আবার মধু কিশওয়ার করলেন; বিভ্রান্তিকর প্রসঙ্গে রাহুল গান্ধীর পুরনো ভিডিও টুইট

বুম দেখে, ২৪ এপ্রিল ২০১৯ লোকসভা নির্বাচন চলাকালীন তোলা হয়েছিল ভিডিওটি।

হেলিকপ্টারে বসে রাহুল গান্ধী সিঙ্গাড়া খাচ্ছেন, শুক্রবার এমন একটি ভিডিও টুইট করেন মধু কিশওয়ার। সেই সঙ্গে মিথ্যে দাবি করেন যে, ভিডিওটি সাম্প্রতিক কালে তোলা, যখন ওয়েনাডের সাংসদ কেরলের বন্যা কবলিত এলাকাগুলি পরিদর্শন করছিলেন। টুইটে বলা হয়েছে, “মজা দেখা— আকাশপথে কেরলের বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন করছেন ওয়েনাডের সাংসদ।

মধু কিশওয়ারের টুইট। টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

এই প্রতিবেদন লেখার আগে পর্যন্ত টুইটটি ৪১৬ বার রিটুইট করা হয় এবং ৭৪৯ লাইক পায়। আবার, ভিডিওটি যে পুরনো, অনেক টুইটার ব্যবহারকারী সে বিষয়ের প্রতিও কিশওয়ারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

তিরিশ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে রাহুল গান্ধীকে একটি হেলিকপ্টারে বসে সিঙ্গাড়া খেতে দেখা যাচ্ছে।

রাহুল গান্ধী কেরলের ওয়েনাড কেন্দ্র থেকে নির্বাচিত সাংসদ। প্রবল বৃষ্টির ফলে বন্যা ও ধসের ঘটনায় সে রাজ্য এখন বিপর্যস্ত।

আরও পড়ুন: ভুয়ো খবরের ফাঁদে পা দিচ্ছেন মধু কিশওয়ার

তথ্য যাচাই

‘রাহুল গান্ধী ইটিং সামোসাস’—এই শব্দগুলি দিয়ে আমরা গুগুলে সার্চ করলে দেখা যায় ভিডিওটি পুরনো। সেটি ২৪ এপ্রিল ২০১৯’এ তোলা হয়েছিল।

এবিপি নিউজ-এ প্রকাশিত প্রতিবেদন।

১৪ এপ্রিল ২০১৯ ওই ভিডিওটি সমেত এবিপি নিউজ একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, “২০১৯’এর নির্বাচনে কংগ্রেসকে জয়ী করানোর জন্য, রাহুল গান্ধী সর্বশক্তি দিয়ে প্রচার করে চলেছেন। মঙ্গলবার উনি মধ্যপ্রদেশের শাহদোলে জনসভা করেন। প্রচার চলাকালে, উনি হেলিকপ্টারে বসে শাহদোলের বিখ্যাত শিঙাড়া খান।”

আমরা এও দেখি যে, লোকসভা নির্বাচন চলাকালে, ওই একই ভিডিও ইউটিউব আর ফেববুকে আপলোড করা হয় ২৪ এপ্রিল ২০১৯ তারিখে।



রাহুল গান্ধী সম্প্রতি ওয়েনাডে গিয়েছিলেন এবং তাঁর সফর সম্পর্কে টুইট করেন।



ভুয়ো খবর শেয়ার করার জন্য কিশওয়ার বারবার সমালোচিত হয়েছেন। দেখুন এখানেএখানে)

Claim :   রাহুল গান্ধী শিঙাড়া খাচ্ছেন বন্যা দুর্গত কেরলে আকাশপথে সমীক্ষার সময়
Claimed By :  MADHU KISHWAR
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.