সঞ্জয় দত্ত কি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করছেন? না, ওটা খুব নিম্নমানের ফোটোশপ-করা ছবি

বুম রিভার্স সার্চ করে সঞ্জয় দত্তের আসল ছবিটি খুঁজে পেয়েছে। সেই ছবিতে তিনি টুপি পরেননি বা এলাহী খাবার সামনে নিয়ে বসেননি।

ফোটোশপে তৈরি করা এক ছবিতে দেখা যাচ্ছে, মাথায় টুপি পরে ইফতারের সময় প্রচুর খাবারের সামনে বসে আছেন অভিনেতা সঞ্জয় দত্ত। ছবিটি ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। তার সঙ্গে দেওয়া ক্যাপশনে বলা হয়েছে অভিনেতা ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করতে অনুপ্রাণিত বোধ করছেন।

ছবিটি একটি বাঙালি ফেসবুক গ্রুপে শেয়ার করা হয়েছে। সেটির নাম “জাকির নায়েক সাপোর্টার্স গ‍্রুপ”। ছবিটি সম্পর্কে ২,৫০০ মন্তব্য এসেছে। তার মধ্যে অনেকেই অভিনেতার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন। ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, “আল্লাহ তাকে হেদায়ত দান করুক এবং ইসলাম ধর্মে আসার তাওফিক দেন আমিন।” পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে।

জাকির নায়েক, যাঁর নামে ফেসবুক গ্রুপটির নামকরণ করা হয়েছে, তিনি একজন বিতর্কিত ইসলাম-ধর্ম প্রচারক। বেআইনি অর্থ লগ্নি এবং বিদ্বেষমূলক ভাষণ দেওয়ার অভিযোগে ভারত সরকার তাঁকে খুঁজছে। ২০১৬ সালে উনি মালয়েশিয়া পালিয়ে যান।
এক মাস আগে, অন্য একটি ফেসবুক পেজেও ছবিটি আপলোড করা হয়েছিল। তখন দাবি করা হয় যে, অভিনেতা রমজানের পবিত্র মাসে উপবাস করেন।

তথ্য যাচাই

ছবিতে গেলাসগুলি আর খাবার এমনই বেখাপ্পাভাবে রাখা আছে যে, তা দেখলেই বোঝা যায় ছবিটি ভুয়ো। তাছাড়া মক্কার একটি বাঁধানো ছবি এবং সঞ্জয় দত্তের মাথার টুপিটিও অস্বাভাবিক দেখাচ্ছে।

বুম ছবিটির রিভার্স ইমেজ সার্চ করে আসল ছবিটির সন্ধান পায়। দেখা যায়, ‘টিম সঞ্জয় দত্ত’ নামের ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে সেটি আপলোড করা হয়েছিল গত মাসে।



সঞ্জয় দত্ত বিয়ে করেছেন মান্যতা দত্তকে। বলা হয় তাঁর স্ত্রীর জন্ম এক মুসলমান পরিবারে। তাঁরা গোপনে, হিন্দু নিয়মকানুন মেনে, গোয়ায় বিয়ে করেন ২০০৮ সালে। মান্যতা হামেশাই ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করে থাকেন। কিন্তু দত্ত দম্পতি রমজানে উপবাস করছেন, তেমন কোনও ছবি তিনি আপলোড করেননি। তবে অভিনেতা পবিত্র মাসে উপবাস করেন কিনা তা নিজস্ব উপায়ে জানতে পারেনি বুম।

বুম সঞ্জয় দত্তকে মেসেজ পাঠিয়েছে। তাঁর উত্তর পাওয়া গেলে, এই প্রতিবেদন আপডেট করা হবে।

Show Full Article
Next Story