পাকিস্তানে কমান্ডো প্রশিক্ষণের একটি পুঙ্খানুপুঙ্খ ভিডিও শ্রীলঙ্কায় ধৃত সন্ত্রাসবাদীদের বলে শেয়ার করা হচ্ছে

বুম দেখে ভিডিওটি পাকিস্তানে তোলা। সেটিতে কমান্ডোদের প্রশিক্ষণ দিতে দেখা যাচ্ছে অফিসারদের।

এক ভয়ঙ্কর ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে একটি কমান্ডো প্রশিক্ষণের অঙ্গ হিসেবে পাকিস্তানি সেনাদের নির্মমভাবে বেতের বাড়ি মারা হচ্ছে। কিন্তু মিথ্যে ক্যাপশনসহ সেটি শেয়ার করা হচ্ছে এই বলে যে, ইস্টার সানডের বোমা হামলার পর ধৃত সন্ত্রাসিদের পেটাচ্ছে শ্রী লঙ্কার পুলিশ।

বুমের অনুসন্ধান দেখিযে দেয় যে, ভিডিওটি পাকিস্তানে তোলা। সেটি পাকিস্তানের স্পেশ্যাল সার্ভিস গার্ড-এর সদস্যদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার অঙ্গ। ওই স্পেশ্যাল সার্ভিস গার্ড হল পাকিস্তানের কমান্ডো একটি গ্রুপ।

বুম আগেও একটি তথ্য যাচাই করে দেখায় যে, ওই ধরনের প্রচন্ড বেত্রাঘাত পাকিস্তানে কমান্ডোদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার একটি পদ্ধতি। সেটির নাম, ‘সারভাইভাল, ইভেশন, রেজিস্টেন্স, এস্কেপ’ (এসইআরই)। তার মানে হল, ‘টিকে থাকা, বিভ্রান্ত করা, প্রতিরোধ করা, এবং পালানো’।

ভিডিওটি বুমের হেল্পলাইনে আসে (৭৭০০৯০৬১১১)। সঙ্গে ক্যাপশনে বলা হয়, “শ্রী লঙ্কার পুলিশ সন্ত্রাসবাদীদের ধরেছে আর দেখুন কী ভাবে তাদের রোজ পেটাচ্ছে। কোনও কোর্ট নেই, নেই কোনও বিরিয়ানি। প্রতিদিন এই বেদম মার। দেখুন।

ভিডিওটি ২ মিনিটের। দেখা যাচ্ছে, ঘর ভর্তি সেনা। তাদের চোখ বাঁধা। গায়ে শার্ট নেই। দেওয়ালের দিকে মুখ করে। দুই ব্যক্তি – এক জনের গায়ে গাঢ় নীল রঙের টি-শার্ট আর অন্য জনের গায়ে হাল্কা নীল টি-শার্ট – বেত্রাঘাতের জন্য তারা নিজেদের ইচ্ছেমত সেনাদের ডেকে নিচ্ছেন। তাঁদের একজন সেনাটিকে চেপে ধরে থাকছেন, আর অন্যজন মারছেন বেতের বাড়ি।

পাকিস্তানের ভিডিওর স্ক্রিনশট। দাবি করা হয়েছে শ্রী লঙ্কার পুলিশ সন্ত্রাসিদের ধরেছে।

ভিডিওটির দৃশ্যগুলি বেশ ভয়ঙ্কর। তাই বুম ভিডিওটিকে এই প্রতিবেদনে যোগ করছে না।

তথ্য যাচাই

ওই একই ভিডিও ত্রুটিপূর্ণভাবে ভারতের খবরের চ্যানেল নিউজএইট্টিন(News 18)এ দেখানো হয় এই বলে যে, ‘‘পাকিস্তানের আসল মুখ অনাবৃত; পাক নিষ্ঠুরতা ধরা পড়ল টেপে।’’

বুম ভিডিওটি বিশ্লেষণ করে দেখে যে, সেটি পাকিস্তানের এসএসজি কমান্ডোদের ট্রেনিং সংক্রান্ত। বুম এও দেখে যে টি-শার্ট পরা দুই ব্যক্তির জামার হাতায় ওই এসএসজি কমান্ডোর প্রতীক লাগানো আছে।

বুম ভিডিওটির প্রতিটি ফ্রেম খুঁটিয়ে দেখে। তখনই দেখা যায় যে, ইউনিফর্ম-পরা ব্যক্তিদের জামায় “কমান্ডো” শব্দটি আর পাকিস্তানের পতাকা বসানো আছে।

‘কমান্ডো’ শব্দটি আর পাকিস্তানের পতাকা দেখা যাচ্ছে শার্টের হাতায়।

বুম আরও দেখে, যে লোকটি গাঢ় নীল টি-শার্ট পরে আছেন, তাঁর টি-শার্টের পেছনে ‘কমান্ডো’ লেখা আছে।

অফিসারটির টি-শার্টের পিছনে লেখা রয়েছে 'কমান্ডো' শব্দটি।

ভিডিওটির ৪১ সেকেন্ডের মাথায়, অফিসারটির টি-শার্টের সামনের দিকে ‘কমান্ডো’ শব্দটি এবং একটি ডানামেলা পাখি দেখা যাচ্ছে। আর সেই সঙ্গে টি-শার্টের হাতায় দেখা যাচ্ছে পাকিস্তানের পতাকার সবুজ আর সাদা রঙ।

এসএসজি মানে ‘স্পেশ্যাল সার্ভিস গ্রুপ’। সেটি পাকিস্তানের একটি এলিট কমান্ডো সংস্থা।

আগেও বুম এরকমই একটি ভিডিও সম্পর্কে মিথ্যে দাবি খন্ডন করে। তাতে একজন অফিসারকে খাটের সঙ্গে বাঁধা একটি লোককে বেত্রাঘাত করতে দেখা যাচ্ছিল। সেই ভিডিওতে শুরুর দিকেই যে অফিসারটি ট্রেনি কমান্ডোকে মারছিলেন তাঁর ইউনিফর্মে পাকিস্তানের পতাকা পরিষ্কার দেখা যাচ্ছিল।

Claim Review :   ভিডিওর দৃশ্য দেখায় শ্রীলঙ্কার পর্যায়ক্রমিক বোমা হানা ঘটানো জঙ্গিরা পুলিশ হেফাজতে
Claimed By :  FACEBOOK POSTS
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story