শশী তারুর কি সত্যিই জনতার মধ্যে টাকা বিলিয়েছেন? তথ্য যাচাই

কিছু দিন আগে তারুর এই ছবিগুলিই টুইট করে জানিয়েছিলেন, পুতিয়াতুরার মৎস্যজীবী মহিলারা তারুরের নির্বাচনী জামানতের জন্য নিজেদের সঞ্চয়ের টাকা একত্র করেছেন।

কেরলের তিরুঅনন্তপুরমের খ্যাতনাম কোনেমারা বাজারে গিয়েছিলেন শশী তারুর। গত সপ্তাহে। সেই বাজারে হাতে টাকা নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থায় তাঁর কিছু ছবি সম্প্রতি অনলাইনে ভাইরাল হয়েছে। দাবি করা হয়েছে, তারুর নিজের নির্বাচনী কেন্দ্রের মানুষের মধ্য টাকা বিলিয়ে ভোট কেনার চেষ্টা করছেন।

এপ্রিল ১, ২০১৯ তারিখে শিবম শর্মা নামে এক ব্যক্তি টুইটারে ছবিগুলি শেয়ার করে লেখেন, “টাকা দিয়ে কেনা ভিড়। শশী তারুর পেমেন্ট করছেন। এটাই কংগ্রেসের সত্যি।”

(হিন্দি থেকে অনুবাদ: “पैसों से बुलाई भीड़ को @ShashiTharoor पेमेंट देते हुए ये है कांग्रेस का सच #FirEkBarModiSarkar,”)

তারুর টাকা বণ্টন করছেন, এই টুইটে দাবি করা হয়েছে

টুইটটি দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন, এবং আর্কাইভ দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন।

এই প্রতিবেদনটি লেখার সময় অবধি টুইটটি ২৭৯ বার রিটুইট করা হয়য়েছে, এবং ৪০২টি লাইক পেয়েছে।



বেশ কয়েক জন টুইটার ব্যবহারকারী এই টুইটটিতে ভারতের নির্বাচন কমিশনকে ট্যাগ করে তারুরের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলেন। তারুর কেরলের তিরুঅনন্তপুরম কেন্দ্রের সাংসদ এবং আসন্ন লোকসভা নির্বাচনেও তিনি এই কেন্দ্র থেকেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

অনেকেই এই টুইটটিতে বোকা বনেছেন

তথ্য যাচাই

তাঁর নির্বাচনী প্রচারের অংশ হিসেবে শশী তারুর ২০১৯ সালের ৩০ মার্চ তিরুঅনন্তপুরমের কোনেমারা বাজারে যান।

বাজার থেকে ঘুরে আসার পর তারুর কয়েকটি ছবি টুইট করে জানান যে পুতিয়াতুরার মৎস্যজীবী মহিলারা নিজেদের রোজগারের টাকা তাঁর হাতে তুলে দিয়ে সেই টাকা তারুরের নির্বাচনী আমানত হিসেবে ব্যবহার করার কথা বলেছেন। তারুর তাঁর টুইটে লেখেন, “পুতিয়াতুরার মৎস্যজীবী মহিলারা নিজেদের কষ্টের রোজগারের টাকা আমার নির্বাচনী জামানতের জন্য তুলে দিয়েছেন। আমি গভীর ভাবে কৃতজ্ঞ বোধ করছি। আপনাদের রক্ত, ঘাম ও অশ্রু দিয়ে আয় করা এই টাকা আমি সযত্নে রাখব। এবং, সাংসদে আপনাদের হয়ে লড়াই করব।” তারুরের শেয়ার করা এই ছবিগুলিই ভা্ইরাল হয়েছে একটি ভুয়ো দাবিকে কেন্দ্র করে।



Show Full Article
Next Story