কোরান পাঠ শেষের ছবি সৌদিতে মা নিজের ছেলেকে বিয়ে করছে বলে ভাইরাল হল

বুম দেখে ভাইরাল ছবিটিকে পরিপ্রেক্ষিত থেকে বিচ্ছিন্ন করে সাম্প্রদায়িক মোড় দেওয়ার চেষ্টা হয়েছে।

গলাতে মালা পরা এক মহিলা ও একটি ছেলের ছবি ভাইরাল হয়েছে। সাম্প্রদায়িক ইঙ্গিতমূলক বার্তায় বলা হয়েছে যে, স্বামী মারা যাওয়ার পর, ওই সৌদি মহিলা নাকি তাঁর নিজের ছেলেকেই বিয়ে করেছেন।

ছবিটি মিথ্যে ক্যাপশন সহ হিন্দি ও ইরেজিতে শেয়ার করা হচ্ছে। ক্যাপশনে বলা হয়েছে, "মুসলমান মা তার স্বামীর মৃত্যুর পর নিজের ছেলেকে বিয়ে করেছে।"

টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

(মূল হিন্দিতে ক্যাপশন: "सऊदी की इस मुस्लिम महिला ने पति के इन्तेकाल के बाद अपने ही े सगे बेटे से किया निकाह आखिर यही तो है इस्लाम")

টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

ফেসবুকে ভাইরাল

আমরা দেখি যে, ছবিটি একই সাম্প্রদায়িক ইঙ্গিত সহ ফেসবুকেও শেয়ার করা হয়েছে।


তথ্য যাচাই

ইয়ান্ডেক্সের সাহায্যে রিভার্স ইমেজ সার্চ করলে, ৩১ জানুয়ারি ২০২০'র একটি ফেসবুক পোস্ট বেরিয়ে আসে। সেটিকে ইংরেজিতে অনুবাদ করলে দাঁড়ায়. "আজ আমার ছেলের আল-কোরানের খতম ছিল। শেয়ার করে অভিবাদন জানান। (মূল উর্দুতে লেখা: ج میرے بیٹے کا ختم القرآن تھا, ھمیں مبارک باد دے کر کون کون شئیر کریگا)
শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত কোরান পাঠকে আল-কোরান খতম তামাম বলে।

ছবিটি কোথায় তোলা হয়েছিল তা আমরা জানতে পারিনি। তবে এটা জানা যায় যে, ছেলেটি কোরান পাঠ শেষ করলে, তার মা তার পাশে দাঁড়িয়ে ছবি তোলান।

উর্দুতে "আজ আমার ছেলের আল-কোরান খতম" (মূল উর্দুতে: ج میرے بیٹے کا ختم القرآن تھا) ক্যাপশনটি লিখে ফেসবুকে সার্চ করলে বেশ কিছু ছবি উঠে আসে। সেখানে নিজের ছেলেদের কোরান পাঠের শেষে অনেক বাবা-মা একই ভাবে গলায় মালা পরে তাঁদের ছেলেদের সঙ্গে ছবি তোলার ঘটনা চোখে পড়ে। কিছু ছবির ক্যাপশনে এও বলা হয় যে, আল-কোরান খতম অনুষ্ঠানের শেষে ছবিটি তোলা হয়।


অল্ট নিউজ-এর সহ প্রতিষ্ঠাতা মহম্মদ জুবায়ের টুইটারে একটি 'থ্রেড' পোস্ট করেন। ভাইরাল ছবিটি সম্পর্কে যা যা জানতে পেরেছেন, তা উনি বিস্তারিত জানান ওই পোস্টে।

Updated On: 2020-02-25T18:22:18+05:30
Claim Review :  সৌদিতে মুসলিম মহিলা তাঁর স্বামী মারা যাওয়ায় ছেলেকে বিয়ে করেছে
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story