হরিয়ানা ও তেলেঙ্গানার পুরনো ভিডিওকে কাশ্মীর বলে চালালেন পাক মন্ত্রী

কাশ্মীরের ভিডিও বলে আলি হায়দার জাইদি যা শেয়ার করেছেন, সেগুলি আসলে হরিয়ানা আর তেলেঙ্গানার পুরনো ভিডিও।

পাকিস্তানের নৌমন্ত্রকের ভারপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আলি হায়দার জাইদি রবিবার টুইট করলেন পুরনো ভিডিয়ো। মিথ্যে দাবি করলেন যে ভারতীয় নিরাপত্তারক্ষী বাহিনী কাশ্মীরের সাধারণ মানুষের ওপর প্রবল শক্তি প্রয়োগ করছে।

আলি হায়দার জাইদি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর তুলনা করলেন অ্যাডল্‌ফ হিটলারের সঙ্গে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে আবেদন করলেন, ভারতের ওপর যেন বাণিজ্যিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

প্রায় দু’মিনিটের এই ক্লিপটিতে দুটি পৃথক ভিডিও রয়েছে। একটিতে দেখা যাচ্ছে বাইরের দৃশ্য, যাতে নিরাপত্তারক্ষী বাহিনী নারী-পুরুষনির্বিশেষে সাধারণ মানুষের ওপর লাঠি চালাচ্ছে; অন্য ভিডিয়োটিতে ঘরের দৃশ্য দেখা যাচ্ছে— এক মহিলা অসহায় মুখে একটি শিশুকে নিয়ে বসে আছেন।

একটি আলাদা অডিও ট্র্যাক এই ভিডিওর সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে, যাতে নারীকণ্ঠে কোনও একটি অপরাধে দোষীদের কঠোর শাস্তির জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন শোনা যাচ্ছে।



টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

বুম এই ভিডিওটিকে কয়েকটি মূল ফ্রেমে ভেঙে নেয় এবং দেখে যে প্রথম ক্লিপটি অন্তত দু’বছর পুরনো। সেটি অন্তত ২০১৭ সালের অগস্ট মাসের।

২০১৭ সালের অগস্ট মাসের তৃতীয় সপ্তাহ নাগাদ ভিডিওটি ইন্টারনেটে আপলোড করা হয়েছিল। জাইদির ভিডিওটিতে যে নারীকণ্ঠ শোনা যাচ্ছে, আসল ভিডিওটিতে তার সন্ধান পাওয়া যায়নি। ইন্টারনেটে ভিডিওটির শে ক্যাপশনগুলি দেখতে পাওয়া যাচ্ছে, তাতে মনে হয়, এই ভিডিওটি বিতর্কিত বাবা রাম রহিম সিংয়ের শিষ্য ও ভক্তদের সঙ্গে পুলিশ ও আধা সামরিক বাহিনীর সংঘাতের ছবি। ডেরা সাচ্চা সৌদার প্রধান রাম রহিম সিবিআই বিশেষ আদালতে ধর্ষণের দায়ে অপরাধী সাব্যস্ত হওয়ার পর তার ভক্তরা হিংস্র হয়ে উঠেছিল। (এ ব্যাপারে আরও পড়তে পারেন এখানে)





দ্বিতীয় ভিডিও, যেখানে এক অসহায় মহিলা ও একটি শিশুকে দেখা যাচ্ছে, সেটি ২০১৮ সালের অগস্ট মাসের।

২০১৮ সালের ৩১ অগস্ট তারিখে প্রকাশিত মিরর নাউ-এর একটি সংবাদ প্রতিবেদনে বুম এই ভিডিওটির সন্ধান পায়। প্রতিবেদনটিতে লেখা হয়েছিল, “বিবাহ বহির্ভুত সম্পর্কে যুক্ত থাকার অভিযোগ তুলতেই তেলেঙ্গানার এক পুলিশকর্মী জনসমক্ষে তার স্ত্রী ও শাশুড়িকে নির্মম ভাবে প্রহার করতে শুরু করে।

আলি হায়দার জাইদি এর আগেও কাশ্মীর সম্বন্ধে ভুয়ো খবর প্রচার করেছেন। এর আগে তিনি নিহত সন্ত্রাসবাদী বুরহান ওয়ানির শেষকৃত্যের একটি ভিডিও শেয়ার করে লেখেছেন যে জম্মু ও কাশ্মীরের স্পেশ্যাল স্টেটাস প্রত্যাহার করে নেওয়ার কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে লাখে লাখে কাশ্মীরি প্রতিবাদ জানাতে পথে নেমেছেন।

আরও পড়ুন: পাকিস্তানের মন্ত্রী বুরহান ওয়ানির শেষকৃত্যের দৃশ্যকে ৩৭০ ধারা বিলোপের প্রতিবাদের ছবি বলে টুইট করেছেন

Claim Review :   ভিডিও দেখায় ভরতের নিরাপত্তারক্ষী কাশ্মীরে নাগরিকদের প্রহার করছে
Claimed By :  আলি হায়দার জাইদি
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story