ভুয়ো ইনস্টাগ্র্যাম অ্যাকাউন্টের শিকার অভিনেতা ঋদ্ধি সেন

একটি ফেসবুক পোস্টে ঋদ্ধি জানান যে, তিনি ইনস্টাগ্র্যামে নেই। সেই সঙ্গে উনি ওই ভুয়ো ইনস্টাগ্র্যাম প্রোফাইলের একটা স্ক্রিনশটও দিয়ে দেন।

অভিনেতা ঋদ্ধি সেন একটি জাল ইনস্টাগ্র্যাম অ্যাকাউন্টের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করেন শুক্রবার ফেসবুকে । সেটির নাম k.ridhhisen_official (কে, ঋদ্ধিসেন_অফিসিয়াল), এবং তাঁর নাম ব্যবহার করে সেটি নিত্যনতুন পোস্ট করে চলেছে, বলে এই দাবি করেন ঋদ্ধি। এই প্রতিবেদন লেখার সময় পর্যন্ত ওই ইনস্টাগ্র্যাম হ্যান্ডেল ৩,২০০ ফলোয়ার পেয়ে গিয়ে ছিল।

একটি ফেসবুক পোস্টে ঋদ্ধি জানান যে, তিনি ইনস্টাগ্র্যামে নেই। সেই সঙ্গে উনি ওই ভুয়ো ইনস্টাগ্র্যাম প্রোফাইলের একটা স্ক্রিনশটও দিয়ে দেন। জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত এই অভিনেতা তাঁর বন্ধুবান্ধবদেরও ওই প্রোফাইলের বিরুদ্ধে রিপোর্ট করতে অনুরোধ করেন ।

উনি লেখেন: “আমি ইনস্টাগ্র্যামে নেই। দয়া করে এই ভুয়ো প্রোফাইলের বিরুদ্ধে নালিশ করুন। যাঁরা সেটিকে ফলো করছেন, তাঁরা যেন সেটিকে এখনই ‘আনফলো’ করেন। ফেসবুক আর টুইটারে আমার একটিই অ্যাকাউন্ট আছে। আমি ইনস্টাগ্র্যাম ব্যবহার করি না।”

ঋদ্ধি ভুয়ো প্রোফাইলের অস্তিত্বের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করায় যে প্রতিক্রিয়া এসেছে, তা থেকে স্পষ্ট যে ইনস্টাগ্র্যাম ইউজার অনেকেই সেটিকে সত্যি বলে ধরে নিয়েছিলেন।

বুম ইনস্টাগ্র্যাম হ্যান্ডেল k.ridhhisen_official দেখে। এই প্রতিবেদন লেখার মুহূর্ত পর্যন্ত সেটি ১৪০টি ছবি ফোটো শেয়ারিং নেটওয়ার্কে দিয়ে ছিল।

খুঁটিয়ে দেখলে বোঝা যায়, সেগুলি ঋদ্ধির ফেসবুকে পোস্ট করা ছবি থেকেই নেওয়া। ঋদ্ধি নিজের কাজ সম্পর্কে তাঁর ফ্যান আর ফেসবুকের বন্ধুদের পোস্টের মাধ্যমেই জানিয়ে থাকেন।

বুম ঋদ্ধির সাথে যোগাযোগ করে, তিনি জানান, "আমি আপাতত ফেসবুক এবং টুইটারে আছি। আমার প্রচুর বন্ধুরা অ্যাকাউন্টএর সম্পর্কে রিপোর্ট করেছে, কিন্তু এখন কোনও কিছু হয়নি। আমার ইন্সটাগ্রামে অ্যাকাউন্ট খোলার আপাতত ইচ্ছে নেই। আমি ফেসবুক ব্যবহার করি টুইটারের থেকেও বেশি। "

কৌশিক গাঙ্গুলির ছবিতে এক তৃতীয় লিঙ্গের ব্যক্তি পুঁটির ভূমিকায় তাঁর অভিনয় উচ্ছ্বসিত প্রশংসা পেয়েছে। ওই অভিনয়ের জন্য উনি গত বছর শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে জাতীয় পুরস্কারও পান।

Show Full Article
Next Story