প্রথম দফা ভোটের আগে মধ্যপ্রদেশের ইভিএম কারচুপির খবরটি ভুয়ো

মধ্যপ্রদেশে ভোট এখনও শুরু হয়নি। ইভিএম কারচুপির খবর কোনও সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়নি।

‘শুধুই পদ্মফুল’ এই শিরোনামে বেশ কয়েকজন সোস্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারী মধ্যপ্রদেশ রাজ্যের ভোটে ব্যবহৃত ইভিএমের কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। ওই পোস্টগুলিতে দাবি করা হয়েছে ওই রাজ্যে নির্বাচন শুরুর ২৪ ঘন্টা আগে ভিভিপ্যাট ইভিএম মেশিনে ত্রুটি ধরা পরে। প্রতিটি বোতাম টিপলেই বিজেপি প্রার্থী ভোট পাচ্ছেন।

বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি ও সংবাদমাধ্যমের সামনে ইভিএম পরীক্ষা করার সময় ওই মেশিনগুলিতে কারচুপি ধরা পড়ে। এরকম একটি পোস্ট আর্কাইভ করা আছে এখানে

আবার আরেকজন ইউজার অনুরূপ প্রতিবেদন পোস্ট করে লেখেন - কিভাবে ইভিএম কারচুপি করে 2014 সালে বিজেপি ক্ষমতায় এসেছিল এটাই তার প্রমান। পোস্টটি দেখা যাবে নীচে এবং তার আর্কাইভ এখানে

তথ্য যাচাই

নির্বাচন কমিশনের ঘোষনামাফিক ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচন হচ্ছে সাত দফায়। মধ্যপ্রদেশের নির্বাচনী নির্ঘন্ট এবার চার দফাব়। সেই মতো ১১ এপ্রিল প্রথম দফার নির্বাচন হয়েছে বেশ কয়েকটি রাজ্যে। ওই রাজ্যে প্রথম দফার ভোট শুরু হবে ২৯ এপ্রিল।

কিন্তু ওই পোস্টে বলা হয়েছে নির্বাচন শুরুর ২৪ ঘন্টা আগে ইভিএম পরীক্ষা করা হয়।

মধ্যপ্রদেশের কয়েকটি জায়গায় ২০১৭ সালে উপনির্বাচনের আগে নকল ইভিএমের পরীক্ষার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল। ওই ঘটনায় তৎকালীন জেলা শাসক ও এসপিকে অপসারন করা হয়। এনিয়ে খবর প্রকাশিত হয়েছিল এখানে

২০১৮ সালে মধ্যপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে কয়োকটি ইভিএম মেশিনে ত্রুটি নজরে আসে। কিন্তু সেগুলি ভোটে ব্যবহার করার পরিবর্তে তৎক্ষনিকভাবে বদলে দেোয়া হয়। সেকারনে ভোটদান পর্ব শুরু হয় দেরিতে। নির্বাচন কমিশন প্রায় আড়ইশোটি এরকম মেশিন বদলি করে।

ইভিএম কারচুপির আশঙ্কায় বিজেপি, কংগ্রেস এবং আপ কর্মীরা গত বছরের মধ্যপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনের সময় ইভিএম মেশিন পাহারা দিয়েছিল এব্যাপারে খবর প্রকাশিত হয়েছিল এখানে

ওই পোস্টে দাবি করা হয়েছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি ও সংবাদমাধ্যমের সামনে ইভিএম পরীক্ষা করার সময় ওই মেশিনগুলিতে কারচুপি ধরা পড়ে। এব্যাপারে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত কোনও খবর বুমের তথ্য যাচাইকারী টিমের নজরে আসেনি।

ভোটার ভেরিফায়েড পোপার অডিট ট্রেইল বা ভিভিপ্যাট হল ইভিএম মেশিনের সঙ্গে যুক্ত একটি স্বধীন যন্ত্র। যেখানে ভোটদাতা ভোট দেবার পর পরই একটি ছাপানো ছোট কাগজ স্বচ্ছ ভাবে সাত সেকেন্ডের জন্য দেখতে পাবেন। কাগজটিতে ভোট প্রদত্ত প্রার্থীর ক্রমিক নম্বর, নাম ও চিহ্ন থাকবে। এরপর এটি একটি বাক্সে জমা হবে। চাইলে ওই কাগজগুলি ইভিএম মেশিনের ফলাফলের সঙ্গে গুনে যাচাই করা যাবে। এমাসে সাম্প্রতিক এক রায়ে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচার রঞ্জন গোগৈ সংসদ ক্ষেত্র পিছু ৫ টি ভিভিপ্যাট মেশিনের স্লিপ মিলিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন।

Claim Review :  প্রথম দফা ভোটের আগে মধ্যপ্রদেশে ইভিএম কারচুপির ঘটনা
Claimed By :  FACEBOOK POSTS
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story