উন্নাওয়ের ধর্ষিতার অবস্থা আশঙ্কাজনক কিন্তু সোশাল মিডিয়ায় তরুণীকে মৃত ঘোষণা করা হয়েছে

বেশ আবেগী ভাইরাল পোস্টে বিদায় জানানো হয়েছে উন্নাওয়ের ধর্ষিতাকে। ২৮ জুলাই এক মরাত্মক দুর্ঘটনায় আহত হয় সে। যে হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছে, বুম সেখানে যোগাযোগ করলে জানতে পারে যে, সে জীবিত, তবে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

দু’টি ছবিকে জোড়া হয়েছে। একটি হল, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গুরুতর ভাবে যখম এক মহিলা। অন্যটি হল, একটি দোমড়ানো-মোচড়ানো গাড়ি, যাতে করে ২৮ জুলাই ২০১৯ তারিখে উন্নাওয়ের ধর্ষিতা যাচ্ছিল। একত্রিত-করা ওই দুটি ছবি ভাইরাল হয়েছে। বলা হচ্ছে, মেয়েটি তার গুরুতর আঘাতের ফলে বাঁচার লড়াইয়ে হেরে গেছে।

বুম হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তাঁরা জানান যে, মেয়েটি বেঁচে আছে। তবে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে। তার অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক।

“তার অবস্থা আশঙ্কাজনক এবং তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা আছে। তবে সে জীবিত”

ডঃ ‍সুধীর, মিডিয়া সেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত সহ-ফ্যাকাল্টি, কেজিএমইউ

আমরা দুটির মধ্যে একটি ছবি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠাই। জানতে চাওয়া হয় যে, ছবিতে যে মহিলাকে দেখা যাচ্ছে, সে উন্নাওয়ের ধর্ষণের ঘটনার শিকার কিনা। কারণ, তার ছবি প্রকাশ করা মিডিয়ার ঘোষিত নীতির পরিপন্থী। সেখানকার ডাক্তার স্পষ্ট জানান যে, ছবিটি উন্নাওয়ের ধর্ষিতার নয়।

পোস্টটি উন্নাওয়ের ওই ধর্ষিতা সম্পর্কে করা হয়েছে, যে গত দু বছর ধরে ন্যায়-বিচার দাবি করে আসছে। অভিযোগ, বিজেপির বিধায়ক কুলদিপ সিং সেঙ্গার উন্না্ওয়ে তার নিজের বাড়িতে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। মেয়েটি তার কাছে কাজের আশায় গিয়েছিল। বৃহস্পতিবার সেঙ্গারকে পার্টি থেকে বহিষ্কার করা হয়।

ওই কথিত ঘটনার দু বছরের মধ্যে, মেয়েটির বাবা জেল হেফাজতে মারা যান। ২৮ জুলাই, তার দুই পিসি রায় বেরেলির কাছে এক গাড়ি দুর্ঘটনায় নিহত হন। মেয়েটি নিজে ও তার আইনজীবী ঘোরতর ভাবে অহত হন ওই দুর্ঘটনায়।

ওই দুর্ঘটনার পর থেকে, সোশাল মিডিয়ায় মেয়েটির মৃত্যুর খবর ছড়াতে থাকে।

ভাইরাল পোস্টের সঙ্গে দেওয়া ক্যাপশনে বলা হয়েছে, “বিদায়। উন্নাওয়ের সেই ধর্ষিত মেয়েটি আর নেই। কেউ ভাবতে পারেনি যে, বিচারের জন্য মেয়েটি সহ তার পরিবারের সকলকে মরতে হবে। ‘অপারেশন ট্রাক’ সফল হয়েছে...এখন এক নতুন কথা শুনতে হবে...মেয়েদের ক্ষমতায়নের ওপর লেক্চার শুরু হবে। এমএলএ-কে অভিন্ন্দন। শেষমেশ, কপালে যা লেখা থাকে তা কেই বা অমান্য করতে পারে! হে প্রিয়জন, এদেশে যেন তোমার আর জন্ম না হয়। বিদায়। অপারেশন ট্রাক সফল হয়েছে। দীপ নিভে গেছে। এখন সুরক্ষিত কুলদীপ।”

(হিন্দিতে লেখা হয়: (Hindi: अलविदा ! उन्नाव रेप पीड़िता अब नही रही … कोई ऐसा सोच भी नही सकता था कि न्याय के लिए एक बेटी को परिवार सहित मरना पड़ा हो ! ऑपरेशन ट्रक सफल हुआ अब कोई नई कहानी गढ़ी जाएगी,, महिला हितों के लिए लंबे लंबे भाषण दिए जाएंगे ! विधायक जी को बधाई !
और अंत में #होनी_को_कौन_टाल_सकता_है ! लाडो तुम कभी न आना इस देश अलविदा
ऑपरेशन ट्रक सफल हुआ | बुझ गया दीपকাল | सुरिक्षत हुआ कुलदीप)

ভাইরাল পোস্টগুলি আর্কাইভ করা আছে এখানেএখানে

ইতিমধ্যে, খবরে বলা হয়েছিল, মেয়েটিকে হয়ত প্লেনে করে দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সেস-এ নিয়ে যাওয়া হতে পারে উন্নত চিকিৎসার জন্য। অবশ্য তার মা নিয়ে যেতে চাননা বলে জানিয়েছেন। খবরটি অবশ্য বুম যাচাই করে দেখেনি।

Claim Review :   উন্নাওয়ের ধর্ষিতা মৃত
Claimed By :  FACEBOOK PAGES AND TWITTER HANDLES
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story