প্যারিস শিরচ্ছেদ: ইয়েমেনের পুরনো ভিডিও মিথ্যে দাবি সহ ভাইরাল

বুম যাচাই করে দেখে ইয়েমেনের সানায় নবী মহম্মদের জন্মদিনে জমায়েতের ভিডিওটি তোলা হয় ৯ নভেম্বর, ২০১৯।

নবী হজরত মহম্মদের জন্মদিন উপলক্ষে ২০১৯ সালে ইয়েমেনে জনসমাগমের একটি ভিডিও মিথ্যে দাবির সঙ্গে ভাইরাল হয়েছে। সম্প্রতি এক উগ্র ইসলামপন্থী ফ্রান্সের এক স্কুল শিক্ষককে মাথা কেটে খুন করে। ভাইরাল ভিডিওটিকে এই ঘটনার সঙ্গে সম্পর্কিত বলে দাবি করে শেয়ার করা হয়েছে।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে ওই অনুষ্ঠান উদযাপন করার জন্য বহু লোক জড়ো হয়েছে। এই ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় মিথ্যে ক্যাপশনের সঙ্গে শেয়ার করা হয়েছে। ফ্রান্সে শিক্ষক খুনের ঘটনার পর নিজেদের শক্তি প্রদর্শনের উদ্দেশে মুসলিমরা জড়ো হওয়ার দৃশ্য এটি বলে ক্যাপশনে দাবি করা হয়েছে। ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দ্বিতীয় দাবি করা হয়েছে যে, ভিডিওটির সঙ্গে ফ্রান্সের শিরোশ্ছেদের ঘটনার যোগ রয়েছে এবং ভিডিওটি চেচনিয়ার বলে দাবি করা হয়েছে।
১৬ অক্টোবর আবদুল্লাখ আব্যুজিদোভিচ নামে ১৮ বছরের চেচেন বংশোদ্ভূত রাশিয়ার এক উদ্বাস্তু কলেজ দি বইস ডি'আল্যুন'র ইতিহাস এবং ভূগোলের এক শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটিকে (৪৭) মাথা কেটে খুন করে। আবদুল্লাখ এখন ফ্রান্সের বাসিন্দা। প্রফেট মহম্মদের একটি বিতর্কিত কার্টুন নিয়ে আলোচনা করার জন্য প্যাটির উপর আক্রমণ করা হয় বলে অভিযোগ। ইভারেক্সের যে অঞ্চলে প্যাটির দেহ পাওয়া গিয়েছিল, সেখানেই সন্দেহভাজন আব্যুজিদোভিচ পুলিশের গুলিতে মারা যায় বলে জানানো হয়েছে।
ভিডিওটির সঙ্গে যে সব ক্যাপশন ভাইরাল হয়েছে তার একটিতে দাবি করা হয়েছে যে ভিডিওটি ফ্রান্সের। আরও লেখা হয়েছে, "आज फ्रांस है, कल आपका देश हो सकता है"।
দুটি ক্যাপশনই ফেসবুক এবং টুইটারে ভাইরাল হয়েছে।

দ্বিতীয় ক্যাপশনে ভুয়ো দাবি করা হয়েছে যে ভিডিওটিতে চেচনিয়ার অধিবাসীরা ফ্রান্সের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাচ্ছে। চেচনিয়া মূলত মুসলিম ও রাশিয়ান অধ্যুষিত একটি প্রজাতন্ত্র। ১৯০০ এবং ২০০০ শতকে রাশিয়ান বাহিনী এবং ইসলামি বিচ্ছিনতাবাদী শক্তির মধ্যে সংঘর্ষ চলেছে। সেসময় ফ্রান্স ওই অঞ্চলের বহু মানুষকে আশ্রয় দিয়েছে।
শিক্ষকের উপর এই আক্রমণের ফলে চেচনিয়ার যেসব মানুষ ফ্রান্সে আশ্রয় নিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যাপক বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে এর আগেও ফ্রান্সে হিংসাত্মক ঘটনা ঘটানোর অভিযোগ রয়েছে।
ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, "চেচেন মুসলিমরা ফ্রান্সের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে এবং নবীর প্রতি তাদের শ্রদ্ধা জানাচ্ছে"।

ফেসবুক
বুম যাচাই করে দেখেছে ভিডিওটি ইয়েমেনের। সেখানে ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে নবী হজরত মহম্মদের জন্মদিন উদযাপনের সময় বিপুল সংখ্যক লোক একত্রিত হয়েছিল।
ভিডিওটির গুরুত্বপূর্ণ অংশ নিয়ে আমরা সার্চ করি এবং ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসের অনেকগুলি প্রতিবেদন দেখতে পাই। ওইসব প্রতিবেদনে একই ভিডিওর কিছু দৃশ্য দেখতে পাওয়া যায়। ওইসব প্রতিবেদন অনুসারে ওই ছবিগুলি ইয়েমেনের রাজধানী সানায় নবী হজরত মহম্মদের জন্মদিন উপলক্ষ্যে যে জমায়েত হয়েছিল তার ছবি।
ধামার নিউজ, ইয়েমেনের প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে আমরা যে লোগো দেখতে পাই তা ভাইরাল ভিডিওতেও দেখা গেছে। লোগোতে লেখা আছে— আনসার আল্লা মিডিয়া সেন্টার। আমরা সার্চ করে একই নামের একটি নিউজ সাইট খুঁজে পাই যা ইয়েমেনের হাউতি আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত ছিল। আমরা আরবী কিওয়ার্ড দিয়ে সার্চ করে ২০১৯ সালের ৯ নভেম্বরের একটি প্রতিবেদন দেখতে পাই যাতে ভাইরাল হওয়া ভিডিওর সঙ্গে মিলে যায় এমন ছবি দেখতে পাওয়া গেছে।

২০১৯ সালের ৯ নভেম্বর প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয় যে ওই অনুষ্ঠানটি সানায় হয়েছিল "নবীর জন্মদিন উদযাপন করতে হাজার হাজার মানুষ জড়ো হয়েছিলেন"। ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, "খুব সকাল থেকে অনুষ্ঠানস্থলে সাধারণ মানুষ এবং সানার বিভিন্ন সচিবালয়, ডিরেক্টরেটস এবং গভর্নরের আধিকারিকদের জড়ো হতে দেখা যায়"।
এর পর আমরা এএফপি সংবাদ সংস্থার ভিডিও স্ট্রিমিং পরিষেবা এএফপিটিভিতে ২০১৯ সালের ৯ নভেম্বরের একটি ভিডিও খুঁজে পাই যেখানে ওই একই অনুষ্ঠানের ছবি দেখতে পাই।

আমরা এর পর ফ্রান্সের অনেকগুলি পুরানো ভিডিও এবং ছবি খুঁজে পাই যেগুলিকে শিরোশ্ছেদের ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে নতুন করে শেয়ার করা হয়েছে। ফ্রান্সের শিক্ষকের উপর আক্রমণের পর এরকম দুটি ভুয়ো দাবির বুম এর আগে তথ্য যাচাই করেছে এবং সেগুলিকে মিথ্যে প্রমাণ করেছে।
Updated On: 2020-11-01T11:18:09+05:30
Claim Review :   ভিডিও দেখায় নবী মহম্মদের ব্যঙ্গচিত্র দেখানোয় এক শিক্ষককে হত্যা করার পর ফ্রান্সে মুসলিমদের জমায়েত
Claimed By :  Social Media Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story