক পেজ শত্রুজিত্ও ২০০৪-এর সেপ্টেম্বরে এটি রুশ সৈনিক রাজুমোভস্কির ফোটো বলে পোস্ট করেছিল । পোস্টটিতে জানানো হয়, এটি ২০০৪ সালের ছবি, যখন রাশিয়ার বেসলান শহরে স্কুলে জঙ্গি হামলার ঘটনায় ৩০০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হন ।

বুম ওই একই ছবি একটি রুশ পেজ স্পেশনাজ-এ ছাপা হতে দেখেছে ।

রাশিয়ান প্রতিবেদনের স্ক্রিনশট

রুশ পোস্টটির অনুবাদ করে বুম তার অর্থ পেয়েছে— “ভাইম্পেল অফিসার রাজুমোভস্কি বিশেষ বাহিনী ও বেসলানের এক প্রতীক হয়ে উঠেছেন, ইন্টারনেটে যাকে লোকে ডাকত “রুশ ট্যাংক” বলে ।” ভাইম্পেল হল একটি বিশেষ দক্ষতাসম্পন্ন রুশ সশস্ত্র গোষ্ঠী যারা রুশ যুক্তরাষ্ট্রের তত্ত্বাবধানে কাজ করে ।

আরও খোঁজ চালিয়ে বুম জানতে পারে যে, ২০০৪ সালের সেপ্টেম্বরে আহত রাজুমোভস্কির এই ফোটোটি তোলা হয় রাশিয়ার বেসলান এলাকায় যখন একটি স্কুল দখল করে নেয় সন্ত্রাসবাদীরা । স্কুলের বাচ্চা সহ এক হাজারেরও বেশি মানুষকে সে দিন জঙ্গিরা পণবন্দি করে এবং রুশ সেনাবাহিনী তিন দিন ধরে অভিযান চালিয়ে তাদের উদ্ধার করতে পারে ।

সেই অভিযানের সময় রাজুমোভস্কির ভূমিকা ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়, বিশেষত আহত অবস্থাতেও তাঁর ত্রাণকাজ চালিয়ে যাওয়ার মানসিকতা ।

Claim Review :   Indian soldier joins duty despite being injured
Claimed By :  Facebook posts
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story