কাশ্মীরে ভারত বিরোধী স্লোগান দেওয়ার ভিডিও বাংলাদেশের নেটিজেনদের মধ্যে ভাইরাল

বুম খুঁজে পেয়েছে ভিডিওটি সারজান বরকতির এক পর্যায়ক্রমিক বক্তব্যের অংশ। বুরহান ওয়ানির মৃত্যুর পর ওই বক্তব্য রাখা হয়েছিল।

মুসলিম ধর্মগুরু সারজন বরকতি কাশ্মীরে এক জমায়েতে বক্তব্য রাখার একটি পুরনো ভিডিও বিভিন্ন বাংলাদেশী ফেসবুক পেজে মিথ্যে দাবি সহ ঘুরপাক খাচ্ছে। দাবি করা হচ্ছে কাশ্মীরা তাদের স্বাধীনতার লড়াইয়ে ভারতের আইনকে উপেক্ষা করছে।

জম্মু-কাশ্মীর রাজ্যের বিশেষ মর্যাদা ৩৭০ ধারা বিলুপ্তির একদিন আগে ভারত সরকার ১৪৪ ধারা জারি করেছে সেখানে।

এই প্রতিবেদন লেখার সময় পর্যন্ত ভিডিওটি ১ লক্ষবারের বেশি দেখা হয়েছে। ভিডিওটিতে সারজন বরকতিকে কাশ্মীরের স্বাধীনতার দাবিতে প্ররোচনামূলক বক্তব্য পেশ করতে দেখা যাচ্ছে আর জনতা তাকে সমর্থন জানাচ্ছে। বরকতি একজন ধর্মগুরু তার ভারত বিরোধী বক্তব্যের জন্য খ্যাত।

ভিডিওটির সঙ্গে ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, ‘‘কাশ্মীরে কার্ফিউ ঝারি থাকা সত্যেও লাখ লাখ মানুষের জনসভা, ইনশাল্লাহ কাশ্মীর জয় লাভ করবেই’’

ভিডিওটি বাংলাদেশের বিভিন্ন ফেসবুক পেজে ও সেদেশের ব্যবহারকারীরা শেয়ার করেছে একই বয়ানে।

বাংলাদেশের বিভিন্ন ফেসবুক পেজে সেদেশের বিভিন্ন ব্যবহারকারী শেয়ার করেছেন।

তথ্য যাচাই

বুম কিওয়ার্ড সার্চ করে ইউটিউবে একই রকমের একটি ভিডিও খুঁজে পেয়েছে যেটি ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে আপলোড করা হয়েছিল।



ভিডিওটি একটি পর্যায়ক্রমিক স্বতন্ত্র বক্তব্যের অংশ যেটি বরকতি রেখেছিলেন কাশ্মীরি বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠীর যুব কমান্ডার ২০১৬ সালের জুলাইয়ে এক এনকাউন্টারে বুরহানওয়ানি মারা যাবার পর।

আজাদি চাচা এবং কাশ্মীরের ‘পাইড পাইপার’ নামে পরিচিত সারজন বরকতি কাশ্মীরিদের মধ্যে ভারত বিরোধী ও স্বাধীনতাকামী অনুভূতির জন্য জনপ্রিয়।

বরকতিকে ২০১৬ সালের অক্টোবরে ভারত বিরোধী স্লোগান দেওয়ার জন্য পিএসএ বা জন নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতার করা হয়।

Claim Review :  কাশ্মীরা কারফিউ থাকা সত্বেও রাজনৈতিক সমাবেশে অংশ নিচ্ছে
Claimed By :  FACEBOOK POSTS
Fact Check :  FALSE
Next Story