হায়দরাবাদ পশু চিকিৎসক ধর্ষণ ও খুনের ঘটনা: ভাইরাল হল অপ্রাসঙ্গিক ভিডিও

বুম খুঁজে পেয়েছে মূল ভিডিওটি অন্ধ্রপ্রদেশের চিতোর জেলার। এক নাবালিকাকে ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত ওই ব্যক্তিকে পুলিশ পেটায়।

অন্ধ্রপ্রদেশে ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত এক ব্যক্তিকে পুলিশের পেটানোর দৃশ্যের ভিডিও ফেসবুকে মিথ্যে দাবি সহ ছড়ানো হচ্ছে, এই মর্মে যে ব্যক্তিটি মহাম্মদ ওরফে আরিফ যে হায়দরাবাদে পশু চিকিৎসককে গণধর্ষণ ও খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত।

২৮ নভেম্বর হায়দরাবাদের উপকন্ঠে ২৬ বছর বয়সী এক তরুণী পশু চিকিৎসক চার ব্যক্তি দ্বারা গণধর্ষণের শিকার হয় ও পরে খুন করে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয় তার দেহ। এই নৃশংস ঘটনার প্রতিবাদে তেলেঙ্গানা সহ সারা দেশে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে।

অন্ধ্রপ্রদেশের চিতোর জেলার এই ভিডিওটিতে ওই যুবককে এক নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশ মারে। পরে স্থানীয়রাও গণধোলাই দেয় তাকে।

২ মিনিট ১১ সেকেন্ডের ওই ভিডিওটিতে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, ''(ধর্ষিতার নাম) ধর্ষণ করে পুড়িয়ে মারা এক আসামীকে পুলিশ ধোলাই দিচ্ছে। ফাঁসি চাই এই জানোয়ারদের।''

ইউটিউবে আপলোড করা হয়েছে ওই ভিডিও

ইউটিউবে আপলোড করা ভিডিওটির স্ক্রিনশট।

ফেসবুকেও ভাইরাল হয়েছে ভিডিওটি। এই প্রতিবেদন লেখার সময় পর্যন্ত ২২,০০০ জনের বেশি দেখেছে ওই ভিডিওটি। ফেসবুক পোস্টটিতে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, ''সবাইকে দ্যাখার সুযোগ করে দিন, যাতে সবার শিক্ষা হয়।*** উচিৎ সাজা চাই 2+ মিনিটের মারায় কিচ্ছু হবে না।''


ফেসবুক পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

তথ্য যাচাই

ভিডিওটিকে মূল কয়েকটি ফ্রেমে ভেঙে নিয়ে বুম রিভার্স সার্চ করে একই ধরণের একটি ইউটিউব ভিডিওর হদিস পায়। হায়দরাবাদের ঘটনার দুদিন আগে ২৬ নভেম্বর টিআর নিউজ নামে একটি ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিওটি আপলোড করা হয়।

তেলেগু ভাষায় লেখা ক্যাপশন: "చిత్తూరు జిల్లాలో దారుణం 10 ఏళ్ల బాలికపై అత్యాచారం చేసిన యువకుడు"


দ্য হিন্দুতে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত সপ্তাহের শুরুতে অন্ধ্রপ্রদেশ জেলার চিতোর জেলায় এক নাবালিকাকে ধর্ষণে অভিযুক্ত হয় ওই ব্যক্তি। ওই প্রতিবেদনের সারাংশে বলা হয়, ''২৪ নভেম্বর পঞ্চম শ্রেণীর ওই ছাত্রীকে প্রলভন দেখিয়ে কাছের মাঠে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে ওই ব্যক্তি। পরে তাকে মেরে ফেলার চেষ্টা করলে মেয়েটি পালাতে সক্ষম হয়। সোমবার সন্ধ্যায় মেয়েটি কার বাবা মাকে সে কথা জানালে তারা পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করে।''

ওই যুবককে পুলিশের পেটানোর ভিডিও পরে ভাইরাল হয়ে যায় সোশাল মিডিয়ায়।

২৭ নভেম্বর ২০১৯ প্রকাশিত দ্য হিন্দুর প্রতিবেদনের স্ক্রিনশট।

মহাম্মদ ওরফে আরিফ হায়দরাবাদে পশু চিকৎসককে গণধর্ষণ ও খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত চার জনের মধ্যে একজন। অন্যান্য অভিযুক্তদের সঙ্গে ডানদিকের প্রথমে ছবিতে রয়েছে মহাম্মদ। ছবিটি প্রকাশ করেছে নিউজমিটার

অভিযুক্তদের ছবি। সৌজন্য: নিউজমিটার

শুক্রবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ওই ঘটনায় অভিযুক্ত চারজনেরই নাম প্রকাশ করেছে পলিশ। তারা হল মহাম্মদ ওরফে আরিফ, জলু শিবা, জলু নবীন, চিন্তাকুন্তা চিন্নাকেশাভালু।

Updated On: 2019-12-02T15:20:20+05:30
Claim Review :  ভিডিওর দাবি হায়দরাবাদ ধর্ষণ ও খুনে অভিয়ুক্ত মহাম্মদ পাশাকে পুলিশ মারছে
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Next Story