ঝাঁসির সাম্প্রদায়িক ঘটনা বলে ফেসবুকে ভাইরাল ভিডিওটি তেলেঙ্গানার গার্হস্থ্য হিংসার

ভিডিওটি তেলেঙ্গানার এক পুলিশ আধিকারিকের তার স্ত্রী, শিশু ও শাশুড়ির ওপর করা গার্হস্থ্য হিংসার। ২০১৮ সালে এনিয়ে খবর প্রকাশিত হয়েছিল।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে একজন কালো বোরখা পরিহিত মহিলা মেঝেই লুটিয়ে পরে রয়েছেন। পাশে আর একজন মহিলার রক্ত মাখা মুখে এক শিশুকে কোলে নিয়ে কেঁদে চলেছেন।

পোস্টটিতে দাবি করা হয়েছে যে বিজেপি ফের শাসনে আসার পর সমাজের সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচার চালানো হচ্ছে।

পোস্টটিতে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, “মোদীর বিজয়ের খবরে ভারতের বিভিন্ন স্থানে মুসলমান নারী শিশুদের উপর অমানুষীক নির্যাতন চালাচ্ছে হিন্দু উগ্রবাদী মোদী সমর্থকরা।”

৪৬ সেকেন্ডের ওই ভিডিওটি ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে ব্যপকভাবে।

ভিডিওটিতে এক মহিলা কে হিন্দিতে বলতে শোনা য়ায়,

আসসালামো আলাইকুম। আমি ঝাঁসি জেলার বাউয়াসাগর গ্রাম থেকে বলছি। বাউয়াসাগর গ্রামে তিনদিন আগে থেকে হিন্দু-মুসলমানের মধ্যে এত লড়াই হচ্ছে। আমরা মুসলমান। আমার ভাইকে অনেক লোকজন মিলে মেরেছে। আর এখানে মেয়ে বউদের সাথে হুজ্জতি করেছে। দয়া করে এই বর্তাটি আমাদের মুসলমান ভায়েদের পাঠান যাতে আমাদের সহায়তা হয়। পুলিশ এখানে কিছু করছে না। হিন্দুদের সঙ্গে আছে। হিন্দু লোকেরা রোজ রাতে আমাদের ঘরে ঢুকে আমার ভায়েদেরকে মারে। আমাদের উৎপীড়ন করে। আমি শুধু চাই আপনারা এটা মুসলমান ভায়েদের পাঠান যাতে আমাদের সহায়তা মেলে। প্লিজ, প্লিজ, প্লিজ।

পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় প্রর্যন্ত ৪,৫০০ জন শেয়ার করেছে।

অন্য আর একটি ভাইরাল পোস্টে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, “মোদীর বিজয়ের খবরে ভারতের বিভিন্ন স্থানে মুসলমান নারী শিশুদের উপর অমানুষিক নির্যাতন চালাচ্ছে বিজেপি সমর্থকরা।” পোস্টটি আর্কইভ করা আছে এখানে

তথ্য যাচাই

ভিডিওটিতে পাওয়ার ডিরেক্টের নামে একটি এডিটিং অ্যাপের লোগো দেখা যাচ্ছে। মহিলাটি কাঁদো কাঁদো ভাবে কথা গুলি বললেও পিছনে অন্য পুরুষ কন্ঠে শান্তভাবে অস্পষ্ট কথা বলতে শোনা যায়। ভাইরাল হওয়া ফেসবুক পোস্টগুলি দেখা যাবে এখানে

ভিডিওটি পুরনো। এর সঙ্গে সাম্প্রদায়িক ঘটনার যোগ নেই। তেলেঙ্গানার এক পুলিশ আধিকারিকের গার্হস্থ্য হিংসার শিকার হন তার স্ত্রী, শিশু ও শাশুড়ি। এক বছর আগে পুলিশ আধিকারিক বিয়ে করেন। তার স্ত্রী ওই পুলিশ আধিকারিকের বিবাহ বহির্ভুত সম্পর্কের কথা জেনে ফেললে ওই অশান্তি শারিরিক নির্জাতনের রূপ নেয়। ২০১৮ সালের ৩১ অগস্ট টাইমস নাউয়ে প্রকাশিত খবর পড়া যাবে এখানে। খবরটি দেখা যাবে টাইমস অফ ইন্ডিয়ার ইউটিউব চ্যানেলেও।



এই গুজবটি আগে এসএমহোয়াক্সস্লেয়ার খন্ডন করেছে।

Show Full Article
Next Story