বিজেপি আইটি সেল প্রধান অমিত মালব্য ২০১৭ সালের ছবিকে গাঁধীদের ২০০৮ সালে চিন সফর বললেন

বুম দেখে ছবিটি ২০১৭ সালের, নতুন দিল্লির চিনা দূতাবাসে আয়োজিত এক খাদ্য-উৎসবের ছবি।

২০১৭ সালে নয়াদিল্লির চিনা দূতাবাস একটি খাদ্য-উৎসব আয়োজন করে, যেখানে বিজেপি সহ বিভিন্ন দলের রাজনীতিকরা উপস্থিত ছিলেন। সেই অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন সনিয়া গাঁধী এবং রাহুল গাঁধী। বিজেপির আইটি সেল-এর প্রধান অমিত মালব্য সেই ভোজন উৎসবেরই একটি ছবি দেখিয়ে এখন প্রচারে নেমেছেন যে, ওটা রাহুল-সনিয়ার ২০০৮ সালের চিন সফরের ছবি!

১৫ জুন ভারত-চিন সীমান্তে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় দু-দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষের উত্তাপ যখন দেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে, তখনই অমিত মালব্য এই ছবিটি টুইট করেন। ওই সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় সেনার মৃত্যু হয়, যদিও চিন এখনও তার হতাহতের ব্যাপারে সরকারি ভাবে কিছু জানায়নি।

মালব্যর টুইট করা ছবিটিতে পাশাপাশি রাহুল গাঁধী, প্রিয়ংকা গাঁধী, তাঁর স্বামী রবার্ট বটরা এবং তদানীন্তন চিনা রাষ্ট্রদূত লুও ঝাও হুই-কে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে।

টুইটটির আর্কাইভ করা আছে এখানে

ছবিটি ২০১৭ সালের এবং নয়াদিল্লির

গুগল ইমেজ সার্চ-এ খোঁজ লাগিয়ে আমরা দেখি, অমিত মালব্যর টুইট করা ছবিটি ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে তোলা হয় দিল্লির তাজ প্যালেস হোটেলেl এই ছবিটাই চিনা দূতাবাসের ওয়েবসাইটেও ২০১৭ সালের ২১ এপ্রিল পোস্ট করা হয়।

সেখানে উল্লেখ করা হয় যে, চিনা দূতাবাস চিনের দিয়াওইউতাই খাদ্য উত্সবে অংশগ্রহণ করতে রাহুল গাঁধী, প্রিয়ংকা গাঁধী ও তাঁর পরিবারকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল।


ওই উৎসবে অন্য অনেক রাজনীতিকও আমন্ত্রিত হয়েছিলেন, যেমন বিজেপির সুরেশ প্রভু (যিনি সে সময় কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী ছিলেন), সিপিআই(এম)-এর সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি এবং সংযুক্ত জনতা দলের সাধারণ সম্পাদক কে সি ত্যাগী।

ওই অনুষ্ঠানে অংশ নেন সুরেশ প্রভু

২০০৮ সালে রাহুল-সনিয়ার চিন সফর

২০০৮ সালের ৮ অগস্ট আইএএনএস রিপোর্ট করে, অগস্ট মাসেই কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধী এবং সাধারণ সম্পাদক রাহুল গাঁধী বেজিংয়ে গিয়ে চিনা উপরাষ্ট্রপতির সঙ্গে একটি বোঝাপড়ার চুক্তিপত্রে (memorandum of understanding) স্বাক্ষর করেন।

টাইমস অফ ইন্ডিয়া ৭ অগস্ট রিপোর্ট করে: "দু দেশের যুব সংগঠনগুলির মধ্যে আদানপ্রদান বাড়ানোর চুক্তিপত্রে সনিয়া গান্ধী ও চিনা উপরাষ্ট্রপতির উপস্থিতিতে স্বাক্ষর করেন রাহুল গান্ধী এবং চিনা কমিউনিস্ট পার্টির আন্তর্জাতিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী ওয়াং শিয়া রুই l"

ওই প্রতিবেদন অনুসারে সনিয়া গান্ধী সে সময় সপরিবারে চিনে গিয়েছিলেন বেজিং অলিম্পিক গেমস-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে। সে সময় সনিয়া চিনা উপরাষ্ট্রপতি শি জিন পিং-এর সঙ্গেও সাক্ষাত্ করেছিলেন, যেখানে রাহুল গান্ধীও উপস্থিত ছিলেন। চিনের সরকারি টিভি চ্যানেল সিসিটিভিতেও সাক্ষাৎকারটি সম্প্রচারিত হয়েছিল।

অতীতেও বুম অমিত মালব্যর ছড়ানো গুজব এবং ভুয়ো খবরের পর্দাফাঁস করেছে। (দেখুন এখানে এবং এখানে)

Updated On: 2020-06-20T13:49:43+05:30
Claim Review :   ২০০৮ সালে সনিয়া গাঁধী ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের চিন সফরের ছবি
Claimed By :  Amit Malviya
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story