এই মর্মান্তিক ছবিটি শ্রীলঙ্কায় ‘ইস্টার সানডে’র বোমা বিস্ফোরনের পর তোলা হয়নি

ছবিটি ২০১৮ সাল থেকে বিভিন্ন সিংহলি ওয়েবসাইটে দেখা গেছে।

একটি শিশুর পাশে কান্নায় ভেঙে পড়েছেন এক ব্যক্তি। এই পুরনো ছবিটি মিথ্যে দাবি সমেত সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করা হচ্ছে এই বলে যে, ওই বাচ্চাটি শ্রীলঙ্কার সাম্প্রতিক সন্ত্রাসি বোমা হামলার সবচেয়ে কম বয়সী মৃত।

ছবিটির সঙ্গে দেওয়া ক্যাপশনে বলা হয়েছে: “শ্রীলঙ্কায় বোমা বিস্ফোরণের কনিষ্ঠতম শিকার” এবং “শ্রীলঙ্কায় বিস্ফোরণের কনিষ্ঠতম শহীদ।”


তথ্য-যাচাই

বুম গুগুলে ছবিটির রিভার্স ইমেজ সার্চ করে। দেখা যায় সেটি মে ২০১৮-তে বেশ কয়েকটি অনলাইন প্ল্যাটফর্মে আপলোড করা হয়েছিল, যেগুলির বেশিরভাগই সিংহলি ওয়েবসাইট।

২০১৮ সালের মে মাসে ওই একই ছবি আপলোড করে একটি সিংহলি ওয়োবসাইট

পোস্ট দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

একই ছবি দুটি সিংহলি ইউটিউব চ্যানেলেও লোড করা হয়, যেমন, ‘ইএস প্রোডাক্সনস’ও ‘নোডুটু লোয়া ওয়াটা’। সঙ্গে ভাষ্যকারের গলায় শোনা যাচ্ছিল “বাবার যন্ত্রণার কথা।”
দুটো আপলোডই করা হযেছিল ২০১৮ সালের মে মাসে। আর শ্রীলঙ্কায় বোমা বিস্ফোরণ হয় এপ্রিল ১৯, ২০১৯ তারিখে। বুম ওই শিশুকন্যাটির পরিচয় বা তার মৃত্যুরকারণ স্বাধীনভাবে যাচাই করতে পারেনি।

ইসলামিক জঙ্গিরা ইস্টার সানডের দিন শ্রীলঙ্কার গির্জা ও হোটেলে পর্যায়ক্রমিক বোমা বিস্ফোরণ ঘটালে কয়েক’শ ব্যক্তি প্রাণ হারান। এখনও পর্যন্ত এটি হল ওই দ্বীপরাষ্ট্রে সবচেয়ে বড় সন্ত্রাসি হামলা। শ্রীলঙ্কা জানিয়েছে যে, ইসলামিক জঙ্গি সংগঠন ন্যাশানাল তৌহিদ জামাত ওই আক্রমণ চালায়। সপ্তাহের শুরুতে সন্ত্রাসবাদী জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট ওই হামলার দায় শিকার করে।

Claim Review :  শ্রীলঙ্কয়ায় জঙ্গি হামলায় কনিষ্ঠতম মৃতের দাবি করা ছবি
Claimed By :  SOCIAL MEDIA
Fact Check :  FALSE
Show Full Article
Next Story