প্রশান্ত ভূষণকে মারধর করার পুরনো ভিডিও পুলওয়ামা হামলার পর ফিরিয়ে আনা হয়েছে

আট বছরের পুরনো এই ভিডিওটি কাশ্মীর প্রসঙ্গে প্রশান্ত ভূষণের মন্তব্যের জেরে তাঁর আক্রান্ত হওয়ার

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এবং সমাজকর্মী প্রশান্ত ভূষণ প্রায় ৮ বছর আগে তাঁর চেম্বারে নিগৃহীত হয়েছিলেন ২০১১ সালের ১২ অক্টোবর । পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার পর সেই ঘটনার ভিডিওটিকে জিইয়ে তোলা হয়েছে । ১৫ ও ১৬ ফেব্রুয়ারি ভিডিওটি ভাইরাল করা হয় ।

পুলওয়ামায় সিআরপিএফ জওয়ানদের উপর জঙ্গি হামলার দু দিন পর ১৬ ফেব্রুয়ারি জনৈক রায়সাব ঋষি রায় ঋতিক-এর ফেসবুক পেজ থেকে ভিডিওটি ভাইরাল হয় ।পোস্টের আর্কাইভ বয়ানটি এখানে দেখতে পারেন ।

তথ্য যাচাই

“আক্রান্ত প্রশান্ত ভূষণ”—এই শব্দগুলি বসিয়ে ইন্টারনেটে খোঁজ লাগালেই ২০১১ সালের ঘটনাটির অসংখ্য পোস্ট পাওয়া যাবে ।

প্রশান্ত ভূষণ সম্প্রতি সংবাদের শিরোনামে আসেন তাঁর একটি টুইটের জন্য, যাতে তিনি একটি রিপোর্ট উদ্ধৃত করে লেখেনঃ “পুলওয়ামার আত্মঘাতী মানব-বোমারু আদিল আহমেদ দার সন্ত্রাসবাদী হয়েছিল সেনাবাহিনীর হাতে প্রহৃত হওয়ার পর” ।

২০১১ সালের ১২ অক্টোবর প্রশান্ত ভূষণ যখন সুপ্রিম কোর্টের ঠিক উল্টোদিকে তাঁর নিজের চেম্বারে বসে টাইমস নাউ সংবাদ চ্যানেলের সঙ্গে সাক্ষাত্কার দিচ্ছিলেন, তখনই তিন জন লোক তাঁর চেম্বারে ঢোকে ।

আক্রমণকারীদের একজন ধরা পড়লেও বাকি দুজন পালিয়ে যেতে সক্ষম হয় । ধৃত হামলাকারী অন্য একজন হামলাকারীকে পরে শনাক্ত করে তেজিন্দর সিং বাগ্গা নামে । এই তেজিন্দর সিং বাগ্গা হলেন ভারতীয় জনতা পার্টির দিল্লি শাখার মুখপাত্র ।

নীচে ২০১১ সালের সেই হামলার ভিডিও দেওয়া হলঃ



ধৃত হামলাকারী পরে জানায়, তাদের হামলার কারণ ছিল প্রশান্ত ভূষণের একটি বিবৃতি, যাতে তিনি জম্মু-কাশ্মীর থেকে সেনাবাহিনী প্রত্যাহার করে নেওয়ার এবং সেখানে গণভোট অনুষ্ঠানের দাবি জানিয়েছিলেন ।

হামলাকারীরা নিজেদের শ্রীরাম সেনে এবং ভগত্ সিং ক্রান্তি দল-এর অনুগত বলে দাবি করেছিল ।

তবে ৮ বছরের পুরনো ওই ভিডিওটির সঙ্গে পুলওয়ামার সাম্প্রতিক জঙ্গি হামলার ঘটনার কোনও সম্পর্কই নেই এবং হামলার পরেই অন্য অনেক ক্লিপিংস-এর সঙ্গে এটিকে জিইয়ে তোলা হয়েছে ।

Claim Review :  Video of Prashant Bhushan being attacked in his cabin
Claimed By :  Facebook pages
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story