গায়িকা Caralisa Monteiro এর 'হিন্দু মুক্ত ভারত' লেখা ভুয়ো টুইট ভাইরাল

বুম দেখে সঙ্গীত শিল্পী কারালিসা মন্তেইরো'র নামে ভাইরাল হওয়া টুইটি ভুয়ো, এ নিয়ে তিনি পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

বলিউড সঙ্গীত শিল্পী কারালিসা মন্তেইরো (Caralisa Monteiro)-এর একটি ভুয়ো টুইট (Fake Tweet) সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করে দাবি করা হয়েছে, তিনি নাকি বলেছেন প্রতিমুহূর্তে একজন হিন্দু মারা গেলে তিনি চরম সুখ অনুভব করেন। তিনি ওই টইটে আরও বলেছেন, "মোদী হয়ত কংগ্রেস মুক্ত ভারতের স্বপ্ন দেখেন কিন্তু আমার শীঘ্রই হিন্দু মুক্ত ভারত পাবো! আমিন।"

বুম যাচাই করে দেখে কারালিসা মন্তেইরো-এর এই টুইটটি ভুয়ো। কারালিসা এই সম্পাদনা করা টুইটের স্ক্রিনশট ছড়ানোর নিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সঙ্গীত শিল্পী কারালিসা সোশাল মিডিয়ায় বেশ সক্রিয়ভাবে একাধিক বিষয়ে প্রতিষ্ঠান বিরোধী মতামত প্রকাশ করেন। ভারতে চলতে থাকা কৃষক বিক্ষোভ নিয়েও মন্তেইরো টুইটারে বেশ সরব।
সম্প্রতি পপ মার্কিনী তারকা রিহানা (Rihanna), আন্তর্জাতিক পরিবেশকর্মী গ্রেটা থুনবার্গ (Greta Thunberg) সহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ব্যক্তিত্ব কৃষক বিক্ষোভে রাশ টানতে ভারত সরকারের ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা ও দমন পীড়ন নীতি নিয়ে সরব হন। তাঁদের টুইট নিয়ে রাজনৈতিক চাপানউতোর শুরু হয়। রিহানা, গ্রেটা, মিয়া খালিফাদের (Mia Khalifa) টুইটের প্রতিক্রিয়ায় ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের তরফে বিবৃতি জারি করে বলা হয় কৃষক বিক্ষোভের বিষয়টি ভারতের আভ্যন্তরীণ ব্যাপার।
ভাইরাল হওয়া স্ক্রিনশটটিতে দেখা যায় কারালিসা মন্তেইরো ১ জানুয়ারি ২০২১ দুপুর ১২ টার সময় ওই টুইট করেছেন। টুইটটিতে ইংরেজিতে লেখা হয়েছে
"প্রতিটি হিন্দুর মৃত্যু আমাকে চরম তৃপ্তি দেয়। মোদী হয়ত কংগ্রেস মুক্ত ভারতের স্বপ্ন দেখেন কিন্তু আমার শীঘ্রই হিন্দু মুক্ত ভারত পাবো! আমিন।" ওই টুইটে কারালিসা কোট করেছেন ২০১৬ সালের ২০ ডিসেম্বরের আমআদমি দলের টুইট যেখানে ক্যারোলিসাকে গোয়ার ভোটে রাজনৈতিক মতামত প্রকাশ করতে দেখা যায়।
(মূল ইংরেজিতে ক্যারালিসার টুইট: Every time a Hindu is killed, I get orgasmic pleasure. Modi might dream Congress Mukt Bharat, but we will get Hindu Mukt India soon. Amen!)
ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ওই টুইটের স্ক্রিনশট সহ পোস্ট দেখা যাবে
এখানে
, পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে
বুম দেখে হিন্দিতেও একই ছবি সহ ফেসবুকে পোস্ট করা হয়েছে। এরকম একটি পোস্ট আর্কাইভ করা আছে এখানে

তথ্য যাচাই

বুম দেখে গায়িকা কারালিসা মন্তেইর'র 'হিন্দু মুক্ত ভারত' গড়ার আশ্বাস দেওয়া টুইটটি ভুয়ো, সম্পাদনা করা। বুম টুইটারে এই নিদৃষ্ট টুইটকেও খুজেঁ পায়নি।
বুম তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্টে অ্যাডভান্সড কিওয়ার্ড সার্চ করে দেখে ১ জানুয়ারি ২০২১ থেকে ২ জানুয়ারি ২০২১ সময় পর্বে তিনি মাত্র দুটি টুইট করেন। সেখানে ভাইরাল হওয়া টুইটটি দেখা যায়নি। ওই দিন তিনি মহারাষ্ট্রের এক গ্রাম পঞ্চায়েত এর গণধর্ষণের শিকার হওয়া এক মহিলাকে বয়কট করার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তিনি টুইট করেন।

বুম ভাইরাল হওয়া টুইটটির ছবিতে নানা অসঙ্গতি খুঁজে পায়।

বুম টুইটারের আসল ইন্টার্ফেসের সাথে ভাইরাল টুইটের বেশকিছু অসামঞ্জস্য খুজেঁ পায়।
টুইটের ঠিক নিচে রিটুইট, কোট টুইট ও লাইকের সংখ্যা উল্লেখ থাকে। তিনি যদি ওই টুইট করেন ভাইরাল হওয়া টুইটে লাইক ও রিটুইটের সংখ্যার হিসেব থাকতো। বিভিন্ন সময়ে স্ক্রিনশট নেওয়া হলে সেই লাইক ও রিটুইট সংখ্যার তারতম্য হওয়া উচিত। এক্ষেত্রে ভাইরাল টুইটে কেউ লাইক ও রিটুইট করেননি। ক্য়ারোলিনার ৩৭ হাজারের বেশি অনুগামী রয়েছে টুইটারে। সেক্ষেত্রে আর কেউ সে টুইটের ছবি তুললেন না!
টুইট করার সময় টুইটার ক্লায়েন্টের নাম উল্লেখ থাকে টুইটে। যেমন অ্যান্ডোয়েড, আইফোন, ওয়েব বা অন্যকোনও সফটওয়্যার থেকে করা হলে তার নাম উল্লেখ থাকে কিন্তু কারালিসার নামে তৈরি করা ভুয়ো টুইটে সেসব তথ্যের উল্লেখ নেই।
নিচে সম্পাদনা করা ভাইরাল ভুয়ো টুইট (বাম দিকে) এবং আসল নমুনা টুইটের (ডান দিকে) মধ্যে অসামঞ্জস্য গুলির তুলনা করা হল।
৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ মন্তেইরো টুইটার কর্তৃপক্ষ, মুম্বই পুলিশ এবং মুম্বই পুলিশ কমিশনারের হ্যন্ডেল ট্যাগ করে ভুয়ো টুইটটি নিয়ে সতর্ক করে লিখেন, "এটি একটি ভুয়ো টুইট, রিপোর্ট করা হবে। এই ভাষা আমি ব্যবহার করি না এবং আমি এভাবে কথা বলি না। আমি এই নিয়ে প্রথামাফিক অভিযোগ করব।"
৫ ফেব্রুয়ারি টুইট করে মন্তেইরো বলেন এই ভুয়ো টুইট নিয়ে তিনি মামলা দায়ের করেছেন।
Updated On: 2021-02-08T18:50:45+05:30
Claim Review :   কারালিসা মন্তেইরো টুইট করে হিন্দু মুক্ত ভারতের কথা বলেছে
Claimed By :  Social Media Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story