উপনির্বাচনের প্রাক্কালে ভুয়ো দাবি সহ ছড়লো মহুয়া মৈত্রের সঙ্গে পুলিশ আধিকারিকের ছবি

ছবিটি মহুয়া মৈত্রের ফেসবুক প্রোফাইলে আপলোড করা হয়েছিল ২০১৯ সালের ১৮ অগস্ট। তখন করিমপুর বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনের বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়নি।

তৃণমূলের লোকসভা সাংসদ মহুয়া মৈত্রের সঙ্গে থানারপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জের পুরনো ছবি শেয়ার করে দাবি করা হয়েছে, ওই পুলিশ আধিকারিক নদিয়া জেলার করিমপুর বিধনসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনের প্রচারে সঙ্গ দিচ্ছেন।

বুম খুঁজে পেয়েছে ছবিটি পুরনো।

ভাইরাল হওয়া ছবিটিতে দেখা যাচ্ছে এক মহিলার সঙ্গে কথা বলছেন সাংসদ মহুয়া মৈত্র। তাদের পিছনে কালো শার্ট ও জিন্সের প্যান্ট পরিহিত এক ব্যক্তি দাঁড়িয়ে রয়েছেন।

পোস্টটিতে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, ‘‘ তূণমুল সাংসদ মহুয়া মৈত্র, ওনার পিছনে যে ভদ্র লোকটিকে Black জামা পরে আছে দেখতে পাচ্ছেন ইনি হলেন করিমপুর বিধানসভার থানারপাড়া থানার বড়বাবু- সুমিত কুমার ঘোষ, গতকাল করিমপুর বিধানসভার উপনির্বাচনে সাংসদ মহুয়ার সাথে তূণমুলের হয়ে বাড়ি বাড়ি ভোট চাইতে বেড়িয়েছে, তাই সকল কে অনুরোধ করছি এই ছবিটি যাহাতে নির্বাচন কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে’’

ভাইরাল হওয়া পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

পোস্টটির স্ক্রিনশট।

একই বয়ানে ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে পোস্টগুলি।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া পোস্টগুলি।

তথ্য যাচাই

ছবিটিতে সঙ্গে রয়েছেন থানারপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ সুমিত কুমার ঘোষ এই দাবিটি সত্য হলেও বুম যাচাই করে দেখেছে ছবিটি মটেই সাম্প্রতিক সময়ের নয় যেমনটি ফেসবুক পোস্টে দাবি করা হয়েছে।

বুম এই ছবিটিকে মহুয়া মৈত্রের ফেসবুক প্রোফাইলে খুঁজে পেয়েছে। ১৮ অগস্ট ২০১৯ ছবিটি আপলোড করা হয় মহুয়া মৈত্রের অফিশিয়াল ফেসবুক প্রোফাইলে। তখন করিমপুর বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষনা হয়নি। নির্বাচন কমিশন ২৬ অক্টোবর শুক্রবার রাজ্যের তিন কেন্দ্র কালিয়াগঞ্জ, করিমপুর ও খড়গপুর সদর উপনির্বাচনের দিনক্ষণের বিজ্ঞপ্তি জারি করে। করিমপুর বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন হবে ২৫ নভেম্বর।


১৮ অগস্ট ২০১৯ ছবিটি আপলোড করা হয় মহুয়া মৈত্রের ফেসবুক প্রোফাইলে।

ঠিক কবে ছবিটি তোলা হয়েছিল বুমের পক্ষে স্বাধীনভাবে যাচাই করা সম্ভব হয়নি। তবে বুম এব্যাপারে নিশ্চিত যে এটি আসন্ন উপনির্বাচনের প্রচারের ছবি নয়।

বুমের তরফে থানারপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ সুমিত কুমার ঘোষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে তার প্রত্যুত্তর পাওয়া গেলে প্রতিবেদনটি সংস্করণ করা হবে।

এই কেন্দ্রের উপনির্বাচনে কংগ্রেস সমর্থিত বাম প্রার্থী হয়েছেন গোলাম রব্বি। তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী হয়েছেন বিমলেন্দু সিংহরায়। বিজেপি প্রার্থী করেছে জয়প্রকাশ মজুমদারকে।

২৫ জুন ২০১৯ সংসদে পেশ করা মহুয়া মৈত্রের বক্তব্য ‘প্লেজারিজম’-এর অভিযোগে দুষ্ট এরকম ভুয়ো অভিযোগ তোলেন ‘জি-নিউজ’-এর এডিটর-ইন-চিফ সুধীর চৌধুরি। বুম বিষয়টি আগে তথ্যযাচাই করেছে। মহুয়া মৈত্রের বিরুদ্ধে ‘প্লেজারিজম’-এর অভিযোগটি ভিত্তিহীন। প্রতিবেদনটি পড়া যাবে এখানে

মহুয়া মৈত্র জি নিউজের এডিটর-ইন-চিফ সুধীর চৌধুরির বিরুদ্ধে ফৌজদারি মানহানির মামলা করেন। দিল্লির আদালত সম্প্রতি সুধীর চৌধুরিকে সমন জারি করেছে। ২০২০ সালের ২৯ জানুয়ারির মধ্যে আদালতে হাজির হবার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ওই সমনে।

Show Full Article
Next Story