প্ল্যাকার্ড হাতে Suvendu Adhikari এর এই ভাইরাল ছবিটি ফোটোশপ করা

বুম দেখে ২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ বারুইপুরের সভায় শুভেন্দু অধিকারীর হাতের প্ল্যাকার্ডে ছিল কাশীকর্ণ ব্যাঙ্কের 'পেমেন্ট স্লিপ'

বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari) বারুইপুরের সভায় দেখানো থাইল্যান্ডের কাশীকর্ণ ব্যাঙ্কে টাকা জমা দেওয়ার প্রমাণ হিসেবে দেখানো "পেমেন্ট স্লিপের" প্ল্যাকার্ড (Placard) হাতে ছবিকে সম্পাদনা (edited image) করে বিভ্রান্তিকর দাবি সহ শেয়ার করা হচ্ছে। ফোটোশপ করে প্ল্য়াকার্ডটিতে লেখা হয়েছে, ''৯ বছর খেয়ে মধু এখন আমি হয়েছি সাধু।''

বুম দেখে আসল প্ল্যাকার্ডটিতে কাশীকর্ণ ব্যাঙ্কে টাকা জমানোর প্রমাণ বলে শুভেন্দু অধিকারী কটাক্ষ করেন তৃণমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Abhishek Banerjee) স্ত্রী রুজিরা নারুলাকে (Rujira Narula)।

পশ্চিমবঙ্গে ২০২১ সালের বিধানসভা ভোট যত এগিয়ে আসছে রাজনৈতিক বক্তব্যে কখনও নাম করে অথবা নাম না করে সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে প্রায়শই আক্রমণের পথে যাচ্ছেন শুভেন্দু। অন্যদিকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বক্তব্যে থেমে না থেকে আইনি নোটিশ পাঠান শুভেন্দুকে। শুভেন্দু অধিকারী সেই আইনি নোটিশের প্রেক্ষিতে পাল্টা আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে। দক্ষিণবঙ্গের একদা প্রভাবশালী রাজনীতিক শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও বিজেপি নেতা অমিত শাহের উপস্থিতিতে বিজেপিতে যোগ দেন। দল পরিবর্তনের আগে একাধিক সরকারী পদ, পরিবহন মন্ত্রী ও বিধায়কের পদ থেকে ইস্তফা দেন। পরিবারতন্ত্রের অভিযোগ তুলে একাধিক বিষয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে একাধিক বিষয়ে মতানৈক্যের কারণে দল ছাড়েন তিনি। তারপর থেকেই তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে সরব তিনি।

ভাইরাল হওয়া ছবিটিতে দেখা যায় জনসভায় বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর হাতে ধরা একটি প্ল্যাকার্ডে লেখা রয়েছে,''৯ বছর খেয়ে মধু এখন আমি হয়েছি সাধু'' ফেসবুক ব্যবহারকারী ওই ছবিটিতে কটাক্ষ করেছেন শুভেন্দু অধিকারীকে।

ছবিটি ফেসবুকে ব্যঙ্গাত্মকভাবে শেয়ার করে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, ''চোর চোর চোরটা কাঁথি র ভাইপো তলাবাজটা''

পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

ছবিটি ফেসবুকে বিভিন্ন বিজেপি বিরোধী পেজে শেয়ার করেছে।

আরও পড়ুন: শুভেন্দু-আব্বাস সিদ্দিকির গোপন আঁতাত? ভাইরাল হল ভুয়ো ছবি

তথ্য যাচাই

বুম দেখে শুভেন্দু অধিকারীর হাতে ভাইরাল প্ল্যাকার্ডের ছবিটি ভুয়ো। মূল ছবিতে শুভেন্দু কাশীকর্ণ 'ব্যাঙ্কের পেমেন্ট স্লিপ' সহ প্ল্যাকার্ড দেখান।

বুম 'তোলাবাজ' 'শংসাপত্র' প্রভৃতি কিওয়ার্ড সার্চ করে একই ভঙ্গিমায় শুভেন্দু অধিকারীর প্ল্যাকার্ড ধরা ছবিটি খুঁজে পায়। এরকম দুটি পোস্ট আর্কাইভ করা আছে এখানেএখানে

বুম ভাইরাল ছবির পিছনের অংশ ও শুভেন্দুর পোশাকের সঙ্গে শুভেন্দু অধিকারীর ফেসুবুক পেজে ২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ হওয়া লাইভের ভিডিও ক্ষতিয়ে দেখে। সেদিন দক্ষিণ ২৪ পরগণার বারুইপুরে ভারতীয় জনতা পার্টির বিশাল জনসভা ও যোগদান মেলা ছিল।

এই সভায় বক্তব্য রাখার সময় শুভেন্দু হাতে প্ল্যাকার্ডটি তুলে ধরেন। ওই ফেসবুক লাইভের ৪ : ৩২ সময়ের পর শুভেন্দু বলেন, "আমিতো সেদিন বলেছিলাম, যে কয়লার লালার টাকা কোথায় কোথায় যায়। থাইল্যান্ডে যায়। থাইল্যান্ডে রাজধানী ব্যাঙ্ককে যায়। কাশিকর্ণ ব্যাঙ্কের শাখাতে যায়। সেদিন বলেছিলাম না তমলুকে দেখাবো এই যে। কয়লার টাকা কোথা যায় আমি নিয়ে এসেছি প্রমাণটা। আমাদের টাকাকে ওরা ভাট বলে। দেখুন। এর পর বলতে হবে তোলাবাজটা কে? প্রেসের জন্য নিয়ে এসছি কপি দিয়ে দিব। ভালো করে স্টাডি করুন। ম্যাডাম নারুলাটা কে?"

শুভেন্দুর হাতে ধরা আসল প্ল্যাকার্ড। প্ল্যাকার্ডটি একটি পেমেন্ট স্লিপের। তাতে ইংরেজিতে লেখা "মিসেস রুজিরা নারুলা।"

বারুইপুরে শুভেন্দুর সভা নিয়ে ৩ জানুয়ারি ২০২১ প্রকাশিত আনন্দবাজার পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন পড়া যাবে এখানে। ওই প্রতিবেদনে বিষয়টি নিয়ে তৃণমূল সাংসাদ কল্যান বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য প্রকাশ করা হয়েছে।

২৫ জানুয়ারি ২০২১ তমলুকের সভায় শুভেন্দু অধিকারী নিজের মোবাইলে থাকা নথি দেখিয়ে বলেন, "ওই অ্যাকাউন্টে মাসে ৩৬ লক্ষ টাকা করে ঢুকছে।" বিষয়টি নিয়ে এই সময় ও আনন্দবাজার এর প্রতিবেদন পড়া যাবে এখানেএখানে

কাশীকর্ণ ব্যাঙ্কের ওয়েবসাইট অনুযায়ী এটি থাইল্যান্ড স্থিত ব্যাঙ্ক। বুম এই "পেমেন্ট স্লিপ"-এর ছবি ও শুভেন্দু অধিকারীর বক্তব্যের সত্য়তা যাচাই করেনি।

আরও পড়ুন: BJP Bengal ছড়াল Mamata Banerjee-র ইসলামি স্তোত্র পাঠের কাটছাঁট ভিডিও

Updated On: 2021-02-04T16:35:11+05:30
Claim Review :   ছবির দাবি শুভেন্দু অধিকারীর হাতে প্ল্যাকার্ড—৯ বছর খেয়ে মধু এখন আমি হয়েছি সাধু
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story