মধ্যপ্রদেশে বাঘ ঘুরে বেড়াচ্ছে? আতঙ্ক ছড়াতে পুরনো ছবি ফের ব্যবহার করা হল

মাধব ন্যাশনাল পার্কের রেঞ্জ অফিসার এল পি আর্য-র সঙ্গে যোগাযোগ করে বুম। তিনি এই খবরটিকে গুজব বলে উড়িয়ে দেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি বাঘ ও একটি চিতাবাঘ সহ কয়েকটি ছবি ভাইরাল হয়েছে। ছবিগুলো পরস্পরের সঙ্গে সম্পর্কহীন। দাবি করা হচ্ছে যে এই হিংস্র পশুগুলিকে মধ্যপ্রদেশের শিবপুরীতে ন্যাশনাল পার্ক অঞ্চলে দেখা গিয়েছে। দাবিটি ভুয়ো।

একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে যে একটি বাঘ রাতের বেলা রাস্তা পার হচ্ছে। অন্য একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে যে বাঘটি একটি গরুর মাংস খাচ্ছে। অন্য একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে, মাটিতে কয়েকটি মোটরবাইক পড়ে আছে, আর তার মাঝখানে বসে আছে একটি চিতাবাঘ। এই ছবিটি কাছাকাছি কোনও গাছের ডালে বসে তোলা। অন্য একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে, কয়েক জন লোক গাছের ডালে চড়ে বসেছে, সম্ভবত চিতাবাঘটির হাত থেকে বাঁচতেই।

“বাইকে চেপে শিবপুরীর ধারেকাছে যাবেন না। ন্যাশনাল পার্ক থেকে দুটো বাঘ পালিয়েছে, আর সেগুলো রাস্তার লোকজনকে আক্রমণ করছে, জখম করছে। ইতিমধ্যেই তিন জন মারা গিয়েছেন।”— ভাইরাল হওয়া পোস্টটিতে হিন্দিতে এই দাবি করা হয়েছে।

(হিন্দি বয়ান: शिवपुरी कोई भी बाइक से न जाए अभी नेशनल पार्क से छूटे दो शेर आने जाने वालों को किया जख्मी 3 लोगों को मारा)

এই একই বয়ানের পোস্ট ফেসবুকেও ভাইরাল হয়েছে।

মাধব ন্যাশনাল পার্ক গোয়ালিয়রের শিবপুরী জেলায়। অন্যান্য স্তন্যপায়ী প্রাণী ছাড়াও, ভারতীয় চিতাবাঘের জন্য এই ন্যাশনাল পার্কটি বিখ্যাত।

তথ্য যাচাই

বুম প্রতিটি ছবিকে রিভার্স ইমেজ সার্চ করে এবং দেখা যায় যে ছবিগুলো পুরনো, পরস্পরের সঙ্গে অসম্পর্কিত। তা ছাড়াও আমরা মাধব ন্যাশনাল পার্কের রেঞ্জ অফিসার এল পি আর্য-র সঙ্গে যোগাযোগ করে জানতে চাই, সম্প্রতি পার্ক থেকে কোনও বাঘ পালিয়েছে কি না। তিনি বলেন, “এই ন্যাশনাল পার্কে কোনও বাঘই নেই। এখানে যা আছে, সবই চিতাবাঘ। কিন্তু গত কয়েক বছরে পার্ক থেকে কোনও পশু পালানোর ঘটনা ঘটেনি।”

প্রথম ছবি

নিজের শিকারের মাংস খাচ্ছে একটি বাঘ, এই ছবিটি মধ্যপ্রদেশের সাজাপুরের। ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে হিন্দুস্তান টাইমস-এর একটি সংবাদ প্রতিবেদনে লেখা হয়েছিল, ‘মধ্যপ্রদেশের সাজাপুর জেলায় গরু মেরেছিল বাঘই।

দ্বিতীয় ছবি

রাতের অন্ধকারে রাস্তা পেরোচ্ছে একটি বাঘ। পিছন থেকে একটি গাড়ির হেডলাইটের আলো দেখা যাচ্ছে। এই ছবিটি মহারাষ্ট্রের তাদোবা'র। গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসে আরও দুটি ছবির সঙ্গে বাঘের রাস্তা পেরনোর এই ছবিটিও টুইট করা হয়েছিল।



তৃতীয় ও চতুর্থ ছবি

কংক্রিকেটর রাস্তায় মোটরবাইকের মধ্যে বসে আছে একটি চিতাবাঘ। এই ছবিটি মহারাষ্ট্রের চিপলুন জেলার। গত বছর ডিসেম্বরের এক তারিখে গানে খাড়পোলি নামের এক গ্রামে একটি চিতাবাঘ ঢুকে পড়ে। কাছাকাছি এসে পড়ায় বেশ কয়েক লোককে জখমও করে চিতাবাঘটি। দু’জন গুরুতর আহত হন।

সকাল-এ এই সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছিল। একই বর্ণনা দিয়ে এই ছবিটি টুইটও করেন বেশ কয়েক জন।



Show Full Article
Next Story