রাস্তায় আজানের পুরনো ভিডিও ছড়াল লাউড স্পিকার রদ প্রসঙ্গে

বুম দেখে ভাইরাল ভিডিওটি পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া শহরে ২০২০ সালের এপ্রিলের ঘটনা।

পশ্চিমবঙ্গের (West Bengal) হাওড়া জেলায় ২০২০ সালে রাস্তায় দাঁড়িয়ে আজান দেওয়ার একটি ভিডিও-চিত্রকে শেয়ার করে ভুয়ো দাবি করা হচ্ছে যে, এটি আসলে মসজিদে লাউডস্পিকার ব্যবহারের বিরুদ্ধে কয়েকটি রাজনৈতিক দলের সাম্প্রতিক দাবির প্রতিবাদ। কিছু পোস্টে আবার ঘটনাটিকে মহারাষ্ট্রের (Maharashtra) মুম্বই শহরের ঘটনা বলেও মিথ্যে দাবি করা হয়েছে।

ভাইরাল ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, এক দল লোক রাস্তায় দাঁড়িয়ে চিত্কার করে আজান দিচ্ছে। 'সুদর্শন নিউজ' নামের এক দক্ষিণপন্থী চ্যানেল ভিডিওটি টুইট করে ক্যাপশন দিয়েছেঃ "যদি লাউডস্পিকার বন্ধ করে দেওয়া হয়, তাহলে এটাই একমাত্র রাস্তা? অর্থাত্ তোমরা কোনও আইনই মানবে না?"

বুম অবশ্য অতীতেও 'সুদর্শন নিউজ'-এর অনেক ভুয়ো প্রতিবেদনের পর্দাফাঁস করেছে।


পোস্টটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

ভিডিওটিকে অনেকে মহারাষ্ট্রের মুম্বই-এর ঘটনা বলেও শেয়ার করছে এবং দাবি করছে, মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনার নেতা রাজ ঠাকরে মসজিদে মাইক বা লাউডস্পিকারের ব্যবহার নিষিদ্ধ করার যে দাবি করেছেন, এই ভিডিও-দৃশ্যের মাধ্যমে তার প্রতিবাদও করা হচ্ছে।


এই পোস্টটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

আরও পড়ুন: ঐশী ঘোষের কপালে উধাও দাগ ভুয়ো দাবিতে ছড়াল সম্পাদনা করা ছবি

তথ্য যাচাই

বুম দেখে ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি মুম্বইয়ের কোনও ঘটনা নয়, এমনকি সাম্প্রতিক ঘটনাও নয়, বরং এটি পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া জেলার ঘটনা, যার ছবি ২০২০ সালের এপ্রিল মাসে তোলা হয়েছিল।

ভিডিওর দৃশ্যে বাংলায় লেখা সাইনবোর্ড জ্বলজ্বল করছে। আর সেটাকে সূত্র ধরেই আমরা কিছু মূল শব্দ বসিয়ে খোঁজ করে ফেসবুক-এ এই ভিডিওটি আপলোড হয়েছে দেখি ২০২০ সালের এপ্রিল মাসে।

যে-দোকানের সাইনবোর্ডটি দেখা যাচ্ছে, সেটি হলো 'সিমলা বিরিয়ানি' —বাংলা এবং ইংরেজি, দুই ভাষাতেই লেখা।


পোস্টটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

পাশাপাশি আমরা ভিডিওর দৃশ্যে কয়েকজনকে দেখতে পাচ্ছি মুখে মাস্ক পরা অবস্থায়, ২০২০ সালে কোভিড-১৯-এর প্রাদূর্ভাবের পরই যার বহুল ব্যবহার শুরু হয়।


৭ এপ্রিল, ২০২০ পোস্ট করা অন্য একটি ভিডিওর স্পষ্টতর ছবিতে আমরা 'ডাঃ এন রাই' এবং 'ইয়াসিকা স্টোর্স' নামের দুটি দোকানের সাইনবোর্ডও দেখতে পাচ্ছি।




একটি গাঢ় নীল রঙের সাইনবোর্ডও ছবির ডান দিকে দেখা যাচ্ছে এবং ম্যাপমাইইন্ডিয়া মারফত ৩টি ছবিই পরীক্ষা করে আমরা নিঃসন্দেহ হই যে ওই নীল সাইনবোর্ডটি কানাড়া ব্যাংকের প্রতীক।


পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া শহরের জিটি রোডের ম্যাপমাইইন্ডিয়া খুঁজলে এই ৩টি দোকান বা বাড়িই চিহ্নিত করা দেখতে পাওয়া যাবে, যা থেকে স্পষ্ট, ভাইরাল ভিডিওর দৃশ্যটি মুম্বইয়ের নয়, পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া শহরের।


ম্যাপমাইইন্ডিয়ার গ্রাফিক্সটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

বুম স্বাধীনভাবে এই ভিডিওটির ঘটনার সত্যতা যাচাই করে উঠতে পারেনি। তবে সোশাল মিডিয়ার ভাইরাল পোস্টের দাবি অনুযায়ী ঘটনাটি যে সাম্প্রতিক নয়, বরং ২ বছর আগেকার এবং ঘটনাস্থলও যে মহারাষ্ট্রের মুম্বই নগরী নয়, পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া শহর, এ ব্যাপারে নিশ্চিত হতে পেরেছে।

আরও পড়ুন: মিথ্যে সাম্প্রদায়িক দাবিতে ছড়াল বাংলার সিএএ-বিরোধী বিক্ষোভের পুরনো দৃশ্য

Claim :   সাম্প্রতিক ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে মসজিদে লাউডস্পিকারের ওপর নিষেধাজ্ঞার আহ্বানের প্রতিক্রিয়ায় মুসলমানরা রাস্তায় আজান পাঠ করছেন
Claimed By :  Sudarshan TV
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.