ভাইরাল হওয়া টাকা উদ্ধারের ছবি চুঁচুড়া পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতির বাড়ির নয়, মহারাষ্ট্রের থানের

নতুন দুহাজার টাকা উদ্ধারের ছবি ২০১৬ সালে মহারাষ্ট্র পুলিশ বাজেয়াপ্ত করেছিল।

একটি সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে তাপস চ্যাটার্জি টেবিল ভর্তি টাকার ছবি সহ দাবি করেছেন, এছবি চুচু়ড়ার মগরার। ছবিটিতে দুজন ব্যক্তিকে থোক নতুন দুহাজার টাকা সহ বসে থাকতে দেখা যায়। তাপস ৪ এপ্রিল ওই ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, "এটা কোনও ব্যাঙ্ক কাউন্টারের ছবি নয়। এটা চুঁচুড়া-মগরা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি দিলীপ দাসের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে উদ্ধার হওয়া নগদ টাকার ছবি। ভাবতেই অবাক লাগে ইনি একজন প্রাথমিক স্কুলের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক।" আর্কাইভ পোস্টটি দেখতে পারেন এখানে। এবং ভাইরাল পোস্টটি নীচে দেখুন।

তথ্য যাচাই

বুম ছবিটি রিভার্স সার্চ করে দেখেছে, এটি মগরা-চুঁচুড়ার ছবি নয়। ছবিটি ২০১৬ সালের মহারাষ্ট্রের থানের। বিমুদ্রাকরন ঘোষনার পরপরই মহারাষ্ট্র পুলিশ তল্লাশি চালিয়ে ওই নোটগুলি উদ্ধার করে। ছবিটি বাজেয়াপ্ত হওয়া নতুন টাকার। সেসময় থানের বহু জায়গায় সমবায় ব্যাঙ্কগুলিতে এরকম অনেক বাতিল ও নতুন নোটের হিসেব বহির্ভুত লেনদেন ধরা পরে। এব্যাপারে খবর প্রকাশিত হয়েছিল এখানে এবং এখানে।

এই বিষয়ে বিস্তারিত জানতে নীচের প্রতিবেদন পড়তে পারেন এখানে এবং এখানে

Claim Review :   চুঁচুড়া-মগরা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি দিলীপ দাসের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে উদ্ধার হওয়া নগদ টাকার ছবি
Claimed By :  Facebook Post
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story