কোমর থেকে ভেঙে এক মহিলার দেহ বহনের ২০১৬ সালের ছবি করোনাকালে জিইয়ে উঠল

বুম দেখে ছবি দু'টি ২০১৬ সালের। সেই সময় ওড়িশায় অ্যাম্বুল্যান্স না মেলায় এক মহিলার দেহ ওই ভাবে নিয়ে যায় দু’টি ব্যক্তি।

Claim

ভারতে কোভিড-১৯ -এর দ্বিতীয় দফার বেসামাল মাঝে দু’টি পুরনো ছবিকে সাম্প্রতিক বলে আবার জিইয়ে তোলা হয়েছে। ছবি দুটিতে দেখা যায় উপযুক্ত পরিষেবার অভাবে, এক মহিলার মৃতদেহ কোমর থেকে ভেঙ্গে বস্তায় পুরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ওই রকম একটি ফেসবুক পোস্টে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, “#ওড়িশা..এই মহিলার লাশের হাত-পা এজন্যই ভেঙ্গে দেয়া হচ্ছে, যাতে সহজভাবে বস্তায় ভরে ছেলে নিজের মায়ের লাশ বাবার সাথে কাঁধে করে বাড়িতে নিয়ে যেতে পারে, কারণ হাসপাতালে অ্যাম্বুল্যান্স নেই। আর আপনি হিন্দুরাষ্ট্রের স্বপ্ন দেখতে থাকুন।”

Fact

ইন্ডিয়া টুডে’র রিপোর্ট অনুযায়ী, ঘটনাটি ২০১৬ সালে ওড়িশার সোরো রেল স্টেশনের কাছে ঘটে। সেখানে দুই ব্যক্তি ট্রেনে কাটা-পড়া এক মহিলার দেহ এই ভাবে নিয়ে যান। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস’র রিপোর্টে বলা হয়, ৮০ বছর বয়সের সলামনি বেহেরার মৃতদেহ পোস্টমর্টেমের জন্য বালাশোরের জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল, কিন্তু কোনও অ্যাম্বুল্যান্স পাওয়া যায়নি। একটি অটোরিক্সা ভাড়া করার চেষ্টা করা হয় কিন্তু তার চালক মৃতদেহ নিয়ে যাওয়ার জন্য অনেক বেশি ভাড়া চাওয়ায় ওই অপ্রীতিকর ঘটনাটি ঘটে।

To Read Full Story, click here
Claim Review :   করোনার সময় ওড়িশাতে অ্যাম্বুল্যান্স না মেলায় ছেলে-বাবা মৃত মায়ের দেহ বস্তায় ভরে নিয়ে গেল
Claimed By :  Facebook Post
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story