নবরাত্রি নিয়ে সাম্প্রদায়িক উদ্ধৃতিকে ভুয়ো আখ্যা দিলেন শাবানা আজমি

বুম লক্ষ্য করেছে, শাবানা আজমির নামে চালানো নবরাত্রি বিষয়ক উদ্ধৃতিটির সঙ্গে কঙ্গনা রানাবতের উদ্ধৃতির (যা আগেই ভুয়ো বলে নস্যাত্ করা হয়েছে) আশ্চর্য মিল রয়েছে

বর্ষীয়ান অভিনেত্রী শাবানা আজমি তাঁর নামে চালানো একটি ধর্মীয় বক্তব্য যারা সোশাল মিডিয়ায় ট্রোল করেছে, মঙ্গলবার তাদের এক হাত নিয়েছেন । এর ঠিক আগের দিন, সোমবার কঙ্গনা রানাবতের নামেও একটি ইসলাম-নিন্দাকারী ভুয়ো উদ্ধৃতি সোশাল মিডিয়ায় চালানো হয়েছিল, যেটি বুম পর্দাফাঁস করে ।

শাবানা টুইটার মারফত জানিয়েছেন, তাঁর নামে যে উদ্ধৃতিটি চালানো হচ্ছে, তেমন কোনও সাম্প্রদায়িক বা নারীবিদ্বেষী বক্তব্য তিনি কখনওই পেশ করেননি । উদ্ধৃতিটিতে শাবানার একটি ছবি দিয়ে হিন্দিতে লেখা হয়েছে—"এই নবরাত্রিতে আমি আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করি যেন লক্ষ্মীকে কোনও দিন ভিক্ষা করতে না হয়, দুর্গাকে যেন কন্যাভ্রূণহত্যার শিকার হতে না হয়, পার্বতীকে যেন বিয়েতে পণ দিতে না হয়, সরস্বতীকে যেন স্কুলের অভাবে অশিক্ষিত থাকতে না হয়, পার্বতীকে যেন ত্বক ফর্সা করার ক্রিম মাখতে না হয়, ইনশাল্লা!" তার পরই ছবিটিতে প্রশ্ন রাখা হয়েছেঃ "শাবানা কি তিন-তালাক, চার স্ত্রী, বোরখা, হালালা ও জন্মনিয়ন্ত্রণ বিষয়ে তাঁর বক্তব্য জানাবেন?"

ছবিটি নীচে দেখতে পারেন—

মঙ্গলবার সকালেই শাবানা এই ভুয়ো পোস্ট নস্যাত্ করে টুইট করেন—"আমি এমন ধরনের কথা বলিনি । ইতিমধ্যেই মেরুকরণ ঘটে যাওয়া এবং সাম্প্রদায়িকতায় আচ্ছন্ন পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটাতে ট্রোলগুলি কী জঘন্য ভূমিকা নিতে পারে, তা দেখে আমি বিরক্ত, বীতশ্রদ্ধ । আমি ধর্মনির্বিশেষে সব মহিলার জন্যই কাজ করি ।"



শাবানা বর্তমানে লন্ডনে রয়েছেন l বুম তাঁর কাছে একটা প্রশ্নমালা পাঠিয়েছে, তাঁর জবাব পেলেই এই প্রতিবেদনটি হালনাগাদ করা হবে ।

মুখে কথা বসানোর প্রবণতা

বুম দেখেছে, শাবানা আজমির নামে মিছিমিছি যে উদ্ধৃতি প্রচার করা হয়েছে, সেটা আসলে তাঁকে ভুলভাবে উদ্ধৃত করার প্রয়াস । ২০১৭ সালের নবরাত্রির সময় শাবানা একটি টেক্সট-বার্তা টুইট করেন, যার বক্তব্য ছিল, দুর্গা অষ্টমীর প্রকৃত তাত্পর্য কী হওয়া উচিত এবং দেশের মহিলাদের তা কেমন ভাবে ক্ষমতায়ন করতে পারে । বার্তাটিতে মহিলাদের যে সব ছকে বেঁধে রাখা হয়েছে, তাকে চ্যালেঞ্জ জানানো হয় এবং কোনও ভাবেই হিন্দু নারীদের ব্যাপারে সেই বক্তব্য সীমাবদ্ধ ছিল না । টুইটটি এখানে দেখতে পারেন—



তা ছাড়া, বার্তার কথাগুলি সব শাবানার নিজস্ব কথা, এমনটা ধরে নেওয়ারও কোনও যুক্তি নেই, কারণ বিভিন্ন সোশাল মিডিয়া মঞ্চে আরও অনেকেই এই বার্তাটিই পোস্ট করেছে ।

২০১৭ সালের দুর্গাপূজার সময় অনেক ফেসবুক ব্যবহারকারীই অন্যদের শুভেচ্ছা জানাতে একই বার্তা ব্যবহার করেছেন ।

রানাবতের ভুয়ো উদ্ধৃতির সঙ্গে আশ্চর্য মিল

বুম দেখেছে, শাবানার নামে চালানো এই উদ্ধৃতিটির সঙ্গে কঙ্গনা রানাবতের নামে চালানো উদ্ধৃতিটির আশ্চর্য মিল রয়েছে । সেই উদ্ধৃতিটি আবার ২০১৭ সালে শাবানার টুইটের জবাবে দেওয়া টুইটগুলোর কথা মনে করিয়ে দেয় ।

যেমন জনৈক চৌকিদার কেয়া ঘোষ ২০১৭-র ২ অক্টোবর টুইট করেন —"আসুন আমরা এই মহরমে জনসাধারণকে শিক্ষিত করে তুলি যাতে কোনও হামিদাকে তিন-তালাক দেওয়া না হয়, কোনও সাকিনাকে নিকা-হালালায় যেতে বাধ্য করা না হয়, কোনও ফরিদাকে বোরখা পরতে না হয় ।"





Updated On: 2020-09-14T13:29:58+05:30
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.