কাশ্মীরের ঘটনা বলে ইন্দোনেশিয়ার মসজিদে আগুন লাগার ভিডিও শেয়ার

এবছরের জানুয়ারি মাসে দক্ষিন সুলায়োশি প্রদেশের উগুং এর কাবা মসজিদে আগুল লেগে যাওয়ার ভিডিও এটি

ফেসবুকে একটি মসজিদে আগুন লেগে যাওয়ার ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হয়েছে সেটি কাশ্মীরের মসজিদ, এবং মসজিদটিতে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে।

১ মিনিট ৪৬ সেকেন্ডের ওই ভাইরাল ভিডিওটিতে লেলিহান শিখায় একটি সবুজ ও হলুদের কারুকাজ করা গম্বুজওয়ালা মসজিদকে জ্বলতে দেখা যায়। এক ব্যক্তিকে একটি অচেনা (প্রতিবেদকের) ভাষায় কথা বলতে দেখা যায়। নেপথ্যে শোনা যায় অ্যাম্বুলেন্সের আওয়াজ।

ভাইরাল হওয়া পোস্টটিতে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, '‍‍'#কাশ্মীরের_সবচেয়ে_সুন্দর_মসজিদটি_আগুন_দিয়ে_জালিয়ে_দেওয়া_হচ্ছে। #শিয়ার করে চরিয়ে দিন।''

এই প্রতিবেদন লেখার সময় পর্যন্ত ভিডিওটি দেখেছেন ৩ হাজার জনের বেশি। পোস্টটি শেয়ার করেছেন ৫৫৯ জন। পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

পোস্টটির স্ক্রিনশট।

তথ্য যাচাই

বুম এই ভিডিওটিকে ইনভিডে কি ফ্রেমে ভেঙে রিভার্স সার্চ করে জেনেছে এটি কাশ্মীরের কোনও মসজিদের ছবি নয়। এটি ইন্দোনেশিয়ার দক্ষিন সুলায়োশি প্রদেশের উগুং লিউয়ু-এর কাবা মসজিদে আগুল লেগে যাওয়ার ভিডিও। সিএনএন ইন্দোনেশিয়া ২০১৯ সালের ২৯ জানুয়ারি এব্যাপারে খবর করে।



২৯ জানুয়ারি ২০১৯ আপলোড করা ভিডিও।

মসজিদটির নাম দিয়ে গুগুলে সার্চ করলে এব্যাপারে নানা খবর চোখে পড়ে। ইন্দোনেশীয় গণমাধ্যম কোমপাসের প্রতিবেদন পড়া যাবে এখানে

গুগুল সার্চের ফলাফল।
ইন্দোনেশীয় গণমাধ্যম কোমপাসের প্রতিবেদন

এই ভিডিওটি অবশ্য সাম্প্রতিক সময়ে ইন্দোনেশিয়ার বালিতেও হোয়াসটস্যআপে ছড়াচ্ছিল। প্রশাসনের তরফে তা খন্ডন করা হয়।

বালি প্রশাসনের তরফে গুজব খন্ডন।
Updated On: 2020-02-27T16:11:13+05:30
Claim Review :   কাশ্মীরের সবচেয়ে সুন্দর মসজিদটি আগুন দিয়ে জালিয়ে দেওয়া হচ্ছে
Claimed By :  FACEBOOK POST
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story