Connect with us

বিজেপি নেতাদের সঙ্গে ধোনি ও সঞ্জয় দত্তের পুরনো ছবি ভুল তথ্যের সঙ্গে শেয়ার

বিজেপি নেতাদের সঙ্গে ধোনি ও সঞ্জয় দত্তের পুরনো ছবি ভুল তথ্যের সঙ্গে শেয়ার

রিভার্স ইমেজ সার্চ করে দেখা গেছে যে এই ফোটোগ্রাফগুলি ২০১৮র এবং সেই সময় তোলা হয়েছিল যখন বিজেপি নেতারা ‘সম্পর্ক ফর সমর্থন’ কর্মসূচী অনুযায়ী ধোনি ও সঞ্জয় দত্তের সঙ্গে দেখা করেছিলেন।

অমিত শাহ ও যোগী আদিত্যানাথ ক্রিকেটার মহেন্দ্র সিং ধোনি ও অভিনেতা সঞ্জয় দত্তের সঙ্গে দেখা করেছিলেন ‘সম্পর্ক ফর সমর্থন’ কর্মসূচীর অংশ হিসেবে। তাঁদের সেই পুরনো ছবি এখন আবার নতুন করে ছড়িয়ে পড়েছে যাতে ভুল ভাবে দাবি করা হয়েছে যে ক্রিকেটার মহেন্দ্র সিং ধোনি ও অভিনেতা সঞ্জয় দত্ত ভারতীয় জনতা পার্টিতে (বিজেপি) যোগ দিয়েছেন।

ভাইরাল হওয়া দুটো আলাদা ফেসবুক পোস্টে ধোনি ও দত্তের অনুরাগীরা এই দুজনকে রাজনীতিতে আসার জন্য ও বিজেপিতে যোগ দেওয়ার জন্য অভিনন্দন জানাতে বলছেন।

ছবিতে দেখা যাচ্ছে ধোনি বিজেপি সভাপতি অমিত শাহর সঙ্গে হাত মেলাচ্ছেন সঙ্গে হিন্দিতে ক্যাপশন যার অনুবাদ হলঃ মহেন্দ্র সিং ধোনি এখন বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন এমনকি ভোটেও দাঁড়াতে পারেন। মাহি ভাইকে স্বাগতম জানাবেন না?

যখন এই লেখাটা তৈরী হচ্ছে তখন অবধি এই পোস্টটি ৯০০ বারেরও বেশি শেয়ার করা হয়েছে। নীচে দেওয়ার পোস্টটির পোস্টটির আর্কাইভড সংস্করণ দেখতে পারেন এখানে

ছবিটি শেয়ার করে লেখা হয়েছে যে মহেন্দ্র সিং ধোনি এখন বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন এমনকি ভোটেও দাঁড়াতে পারেন। মাহি ভাইকে স্বাগতম জানাবেন না?

ইতিমধ্যে সঞ্জয় দত্ত ও যোগী আদিত্যানাথের একটি ছবি ফেসবুকে দেখা যাচ্ছে যাতে সঞ্জয় হাতে একটি ‘সম্পর্ক ফর সমর্থন’ র প্যামফ্লেট ধরে আছেন, সাথে ক্যাপশন রয়েছে ‘বলিউড স্টার সঞ্জু ভাইও বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন।’

নীচে দেওয়া পোস্টটির আর্কাইভড ভার্সন দেখতে পারেন এখানে

লেখা হয়েছে, বলিউড স্টার সঞ্জু ভাইও বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন।

আদতে সঞ্জয় দত্ত বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন এই গুজব এই প্রথম বার ছড়িয়ে পড়েছে, তা নয়। ২০১৬ সালের মে মাসে এরকম অনেকগুলি পোস্টে দাবি করা হয়েছিল যে সঞ্জয় দত্ত পার্টির অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন এবং তারপর বিজেপিতে যোগ দেবেন।

ইন্ডিয়া.কম পোস্ট করেঃ ব্রেকিং নিউজ সঞ্জয় দত্ত মহারাষ্ট্রে বিজেপির হয়ে প্রচার করতে পারেন।এরকমই আরেকটি পোস্ট করা হয় দর্পণ ম্যাগাজিন থেকে ‘সঞ্জয় দত্ত কি বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন?’

তথ্য যাচাই

২৫শে মার্চ সঞ্জয় দত্ত একটি টুইটের মাধ্যমে জানিয়েছেন যে তিনি কোন ভোটে দাঁড়াচ্ছেন না এবং ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল কংগ্রেসের সক্রিয় সদস্যা তাঁর বোন প্রিয়া দত্তের প্রতি তাঁর পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। বুম এ বিষয়ে আলাদা ভাবে সঞ্জয় দত্তর মতামত পেতে চেষ্টা করেছে যদিও তিনি সাড়া দেননি। সঞ্জয় দত্তর মন্তব্য পেলেই এই লেখাটিকে আপডেট করা হবে।

বুম সঞ্জয় দত্ত ও যোগী আদিত্যানাথের ছবির রিভার্স সার্চ করে দেখেছে যে গত বছর জুনে সঞ্জয় দত্ত যখন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন তখন এই ছবিটি তোলা হয়। ‘সম্পর্ক ফর সমর্থন’ র কর্মসূচীর অংশ হিসেবে লখনৌতে মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনে তাঁদের দেখা হয়। ৯ই জুন,২০১৮য় যোগী আদিত্যানাথ এই ছবিটি টুইট করেন। সঞ্জয় দত্ত ছবিটি রিটুইট করেন ও তাকে এই কর্মসূচীতে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য যোগী আদিত্যানাথকে ধন্যবাদ জানান।

ধোনির ছবিটিতেও রিভার্স ইমেজ সার্চ করে দেখা গেছে যে ছবিটি গত বছর অগস্টে তোলা হয়েছিল একই ক্যাম্পেনের অংশ হিসেবে। ওই একই অনুষ্ঠানের আরেকটি ছবিতে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ককে দেখা গেছে সেই একই পোস্টারের সঙ্গে যেটি সঞ্জয় দত্তও এন্ডরস করেছিলেন।

৫ই অগস্ট, ২০১৮ য় বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ ওই একই ফটো টুইট করেন। যেখানে তিনি লেখেনঃ ‘সম্পর্ক ফর সমর্থন’ র কর্মসূচীর অংশ হিসেবে আজ এম এস ধোনির সঙ্গে দেখা হল। তিনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সবথেকে বড় ফিনিশার। তাঁর সঙ্গে বিগত চার বছরে প্রধান মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও তাঁর সরকারে্র করা বিভিন্ন কাজ ও উন্নয়ন প্রকল্প নিয়ে আলোচনা হল।

‘সম্পর্ক ফর সমর্থন’ র কর্মসূচীটি গতবছর শুরু হয়। কর্মসূচীটির লক্ষ্য হল বিভিন্ন ক্ষেত্রের সফল ব্যাক্তিদের মধ্যে সরকারের সাফল্য বিষয়ে সচেতনতা বাড়ানো।
গত সপ্তাহে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটার ক্রিস গিল বিজেপির হয়ে প্রচার করবেন বলে একটি গুজব সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছিল।

(BOOM is now available across social media platforms. For quality fact check stories, subscribe to our Telegram and WhatsApp channels. You can also follow us on Twitter and Facebook.)

Claim Review : ক্রিকেটার মহেন্দ্র সিং ধোনি ও অভিনেতা সঞ্জয় দত্ত ভারতীয় জনতা পার্টিতে (বিজেপি) যোগ দিয়েছেন

Fact Check : FALSE


Continue Reading

Swasti Chatterjee is a fact-checker and the Deputy News Editor of Boom's Bangla team. She has worked in the mainstream media, in the capacity of a reporter and copy editor with The Times of India, The Indian Express and NDTV.com and is now working as a digital detective, debunking fake news.

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

To Top