BJP Bengal ছড়াল Mamata Banerjee-র ইসলামি স্তোত্র পাঠের কাটছাঁট ভিডিও

ভিডিওটি এই দাবি সহ ছড়ানো হচ্ছে যে, মুখ্যমন্ত্রী ইসলামিক পাঠে স্বচ্ছন্দ্য কিন্তু জয় শ্রীরাম অভ্যর্থনায় তাঁর আপত্তি।

শনিবার নেতাজির জন্মদিনে কলকাতার ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে ভারত সরকার আয়োজিত অনুষ্ঠানে জয় শ্রী রাম ধ্বনিকে ঘিরে রাজনৈতিক বিতর্কের রেশ কাটতে না কাটতেই, বিজেপি বাংলার তরফে কাঁটছাঁট করা ভিডিও পোস্ট করে অভিযোগ করা হল মুসলিম তোষণের জন্য মুখ্যমন্ত্রী ইসলামিক প্রার্থনা স্তোত্রে স্বচ্ছন্দ্য কিন্তু হিন্দু স্লোগান জয় শ্রী রাম-এ তাঁর আপত্তি।

বুম দেখে ভাইরাল ভিডিওটি ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) ওই বক্তব্য রাখেন পশ্চিমবঙ্গ সরকার আয়োজিত পূর্ব বর্ধমানের মাটি উৎসবে। মূল ভিডিওটিতে মুখ্যমন্ত্রীকে হিন্দু, ইসলাম, খ্রিষ্টান ও শিখ ৪ ধর্মের স্তোত্র উচ্চারণ করতে দেখা যায়।

ভিক্টোরয়া মেমোরিয়ালে আয়োজিত শনিবারের ওই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখার জন্য পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম ঘোষণা করা হলে মুহুর্মুহু জয় শ্রী রাম ধ্বনি দেয় দর্শকাসনে থাকা বিজেপি সমর্থকদের একাংশ।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হাতে মাইক ধরেই বলেন, ''না আমার যেটা মনে হয় সরকারি অনুষ্ঠানের মর্যদা থাকা উচিত। এটি সরকারের অনুষ্ঠান কোনও রাজনৈতিক দলের অনুষ্ঠান নয়। সব রাজনৈতিক দলের ও জনগণের অনুষ্ঠান। আমি কৃতজ্ঞতা জানায় প্রধানমন্ত্রী ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়কে এই জন্য যে আপনারা কলকাতায় অনুষ্ঠান করছেন। কিন্তু কাউকে নিমন্ত্রণ-আমন্ত্রণ করে তাকে 'বেইজ্জত' করা শোভা দেয়না। আমি আবার আপনাদের বলব এর প্রতিবাদ স্বরূপ আমি কিছু বলছি না। জয় হিন্দ, জয় বাংলা।''

এর পর অবশিষ্ট ওই অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ও রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর সঙ্গ দিলেও বক্তব্য পেশ করা থেকে বিরত থাকেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ঘটনার নিন্দা করে মুখ্যমন্ত্রীর পাশে দাঁড়িয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপত অধীর রঞ্জন চৌধুরি ও সিপিইআইএম নেতা মহঃ সেলিম। রাজনৈতিক বিরোধিতা থাকলেও এই ঘটনা নিয়ে বিবৃতি দেন তাঁরা।

রবিবার সকালে বিজেপি বাংলার তরফে ফেসবুক ও টুইটারে ১১ সেকেন্ডের ভিডিও পোস্ট করা হয়। ওই ভিডিওটিতে মুখ্যমন্ত্রীকে বলতে শোনা যায়, ''আমরা আল্লার কাছে দোয়া করে বলি ইনশাল্লা, আল্লাাতালা সকলকে ভালো রাখো আল্লা। লা ইলাহা ইল্লাললা মহাম্মদ রাসুল ইল্লা। সকলকে ভালো রেখো আল্লা।''

ফেসবুকে বিজেপি বাংলার ফেসবুক পেজে ভিডিওটি পোস্ট করে লেখা হয়, ''বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যদি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কোনো অনুষ্ঠানে ইসলামিক নামাজ পড়তে পারেন. তবে জয় শ্রী রাম ধ্বনি ঘিরে তাঁকে অভিবাদন জানালে কেন এত সমস্যা? তোষণ? তিনি নেতাজির বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠআনে তাঁর কৃত আচরণ দ্বারা নেতাজি সহ তাঁর উত্তরাধিকারীদের অপমান করেছেন।''

পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

ইংরেজিতে একই বক্তব্য সহ ভিডিওটি পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজিপি টুইট করে।

টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ওই ইসলামিক স্তোত্রের একই ভিডিও আরও অন্যান্য নেটিজেনরা সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন।

টুইটটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

আরও পড়ুন: রাজস্থানে শিশু খুনের ভিডিও, শিশু অপহরণের ঘটনা বলে ভাইরাল

তথ্য যাচাই

বুম ২০১৯ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি এই একই ভিডিওর তথ্য-যাচাই করেছিল।

বুম যাচাই করে দেখে এই ভাইরাল বক্তব্যটি একটি পূর্ণ দৈর্ঘ্যর বক্তব্যের অংশ; মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে ওই বক্তব্য রাখেন পশ্চিমবঙ্গ সরকার আয়োজিত পূর্ব বর্ধমানের মাটি উৎসবে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলার প্রধান প্রধান ধর্মগুলির প্রার্থনার কথা বলে ২৫ মিনিট দীর্ঘ ওই বক্তব্য শেষ করেন।

২১ মিনিট ৩৫ সেকেন্ড সময়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বলতে শোনা যায়, মা চন্ডি মন্ত্র ও দুর্গা স্তোত্র— 'সর্ব মঙ্গলায় মঙ্গলায়'। তারপর তিনি ইসলাম এর কথা বলেন যখন সবার সুস্বাস্থ্য ও সমৃদ্ধি প্রার্থনা করা হয় আল্লাহর কাছে। ভাইরাল হওয়া কাটছাঁট করা ভিডিও যা বিজেপি বাংলা টুইট করেছে তা ২২ মিনিট ৫ সেকেন্ড থেকে কেটে নেওয়া। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তারপর ভগবানের কাছে প্রার্থনা করেন এবং সবার সুস্থ্যতা কামনা করে খালসা প্রর্থনা বলেন, ''ওহে গুরুজি দা খালসা ওহে গুরু দি ফাতেহ। ভিডিওটির সবার শেষে মমতা বলেন, 'সারে জাহান সে আচ্ছা হিন্দুস্থান হামারা।''

নিচে দেখুন মূল ভিডিওটি।

Updated On: 2021-01-24T18:48:00+05:30
Claim Review :   ভিডিওর দাবি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-এর ইসলামিক ধ্বনিকে স্বাগত জয় শ্রী রাম ধ্বনিতে বিরক্তি
Claimed By :  BJP Bengal, Social Media
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story