ভুয়ো মেসেজের দাবি, ১০০’র বেশি প্রার্থী হলে সে কেন্দ্রে ইভিএম থাকবে না

নির্বাচন কমিশনের এক মুখপাত্র বলেন, আধুনিক ইভিএমগুলি নোটা সহ ৩৮৪ পর্যন্ত প্রার্থী নিতে পারে

একটি ভাইরাল মেসেজ মিথ্যে দাবি করছে, যে সব কেন্দ্রে ১০০’র বেশি প্রার্থী থাকবে সেখানে ইভিএম মেশিন ব্যবহার করা যাবে না। সোশাল মিডিয়া, বিশেষ করে ফেসবুক আর টুইটারে, এই ভুয়ো মেসেজ ছড়িয়ে পড়েছে।

মেসেজটিতে এই মর্মে আর্জি জানানো হয়েছে যে, জনসাধারণ যেন প্রতিটি কেন্দ্রে যত বেশি সংখ্যায় সম্ভব প্রার্থী দাঁড় করান যাতে সে সব কেন্দ্রে ইভিএম মেশিনের বদলে কাগজের ব্যালট ব্যবহার করা হয়। হিন্দিতে লেখা ওই মেসেজের বাংলা করলে যা দাঁড়ায় তা এই রকম: “যে সব কেন্দ্রে ১০০’র বেশি প্রার্থী সেখানে ইভিএম মেশিন ব্যবহার করা হবে না। যদি আপনি চান যে আপনার কেন্দ্রে ইভিএম-এর বদলে ব্যালট পেপারে ভোট হোক, তা হলে বেশি সংখ্যায় প্রার্থীকে ভোটে দাঁড় করান। তাতে গণতন্ত্র সুরক্ষিত থাকবে।”

(जहां कहीं भी 100 से अधिक
उम्मीदवार होंगें वहां
EVM का इस्तेमाल नहीं हो पाएगा…
अगर आप चाहते हैं कि आपके क्षेत्र में
चुनाव EVM से न होकर बैलेट पेपर से हो तो…
अपने अपने क्षेत्र से अधिक से अधिक
उम्मीदवारों का चुनाव में
खड़ा रहने में मदद करें और लोकतंत्र को बचा लें…)

মেসেজ শেয়ার করার ক্ষেত্রে অনেকেই হ্যাসট্যাগ #ব্যানইভিএম অথবা
#BanEVM ব্যবহার করেছেন।





তথ্য যাচাই

নির্বাচন কমিশনের মুখপাত্র শেফালি শারণ টুইট করে জানিয়েছেন যে, নির্বাচন কমিশন সেরকম কোনও পদক্ষেপ নেয় নি। এবং ভোটদাতাদের ওই মিথ্যে খবরে কান না দিতে অনুরোধ করেন তিনি।

শারণ আরও বলেন যে, আধুনিকতম ইভিএম মেশিনগুলি নোটা সহ ৩৮৪ প্রার্থী নিতে পারে। এবং যে যে কেন্দ্রে ওই মেশিনের প্রয়োজন হবে, সেখানে সেগুলি বসান হবে।
শারণের টুইট নীচে দেওয়া হল।





Claim :   যে সব কেন্দ্রে ১০০’র বেশি প্রার্থী থাকবে সেখানে ইভিএম মেশিন ব্যবহার করা যাবে না
Claimed By :  Twitter and Facebook
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.