সম্পর্কহীন ভিডিও জুড়ে ভুয়ো দাবি করা হল রিপাবলিক টিভির বিরুদ্ধে

বুম যাচাই করে দেখে ভাইরাল ভিডিওটি রাকেশ টিকায়েতের দুটি আলাদা ভিডিও জুড়ে তৈরি করা হয়েছে।

কৃষক নেতা রাকেশ টিকায়েতের (Rakesh Tikait) দুটি আলাদা ভিডিও এক সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে এবং সেটি অনলাইনে শেয়ার করা হচ্ছে। সঙ্গের বিভ্রান্তিকর ক্যাপশনে দাবি করা হয়েছে যে, সংবাদ চ্যানেল রিপাবলিক ভারত (Republic Bharat) টিভির এক মহিলা সাংবাদিক টিকায়েতের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছেন।

বুম যাচাই করে দেখে ভিডিওগুলি আসলে দু'টি আলাদা ঘটনার এবং ওই ভিডিওতে যে দাবি করা হচ্ছে তা মিথ্যে।

১ ডিসেম্বর দিল্লি-উত্তরপ্রদেশ সীমান্তে প্রতিবাদস্থলে ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়নের জাতীয় মুখপাত্র রাকেশ টিকায়েতকে রিপাবলিক ভারত টিভির এক সাংবাদিকের উপর রেগে যেতে দেখা যায়। ২ ডিসেম্বর প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন অনুসারে এক সাংবাদিক যখন প্রশ্ন করেন যে গাজিপুর সীমান্তে এখনও প্রতিবাদ চালিয়ে যাওয়ার পিছনে তাঁর উদ্দেশ্য কী, তখন কৃষক নেতা রেগে ওঠেন। লোকমতে প্রকাশিত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয় টিকায়েত ওই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে 'তাঁকে অভব্য ভাবে স্পর্শ' করার অভিযোগ করেন। এই পরিপ্রেক্ষিতে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে এক মহিলা সাংবাদিক টিকায়েতের কাঁধে হাত দিয়ে তাঁর সাক্ষাৎকার নেওয়ার চেষ্টা করছেন। একটু পরেই দেখা যায় যে টিকায়েত এক সাংবাদিকের উপর চিৎকার করছেন, "উনি আমায় শারীরিক ভাবে স্পর্শ করছেন। এটা অন্যায়। দূর হোন।" টিকায়েত ও সেই সাংবাদিকের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হতেও দেখা যায়। ফেসবুকে এই ক্লিপটি বিভ্রান্তিকর ক্যাপশন সমেত শেয়ার করা হয়েছে।

এই ক্লিপসমেত ফেসবুক পোস্টের সঙ্গে হিন্দিতে লেখা একটি ক্যাপশন দেওয়া হয়েছে, "আর ভারতের মহিলা সাংবাদিক টিকায়েতের সঙ্গে অভব্য আচরণ করলেন। টিকাইত প্রচণ্ড রেগে গেলেন!"


পোস্টটি দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন।

ভিডিওটি ইংরেজিতে লেখা ক্যাপশনের সঙ্গেও শেয়ার করা হয়েছে। ভিডিওটির উপর লেখা হয়েছে, "সাংবাদিকতার হাল: রিপাবলিক ভারত টিভির মহিলা সাংবাদিক কী ভাবে কৃষক নেতা রাকেশ টিকায়েতের বদনাম করার চেষ্টা করছেন। কিন্তু টিকায়েত সতর্ক ছিলেন বলে তার এই প্রচেষ্টা বৃথা গেল, এবং এই অপচেষ্টা প্রকাশ্যে চলে এল।" এই পোস্টের সঙ্গে যে ক্যাপশন দেওয়া হয়েছে, তাতে লেখা হয়েছে, 'এই হল রিপাবলিক ভারত'।


পোস্টটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

আরও পড়ুন: কৃষকদের টমাটো ফেলে দেওয়ার পুরনো ভিডিও জোড়া হল কৃষি আইনের সঙ্গে

তথ্য যাচাই

বুম ভিডিওটি খুব মনযোগ সহকারে লক্ষ করে, এবং দেখতে পায় তাতে দুটি আলাদা ঘটনার ভিডিও দেখা যাচ্ছে। সাংবাদিক টিকায়েতের কাঁধে হাত দিয়েছেন কিছু প্রাসঙ্গিক শব্দ দিয়ে বুম কিওয়ার্ড সার্চ করে এবং ২০২০ সালের ৩০ ডিসেম্বর শেয়ার করা একটি টুইট দেখতে পায়। ওই টুইটে এখন ভাইরাল হওয়া ভিডিও ক্লিপের একটি লম্বা ভার্সন দেখতে পাওয়া যায়।

ভিডিওতে পরিষ্কার দেখা যাচ্ছে, যে মহিলা সাংবাদিক টিকায়েতের কাঁধে হাত রেখেছেন তাঁর হাতে জি টিভির মাইক দেখা যাচ্ছে।

এই সূত্র ধরে আমরা আরও কিওয়ার্ড সার্চ করি এবং দেখতে পাই যে, নিউজ ইন্ডিয়া ২৪-এর ইউটিউব চ্যানেলে এই একই ভিডিও আপলোড করা হয়েছিল। হিন্দিতে লেখা ওই ভিডিওটির শিরোনামের অনুবাদ, "জি নিউজের মহিলা সাংবাদিক টিকায়েতের সঙ্গে যা করলেন, তাতে সকলেই স্তম্ভিত।" ভিডিওটি ২০২০ সালের ৩১ ডিসেম্বর আপলোড করা হয়।

(হিন্দি: Rakesh Tikait के साथ Zee News की Lady Reporter ने कर दी ऐसी हरकत, सब हुए हैरान !)

ভাইরাল হওয়া ক্লিপে দ্বিতীয় ভিডিওটিতে যে ঘটনা দেখা যাচ্ছে, সেটি ১ ডিসেম্বর দিল্লি-উত্তরপ্রদেশ সীমান্তে কৃষকদের বিক্ষোভস্থলে ঘটে।

আমরা কিওয়ার্ড সার্চ করি এবং দেখতে পাই যে, ভিডিওটি রিপাবলিক ভারতের ইউটিউব চ্যানেলে ১ ডিসেম্বর আপলোড করা হয়। সঙ্গে হিন্দিতে লেখা যে শিরোনাম দেওয়া হয় তার অনুবাদ, 'রিপাবলিক ভারতের প্রশ্নে জেরবার রাকেশ টিকায়েত সাংবাদিককে হুমকি দিলেন/ টিকায়েত বনাম সাংবাদিকের ভিডিও'।

(হিন্দি: Republic Bharat के सवालों से बौखलाए Rakesh Tikait, Reporter को दी धमकी | Tikait Vs Reporter Video)

ভিডিওতে টিকায়েতকে ওই চ্যানেলের এক মহিলা সাংবাদিকের সঙ্গে উত্তেজিত ভঙ্গিতে কথা বলতে দেখা যাচ্ছে। তাঁকে বলতে শোনা যায়, "ইনি আমার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করছেন, তার ভিডিও বানাও। ইনি আমার শরীর স্পর্শ করছেন। এখান থেকে চলে যান।"

আরও পড়ুন: কৌতুক পোস্ট ছড়াল অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের ফেসবুক মন্তব্য বলে

Updated On: 2021-12-10T19:16:18+05:30
Claim :   আর ভারতের মহিলা রিপোর্টার রাকেশ টিকায়েতের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেছেন
Claimed By :  Social Media
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.