'প্রধানমন্ত্রী ঋণ যোজনা' নামে প্রচারিত অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপটি ভুয়ো

অ্যাপটিতে মিথ্যে দাবি করা হয়েছে যে, সেটি ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনস্থ বিভিন্ন সরকারি ঋণ অনুমোদন করে।

'প্রধানমন্ত্রী যোজনা ঋণ'-এর (Pradhan Mantri Yojana Loan) অধীনে যে কোনও রকম সরকারি ঋণ (Government Loans) পাইয়ে দিতে পারে, একটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপের এমন দাবি। সেই অ্যাপের প্রচার করে যে ফেসবুক পেজটি, সেটিও জালিয়াতি করছে। কারণ, এ রকম নামের কোনও সরকারি ঋণ যোজনা নেই।

এবং, এই অ্যাপটি ভারত সরকারের সঙ্গে সংযুক্ত নয়।

এই ফেসবুক পেজটিতে একাধিক পোস্টে একই ছবি, অ্যাপ লিঙ্ক এবং একই টেক্সট ব্যবহার করে গ্রাহকদের ঋণ নিতে উৎসাহ দেওয়া হয়েছে। এই পেজটি নিজেদের বিশ্বাসযোগ্যতা বাড়াতে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতীক চিহ্নও ব্যবহার করেছে।

মূল হিন্দিতে

বাংলায়

भारत सरकार की केंद्रीय योजना संपूर्ण भारत में मात्र 24 से 48 घंटे में होगा लोन आपकी अकाउंट मैं तुरंत करें अप्लाई

ভারত সরকারের একটি "যোজনা"-র (স্কিম) মাধ্যমে ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ঋণের টাকা আপনার অ্যাকাউন্টে পৌঁছে যাবে। দ্রুত আবেদন করুন।

অ্যাপটির লিঙ্ক পাওয়া যাবে এখানে। (শুধুমাত্র অ্যান্ড্রয়েড প্লে স্টোরের জন্য)। তা ছাড়াও, সব পোস্টেই নীচের কথাগুলি বলা হয়েছে।

মূল হিন্দিতে

छोटे से बड़ा बिजनेस लोन पर्सनल लोन होम लोन सभी प्रकार के लोन तुरंत अप्लाई करें रजिस्ट्रेशन ₹999 से शुरू कीजिए 10% सब्सिडी के साथ जल्दी कीजिए लास्ट डेट 28/03/2023 लोन प्रोसीजर 24 से 72 घंटा. Online aavedan kijiye.24 से 48 घंटे में आपके अकाउंट में लोन

ছোট বা বড় ব্যক্তিগত, ব্যবসায়িক বা অন্য কোনও ঋণ নিন। এখনই আবেদন করুন। নাম নথিভুক্ত করার খরচ ৯৯৯ টাকা, তার উপর ১০% ভর্তুকি পান। আবেদনের শেষ তারিখ ২৮/৩/২০২৩। ঋণ প্রদানের জন্য ২৪ থেকে ৭২ ঘন্টা সময় লাগবে। অনলাইন আবেদন করুন।

পোস্টটি নীচে দেখা যাবে। এই পোস্টটিতে মোট ৪৭৪টি লাইক পড়েছে, এবং এই পেজটিতে একই ধরণের একাধিক পোস্ট রয়েছে, যাতে মোট লাইকের সংখ্যা ৫০০০-এর বেশি।


পোস্টটি মোবাইল ফোনের মাধ্যমে খুললে ৮৫২৯৯৬৬১১৬ নম্বরে একটি হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট আরম্ভ হয়।

আরও জানা গিয়েছে যে, এই অ্যাপটি 'Aim2Excel' নামে একটি সংস্থা প্রকাশ করেছে, যে সংস্থার সঙ্গে সরকারের কোনও সংযোগ নেই। অ্যাপের বিবরণে যদিও বলা হয়েছে যে, ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্কে নথিভুক্ত সর্বোত্তম ফিনক্যাপ লিমিটেড নামক একটি নন-ব্যাঙ্কিং ফাইনানশিয়াল কর্পোরেশন (এনবিএফসি)-র মাধ্যমে এটি পরিষেবা প্রদান করে থাকে।

আরও পড়ুন: না, মুঘল সম্রাট ঔরঙ্গজেবের প্রশংসা করেননি উদ্ধব ঠাকরে

এই অ্যাপটির সঙ্গে সরকারের কোনও সংযোগ আছে, অথবা এই অ্যাপটি চালানোর জন্য সরকার টাকা দেয়, এমন কোনও প্রমাণ বুম পায়নি।

সরকারের যে ঋণ প্রকল্প রয়েছে, তার নাম 'প্রধানমন্ত্রী মুদ্রা যোজনা'। সেই প্রকল্পের অধীনে ঋণের পরিমাণের উপর নির্ভর করে তিনটি শ্রেণিতে ঋণ পাওয়া সম্ভব:

  • ৫০,০০০ টাকা অবধি ঋণের জন্য 'শিশু'
  • ৫০,০০০ টাকা থেকে ৫ লক্ষ টাকা অবধি ঋণের জন্য 'কিশোর'
  • ৫ লক্ষ থেকে ১০ লক্ষ টাকা অবধি ঋণের জন্য 'তরুণ'

যদিও এই প্রকল্পের জন্য ভারপ্রাপ্ত সংস্থা মুদ্রা জানিয়েছে যে, এটি একটি রিফাইন্যান্সিং কম্পানি। ঋণ পাওয়ার জন্য গ্রহীতাদের যে আবেদন করতে হয়, নথিপত্র জমা করতে হয়, তার পুরোটাই হয় ব্যাঙ্ক, এনবিএফসি বা ক্ষুদ্র ঋণ সংস্থার মাধ্যমে।

এই সম্বন্ধে বিশদে পড়া যাবে এখানে

এখন যে পোস্টটি ভাইরাল হয়েছে, ২০২০ এবং ২০২১ সালেও তেমনই কিছু পোস্ট ছড়িয়ে পড়েছিল। সেই সময় প্রেস ইনফর্মেশন ব্যুরো সোশ্যাল মিডিয়ায় মেসেজ করে জানিয়েছিল যে, এটি সরকারের কোনও প্রকল্প নয়। সেই টুইটগুলি দেখা যাবে এখানে এবং এখানে

ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্কও এর আগেই জানিয়েছিল যে, তারা প্রায় ৬০০টি অ্যাপের সন্ধান পেয়েছে, যা অননুমোদিত বা প্রিডেটরি লেন্ডিংয়ের সঙ্গে জড়িত, এবং তেমন অ্যাপ ব্যবহার না করার জন্য গ্রাহকদের সতর্ক করে দিয়েছিল।

আরও পড়ুন: না, ভাইরাল ভিডিওটি অযোধ্যায় হিন্দু রাষ্ট্রের জন্য কলস যাত্রার দৃশ্য নয়

Claim :   অ্যাপের দাবি ভরত সরকার লোন দেবে
Claimed By :  Facebook Page 'Pradhan Mantri' Yojana Loan
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.