শ্রীলঙ্কার বোরখা পরা মেয়েদের গায়ে জল ছেটানোর ভিডিও ধর্মীয় রং লাগিয়ে ভারতের ঘটনা বলে ছড়ানো হচ্ছে

মূল ভিডিওটিতে সব ছাত্র-ছাত্রীদের গায়েই জল ছোড়া হচ্ছে। ইস্টার্ণ ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাসের ঘটনা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে দাবি করা হয়েছে, মুসলিম হিজাবি মেয়েদের গায়ে আবর্জনা নিক্ষেপ করা হয়েছে। ওই ভিডিওতে কয়েকজন বোরখা পরিহিত মেয়ের গায়ে বালতি করে রাস্তার পাশের জমা জল বালতি করে ছুঁড়ে দিচ্ছে কয়েকটি ছেলে।

পোস্টটিতে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, ‘‘ভারতের হিন্দুরা মুসলিম পর্দা করা মেয়েদের কে ময়লা আবর্জনা নিক্ষেপ করেছে!!!! সারা পৃথিবীর মুসলমানদের এক হওয়া প্রয়োজন।’’

পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে।

তথ্য যাচাই

বুম রিভার্স সার্চ করে দেখেছে। এই ভিডিওটি কয়েক মাস আগে বিভিন্ন ক্যাপশন সহ
ভিডিওটি ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ টুইটারে পোস্ট করা হয়েছিল।



?lang=en

বুম ইউটিউবে ‘‘ওয়াটার থ্রোস বোরখা মুসলিম ওম্যন’’ লিখে সার্চ করেছে।

বিভিন্ন সময়ে ভিডিওটি আপলোড করা হয়েছে। এবছরের ২৭ ফেব্রুয়ারী, ৭ মার্চ, ১৭ মার্চ২১ এপ্রিল বিভিন্ন ক্যাপশন সহ ভিডিওটি আপলোড করা হয়েছে।

২৪ ফেব্রুয়ারী ভিডিওটি ফেসবুকে পোস্ট করে দাবি করা হয়েছে সেটি শ্রীলঙ্কার ইস্টার্ণ ইউনিভার্সিটির। ফেসবুকে আরওএকটি অ্যাকাউন্ট থেকেও ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে শুধুমাত্র মুসলিম ছাত্রীদের ওপর নয়, অন্য ছাত্র-ছাত্রীদের গায়েও রাস্তার পাশে জমা জল ছোড়া হচ্ছে।

প্রবাসী তামিলদের একটি ওয়েবসাইট puthithu.com-এ এই ভিডিওটি নিয়ে ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। (আর্কাইভ লিঙ্ক) সেখানে ভিডিওটির উৎসস্থল শ্রীলঙ্কার ইস্টার্ণ ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাস বলা হয়েছে। প্রতিবেদনটির শিরোনামে ওই ঘটনার নিন্দা করা হয়ছে।

এই ভিডিওটি আগে এএফপি,হোয়াক্সঅরফ্যাক্টঅল্টনিউজ খন্ডন করেছে।

Claim Review :   ভারতে মুসলিম হিজাবি মেয়েদের গায়ে আবর্জনা নিক্ষেপ করা হচ্ছে
Claimed By :  FACEBOOK POST
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story