Connect with us

ভাইরাল জরাজীর্ণ বাড়িটির ছবি পশ্চিমবঙ্গের সিআইডি অফিস নয়

ভাইরাল জরাজীর্ণ বাড়িটির ছবি পশ্চিমবঙ্গের সিআইডি অফিস নয়

সি আই ডি দপ্তরের আধিকারিকরা বুম কে জানান যে হাওড়ার পিলখানাতে ২০১৮ সাল পর্যন্ত একটি পুরানো জরাজীর্ণ বাড়িতে সি আই ডির একটি বিভাগ ছিল।

ফেসবুকে একটি বিভ্রান্তিমুলক ছবি আবার নতুন করে ভাইরাল হয়েছে, যেখানে একটি পুরানো জরজীর্ণ বাড়িকে পশ্চিমবঙ্গ সি আই ডি-র দপ্তর হিসাবে দেখানো হয়েছে। ছবিটি একাধিক গ্রুপ এবং পেজে শেয়ার হয়েছে এবং উল্লেখ করা হয়েছে যে পশ্চিমবঙ্গের সি আই ডির হাল সত্যি-ই শোচনীয়। ছবিটি পুরানো হওয়া সত্ত্বেও সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছে।


ছবিটিতে একজন ব্যক্তি বালতি হাতে একটি জরাজীর্ণ দরজা দিয়ে বেরোচ্ছেন। বাড়িটির দেওয়ালে ‘ডিটেকটিভ ডিপার্টমেন্ট সি আই ডি’ লেখা আছে। আরেকটি ব্যানারে লেখা আছে অফিস অফ দ্যা ইন্সপেক্টার পুলিশ, সি আই ডি। যেহেতু বাড়িটি জরাজীর্ণ, তার কারণে, পুরসভার একটি নোটিসে উল্লেখ করা আছে যে বাড়িটি বিপদজনক।

পোস্টটি এখানে দেখুন। এবং আর্কাইভ এখানে।

শুধু ফেসবুক নয়, পোস্ট টি টুইটারেও আছে।

তথ্য যাচাই

সি আই ডি দপ্তরের আধিকারিকরা বুম কে জানান যে হাওড়ার পিলখানাতে ২০১৮ সাল পর্যন্ত একটি পুরানো জরাজীর্ণ বাড়িতে সি আই ডির একটি বিভাগ ছিল। বর্তমানে সেটি ভবানী ভবনে সি আই ডির মূল ভবনে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। ওই পুরানো বাড়িতে আর সি আই ডি-স দপ্তর নেই।

CID -র ভবানী ভবন অফিস


হাওড়া পুরসভার এক উচ্চপদস্থ অফিসারের মতে, “২০১৮ পর্যন্ত একটি পুরানো জরাজীর্ণ বাড়িতে সি আই ডি-র অফিস ছিল। আমরা বাড়িটি সংস্কার করার পরিকল্পনা করেছি। তাই সি আই ডি-কে বাড়ি খালি করে দিতে বলা হয়েছে।“ হাওড়া পুরসভার মেয়র ডঃ রথিন চক্রবর্তী বলেন, “সোশ্যাল মিডিয়া তে যে ছবিটি প্রচারিত হচ্ছে, সেটি আমি দেখেছি। ওই পুরানো বাড়িটিতে সি আই ডি-র দপ্তর ছিলনা মূলত। পুরসভার বাড়িটি সংস্কার করার প্রিকল্পনা করেছে। ছয় মাসের মধ্যে সংস্কারের কাজ সম্পূর্ণ করা হবে। যদিও এখানে সি আই ডির মূল দপ্তর ছিল না। সি আই ডি – র মূল দপ্তর আলিপুরে ভবানী ভবনে।“ অফিসের সরকারি ঠিকানা – ৩১, বেল্ভেডের রোড, আলিপুর, কোলকাতা – ৭০০০২৭। সি আই ডির ঠিকানা এখানে দেখুন ।

(বুম হাজির এখন বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়াতে। উৎকর্ষ মানের যাচাই করা খবরের জন্য, সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের টেলিগ্রাম এবং হোয়াটস্‍অ্যাপ চ্যানেল। আপনি আমাদের ফলো করতে পারেনট্যুইটার এবং ফেসবুকে|)


Continue Reading
Click to comment

Leave a Reply

Your e-mail address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

ফেক নিউজ

To Top