হাইওয়েতে রুশ বিমানের জরুরি অবতরণ দাবিতে ভাইরাল ভিডিও গেমের দৃশ্য

বুম যাচাই করে দেখে রুশ বিমান অবতরণ বলে ভাইরাল হওয়া দৃশ্যটি জিটিএ-৫ নামে একটি ভিডিও গেমের অংশ।

ডিজিটাল উপায়ে তৈরি ভিডিও গেমের দৃশ্য (Video Game) গ্র্যান্ড থেফট অটো ৫'র একটি দৃশ্য হোয়াটসঅ্যাপ (Whatsapp) এবং সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করা হয়েছে। দাবি করা হয়েছে যে, একটি রুশ (Russian) বিমান মস্কো বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ (Emergency Landing) করতে না পেরে হাইওয়ের উপর অবতরণ করেছে, এই ভিডিওটিতে সেই দৃশ্য দেখা যাচ্ছে। দাবিটি ভিত্তিহীন।

ভিডিওটির ১ মিনিট ৪৬ সেকেন্ডের মাথায় একটি বিমানের ডানা থেকে ধোঁয়া বার হতে দেখা যায়, এবং বিমানটি ব্যস্ত হাইওয়ের উপর ক্র্যাশ ল্যান্ডিং করে।

ভিডিওটির সঙ্গে যে ক্যাপশন দেওয়া হয়েছে তার অনুবাদ, "কয়েক ঘণ্টা আগে মস্কোর শেরেমেটেয়েট বিমানবন্দরে জরুরি ল্যান্ডিং করতে না পেরে রুশ উড়ান এসইউ১৪৯২ হাইওয়ের উপর ক্র্যাশ ল্যান্ডিং করে। এই দূর্ঘটনায় ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং বহু যানবাহন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।"

ভিডিওটি দেখার জন্য ক্লিক করুন এখানে

ফেসবুকে ভাইরাল

এই একই ভিডিও একই দাবির সঙ্গে ফেসবুকেও শেয়ার করা হয়েছে।

বহু পাঠক এই ভাইরাল ভিডিওটি বুমের হেল্পলাইন নম্বরে (৭৭০০৯০৬১১১) পাঠিয়েছেন এবং ভিডিওটির সত্যতা সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন।

আরও পড়ুন: আলোকচিত্রী ছবি তুলছেন প্রধানমন্ত্রী মোদীর? বদলানো ছবি ভাইরাল

তথ্য যাচাই

ভিডিওটি ভাল করে লক্ষ করে আমরা দেখতে পাই যে, এটি আসলে একটি কম্পিউটার জেনারেটেড ইমাজেরি (সিজিআই) বা কৃত্রিম দৃশ্য। এই ভিডিওর দৃশ্যগুলি দেখে ভিডিও গেমের ক্লিপ মনে হওয়ায় আমরা 'জিটিএ ৫, প্লেন ল্যান্ডিং অন হাইওয়ে' এই কিওয়ার্ডগুলি দিয়ে সার্চ করি। তাতে এই গেমের কিছু দৃশ্য দেখতে পাই, যা ভাইরাল হওয়া ভিডিওর সঙ্গে মিলে যায়।

গ্র্যান্ড থেফট অটো ৫ (জিটিএ ৫) আসলে ২০১৩ সালে প্রকাশিত একটি অ্যাডভেঞ্চার ভিডিও গেম। গেমটি যিনি নিজে খেলছেন তার তরফ থেকে বা কোনও তৃতীয় ব্যক্তির পক্ষ থেকে খেলা যায়। এই গেমের ভার্চুয়াল পরিসরে ঘুরতে হয় পায়ে হেঁটে, বা কোনও যানবাহনে। গেমটির বিষয়বস্তুর কেন্দ্রে রয়েছে ডাকাতি, এবং গেমের মধ্যে এমন অনেক মিশন আছে যাতে সেই খেলার মধ্যে গুলি চালাতে হয়, বা গাড়ি চালাতে হয়।

নিচে দেওয়া ইউটিউব ভিডিওতে আমরা জিটিএ ৫-এ দেখানো একই দৃশ্য পর পর দেখতে পাই। ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে যে সেতুটি দেখা গেছে, সেটি লস সান্টোস শহরের। লস সান্টোস গ্র্যান্ড থেফট অটো ৫-এর একটি বড় শহর, যা সাদার্ন স্যান অ্যান্ড্রিজের কাছে অবস্থিত। লস সান্টোস আসলে ক্যালফর্নিয়ার লস অ্যাঞ্জেলেসের আদলে তৈরি।

নিচের ছবিতে সেতুটি দেখতে পাওয়া যাবে।

ভিডিওটি দেখার জন্য ক্লিক করুন এখানে

এই ভিডিওতে আমরা বিমানটিকে রাস্তার উপর দেখতে পাই ঠিক যেমনটা ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা গেছে।

ভিডিওটি দেখার জন্য ক্লিক করুন এখানে

ফুটেজটি যাচাই করতে গিয়ে বুম ভাইরাল হওয়া ভিডিওর দৃশ্যগুলি জিটিএ ৫ গেমের দৃশ্যের সঙ্গে মিলিয়ে দেখে। তাতে আমরা দেখতে যে, এই ভিডিওটি আসলেই ওই গেমের দৃশ্য। ভাইরাল ভিডিওতে যে বিমানটি দেখা যাচ্ছে সেটি গেমে টাইটান নামে পরিচিত।

হেলথকেয়ার অ্যানালিস্ট ও গেমিং এন্থুজিয়াস্ট হর্ষ ত্রিবেদী আমাদের একটি ভিডিও পাঠিয়েছেন, যাতে এই একই বিমান, সেতু এবং রাস্তা দেখা যাচ্ছে। ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে বিমান হাইওয়ের উপর ল্যান্ড করার দৃশ্যগুলি যে ভাবে পর পর দেখা যাচ্ছে, ঠিক সেই ভাবেই এই গেমেও দেখা গেছে। গেমে দেখা গেছে যে, এক জন ইউজার বিমানটির দখল নিচ্ছে, এবং তার পর সেটিকে উড়িয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

ছবি সৌজন্য : হর্ষ ত্রিবেদী

গেমের দৃশ্য এবং ভাইরাল ভিডিওর দৃশ্য মেলাতে গিয়ে আমরা দেখতে পাই দুটি মিলে যাচ্ছে।

বুম ভিডিও গেমটির নির্মাতা রকস্টার গেমসের সঙ্গে এ-মেইলের মাধ্যমে যোগাযোগ করেছে। তাদের কাছ থেকে উত্তর এলেই তা এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে।

ভাইরাল ভিডিওটি ইউটিউব চ্যানেল এমসিজি-মোবাইল নামে একটি গেমিং চ্যানেল আপলোড করে, সঙ্গে ক্যাপশন দেওয়া হয় যে এটি 'বিনোদনের উদ্দেশ্যে বানানো হয়েছে'। সেখানে বহু ইউজার জানিয়ে দেন যে, দৃশ্যটি একটি ভিডিও গেমের।

ক্যাপশনে লেখা হয়, "প্রায় দু ঘণ্টা আগে মস্কোর শেরেমেটেয়েট বিমানবন্দরে আপৎকালীন আবতরণ করতে না পেরে রাশিয়ান ফ্লাইট এসইউ১৪৯২ হাইওয়ের উপর ক্র্যাশ ল্যান্ডিং করে। এই দূর্ঘটনায় ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং বহু যানবাহন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিনোদনের জন্য তৈরি।"

সত্যি ঘটনা থেকে অনুপ্রাণিত ভুয়ো ক্যাপশন

ভাইরাল হওয়া ক্যাপশনে যে 'ফ্লাইট এসইউ১৪৯২-এর উল্লেখ করা হয়েছে, তা আসলে রাশিয়ার ২০১৯ সালের মে মাসের একটি ঘটনা। এরোফ্লট ফ্লাইট ১৪৯২ যাত্রী নিয়ে মস্কোর শেরেমেটয়েভো থেকে মারমান্সক যাচ্ছিল। সেই সময় ফ্লাইটটি মস্কোর শেরেমেটেয়েভো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করতে বাধ্য হয়।

২০১৯ সালের মে মাসে যাত্রা শুরু করার পর সুখোই সুপেরজেট ১০০'র উপর বাজ পড়ে, ফলে ওই বিমানে বৈদ্যুতিন গোলযোগ ঘটে। তখন সুখোই সুপেরজেট ১০০ জরুরি অবতরণের জন্য শেরেমেটেয়েভে ফিরে আসে। অবতরণের সময় বিমানটি খুব জোরে নেমে আসে, ফলে গিয়ার কাজ করা বন্ধ করে দেয় আর জ্বালানির ট্যাঙ্ক ফেটে যায়। তাতে বিমানের ডানায় আগুন ধরে যায়। এই দুর্ঘটনায় ৭৮ জন যাত্রীর মধ্যে ৪১ জন মারা যান।

২০২০ সালের ৫ এপ্রিল এরোটাইমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুসারে রুশ কর্তৃপক্ষ এরোফ্লট ফ্লাইট ১৪৯২-র ২০১৯ সালের ৫ মে তারিখের এই দুর্ঘটনার একটি ভিডিও প্রকাশ করে যাতে আগুন ধরা অবস্থায় সুপারজেট ১০০ বিমানটিকে অবতরণ করতে এবং যাত্রীদের বার করে আনতে দেখা যায়।

২০২০ সালের ১৫ এপ্রিল ইনভেস্টিগেটিভ কমিটি অব রাশিয়া (আইসি) ভিডিওটি ইউটিউবে আপলোড করে। কর্তৃপক্ষ জানায় যে, তদন্ত শেষ হয়েছে, এবং এরোফ্লট ফ্লাইট ১৪৯২-র ক্যাপ্টেনের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ইনভেস্টিগেটিভ কমিটি অব রাশিয়া দেশের ফৌজদারি বিধিভঙ্গ, ও ট্রাফিক নিরাপত্তা নিয়ম লঙ্ঘন, এবং বিমান চালানোর সময় অবহেলার ফলে যাত্রীদের মৃত্যু ও গুরুতর শারীরিক ক্ষতি ঘটানোর দায়ে বিমানচালক ডেনিস এভডোকিমভকে দোষী সাব্যস্ত করে।

নিচে ঘটনাটির ভিডিও দেখতে পাওয়া যাচ্ছে। তবে এখানে যে ক্রম অনুসারে ঘটনাগুলি ঘটতে দেখা যাচ্ছে তার সঙ্গে জিটিএ ৫ গেমের ভাইরাল হওয়া ভিডিওর দৃশ্যের সঙ্গে মেলে না।

আরও পড়ুন: ধর্ষণে অভিযুক্তকে গণপ্রহারের ভিডিও মিথ্যে সাম্প্রদায়িক দাবিতে ভাইরাল

Updated On: 2021-10-01T11:44:35+05:30
Claim Review :   রুশ বিমান এসইউ১৪৯২ জরুরি অবতরণের দৃশ্য
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story