নরেন্দ্র মোদী মনমোহন সিংয়ের চেয়ে কম বিদেশ সফর করেছেন, অমিত শাহের এই দাবিটি মিথ্যা

প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে প্রাপ্ত পরিসংখ্যান এবং প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের আর্কাইভ থেকে পাওয়া তথ্য মিলিয়ে দেখা যাচ্ছে, অমিত শাহের দাবিটি আদেও সমর্থনযোগ্য নয়।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সম্প্রতি দাবি করেছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহনসিংয়ের তুলনায় অনেক কম বার বিদেশ সফরে গিয়েছেন। দাবিটি সরাসরি মিথ্যা।

বুম সরকারি তথ্য পরীক্ষা করে দেখেছে, দুই প্রধানমন্ত্রীর প্রথম পাঁচ বছরের মেয়াদে মোদী মনমোহন সিংয়ের চেয়ে অনেক বেশি বার বিদেশ সফর করেছেন।

অমিত শাহ হরিয়ানার কৈথালেরাজ্য বিধানসভার নির্বাচনী প্রচারে ভাষণ দিতে গিয়ে এমন দাবি করেন। মোদী তাঁর সফরকালে বিদেশে যে আড়ম্বর ও জাঁকজমকের সঙ্গে সম্বর্ধিত হয়েছেন, তার সঙ্গে মনমোহন সিংয়ের অনাড়ম্বর এবং নীরব সফরসূচির তুলনা টানছিলেন অমিত শাহ। তিনি কংগ্রেস দলের একজন নেতার মোদীর ঘন-ঘন বিদেশ সফরের প্রসঙ্গ টানার উল্লেখও করেন, যদিও কোন নেতা, সেটা খুলে বলেননি।



বঙ্গানুবাদমূল হিন্দিতে
“মোদীজি সারা বিশ্ব সফর করেন। এবং আমি খোঁজ নিয়ে দেখেছি, মোদীজির পাঁচ বছর এবং মনমোহনজির পাঁচ বছরের প্রধানমন্ত্রিত্বের কালে কে বেশি সময় বিদেশে কাটিয়েছেন এবং দেখেছি, মোদী মনমোহন সিংয়ের চেয়ে অনেক কম বিদেশে গিয়েছেন।” "...मोदीजी विदेशो में घुमते हैं , मैंने बोला  ज़रा जांच करा (किया) , के मनमोहनजी के 5 साल और मोदीजी के 5 साल ज़्यादा विदेश में कौन गया, देखो भाई, तो मालूम पड़ा मोदीजी काम गए हैं और मनमोहन सिंह ज़्यादा "

অমিত শাহ যেহেতু মনমোহন সিং তাঁর দুটি প্রধানমন্ত্রিত্বের মেয়াদের কোনটিতে বেশি বিদেশ সফর করেছেন, স্পষ্টভাবে তা উল্লেখ করেননি, বুম তাই মনমোহন সিংয়ের দুটি মেয়াদেরই বিদেশ সফরের হিসাব নিয়েছে।

বিদেশ সফরের সংখ্যা

প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে পাওয়া তথ্যে দেখা যাচ্ছে, ২০১৪ সালে ক্ষমতাসীন হওয়ার পর নরেন্দ্র মোদী মোট ৫৬ বার বিদেশ সফর করেছেন, যার মধ্যে এ বছরের সেপ্টেম্বর মাসে তার বহুবিজ্ঞাপিত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সফরও অন্তর্ভুক্ত। তার মধ্যে প্রথম দফার প্রধানমন্ত্রিত্বেই মোদী মোট ৪৯ বার বিদেশ সফরে গিয়েছেন। তারই নিজের দফতরের পরিসংখ্যান বলছে, ২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর জুন মাসে ভুটান সফর দিয়ে মোদীর বিদেশ যাত্রার সূচনা, আর এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে কোরীয় প্রজাতন্ত্রে ছিল তার প্রথম দফার প্রধানমন্ত্রিত্বের শেষ সফর।

এর বিপরীতে মনমোহন সিংয়ের বিদেশ সফরের তালিকা দেখুন:

  • তার প্রথম দফার প্রধানমন্ত্রিত্বে মনমোহন মাত্র ৩৫ বার বিদেশ সফরে যান, যা শুরু হয় ২০০৪ সালের জুলাইয়ে তাঁর ব্যাংকক যাত্রা দিয়ে, আর শেষ হয় ২০০৯ সালের এপ্রিল-মে মাসে জি-২০ রাষ্ট্রপ্রধানদের শীর্ষ সম্মেলনে উপস্থিতির জন্য লন্ডন সফর দিয়ে।
  • তার প্রধানমন্ত্রিত্বের দ্বিতীয় দফায় মনমোহন মোট ৩৮ বার বিদেশ সফরে যান, যা শুরু হয় ২০০৯ সালের জুন মাসে রাশিয়ায় অনুষ্ঠিত দুটি শীর্ষ সম্মলনে উপস্থিতি দিয়ে—প্রথণটি ‘ব্রিক্স’, অর্থাত্ ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চিন ও দক্ষিণ আফ্রিকার রাষ্ট্রপ্রধানদের, আর দ্বিতীয়টি ‘সাংহাই সহযোগিতা গোষ্ঠী’র রাষ্ট্রনায়কদের।

সুতরাং মনমোহন সিংয়ের দুটি প্রধানমন্ত্রিত্বের মেয়াদের যেটির সঙ্গেই তুলনা করা হোক, মোদী তাঁর চেয়ে অনেক বেশি বার বিদেশ সফর করেছেন।

সফর করা দেশের সংখ্যা

মনমোহন সিং তার দুটি প্রধানমন্ত্রিত্বের মেয়াদে মোট ৯৩টি দেশ সফর করেন, যার মধ্যে কোনও-কোনও দেশে একাধিকবার সফরের বিষয়টিও এই তালিকার অন্তর্ভুক্ত l এই পরিসংখ্যান কেবল মনমোহনের সম্পর্কে আর্কাইভেই নথিভুক্ত নয়, সংবাদ প্রতিবেদনেই উল্লেখিত হয়েছে।

  • প্রধানমন্ত্রিত্বের প্রথম দফায় মনমোহন ৪৩টি দেশ সফর করেন
  • দ্বিতীয় দফায় তার সফর করা দেশের সংখ্যা ৫০

তুলনায় নরেন্দ্র মোদী তাঁর প্রথম দফার প্রধানমন্ত্রিত্বেই ৯৩টি দেশ সফর করেন।

সুতরাং সফর করা দেশের সংখ্যাতেও মোদী তার পূর্বসূরি মনমোহন সিংকে অনেক পিছনে ফেলে দিয়েছেন।

এই সব তথ্য-পরিসংখ্যানই আপনারা দেখে নিতে পারেন:

Show Full Article
Next Story