২০১৫ সালে চিনে বিস্ফোরণের ভিডিও ছড়াল ইউক্রেন বিদ্যুৎকেন্দ্রে রুশ বিমান হানা বলে

বুম দেখে ২০১৫ চিনের তিয়ানজিনে একটি গুদাম ঘরে মজুত করা বিপজ্জনক বস্তুতে আগুন লাগলে সেখানে বিস্ফোরণের ঘটনাটি ঘটে।

বড় ধরনের দু'টি বিস্ফোরণ (Explosion) দেখা যাচ্ছে এমন একটি ভিডিও এই বলে শেয়ার করা হচ্ছে যে, ইউক্রেনের (Ukraine) লুহানস্ক শহরের একটি বিদ্যুৎকেন্দ্রে রুশ বিমান হানায় পর পর বিস্ফোরণ ঘটে।

কিন্তু বুম দেখে, দাবিটি মিথ্যে। দেখা যায়, ভিডিওটির উৎস হল চিনের তিয়ানজিন শহর। সেখানে বিপজ্জনক সামগ্রীতে ঠাসা একটি গুদামঘরে আগুন লাগলে, সেখানে বিস্ফোরণ ঘটে।

রাশিয়ার ইউক্রেন আক্রমণ ও সেই দেশের সর্বত্র বিমান হানার পরিপ্রেক্ষিতে ভিডিওটি সোশাল মিডিয়া সহ হোয়াটসঅ্যাপে শেয়ার করা হচ্ছে।

আমরা দেখি, ভিডিওটি টুইটারে এই ক্যাপশন দিয়ে শেয়ার করা হচ্ছে: "রুশ বিমান হানায় ইউক্রেনের লুহানস্ক বিদ্যুৎকেন্দ্রে একাধিক বিস্ফোরণ ও আগুন।"


মাত্র দু' ঘন্টায়, ভিডিওটি ২,৬০,০০০ বার দেখা হয়। এবং ২,০০০-এরও বেশি বার রিটুইট করা হয় সেটি। আর্কাইভ করা আছে এখানে

টুইটার শেষমেশ ভিডিওটি ডিলিট করে দেয়। কিন্তু আমরা দেখি, একই ভিডিও, একই ক্যাপশন সহ, ফেসবুক-এ শেয়ার করা হচ্ছে। পোস্টটি দেখুন এখানে


অনেকে ভিডিওটি বুমের হেল্পলাইন নম্বরে পাঠিয়ে জানতে চান যে, সেটি সত্যিই ইউক্রেনের ওপর রুশ বিমান হানার দৃশ্য কিনা।

আরও পড়ুন: সেনাকর্মীর প্রেয়সীকে আলিঙ্গনের ২০১৫ সালের ছবি ইউক্রেনে যুদ্ধ বলে ছড়াল

তথ্য যাচাই

ভিডিওটির কয়েকটি প্রধান ফ্রেম নিয়ে আমরা রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। তার ফলে, ২০১৫ সালে চিনের তিয়ানজিন শহরে দু'টি বিস্ফোরণ সংক্রান্ত খবরের লিঙ্ক পাই আমরা।

একটি ছিল বিবিসি নিউজ-এর দ্বারা তাদের যাচাই করা ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করা ভিডিও। দেখা যায়, ইউক্রেন'র রুশ বিমান হানা বলে যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে, সেটি হুবহু এক।

সেই ভিডিওটির ক্যাপশনে লেখা হয়, "মানুষজনের আতঙ্ক ধরা পড়েছে একজন স্তম্ভিত হওয়া প্রত্যক্ষদর্শীর তোলা চিনের তিয়ানজিন শহরে দু'টি বড় বিস্ফোরনের ফুটেজে। বিপজ্জনক বস্তু নিয়ে কারবার করে এমন একটি বিশেষ কম্পানির গুদামে আগুন লেগে বিস্ফোরণ ঘটলে, বহু মানুষ নিহত হন ও আহত হন কয়েক'শ জন। আধিকারিকরা বলেন, ওই গুদামে কী ধরনের বস্তু ছিল তা এখনও জানা যায়নি। বিস্ফোরনের কারণও স্পষ্ট নয়। বিপদ এড়ানোর জন্য ওই জায়গা থেকে পালিয়ে যাওয়ার আগে ড্যান ভ্যান ডুরেন বিস্ফোরণের মুহূর্তের ছবিটি তোলেন।"

ক্যাপশনটি থেকে জানা যায় যে, ড্যান ভ্যান ডুরেন নামের একজন প্রত্যক্ষদর্শী ভাইরাল ভিডিওটি তোলেন।

ওই বিস্ফোরণ সম্পর্কে বেশ কয়েকটি সংবাদ প্রতিবেদন আমরা দেখতে পাই। দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস-এর একটি লেখায় বলা হয়, "বুধবার সন্ধ্যেয়, বিপজ্জনক বস্তুর এক গুদামে, এক প্রবল বিস্ফোরণে অন্তত ৪৪ জন প্রাণ হারান। আহত হন প্রায় ৪০০ ব্যক্তি। অনেক বহুতল বাড়ির কাঁচ ভেঙ্গে চুরমার হয়ে যায়। ও আরও অনেক ক্ষতি হয়। ভূমিকম্প মাপার যন্ত্রে ওই বিস্ফোরণ ধরা পড়ে।এবং কম্পন অনুভুত হয় বহু দূর পর্যন্ত।"

নিউ ইয়র্ক টাইমস-এর লেখার সঙ্গে অন্য একটি দৃশ্যও ছিল। তাতে ওই বিস্ফোরণটিকে অন্য দিক থেকে দেখানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: সেনাকর্মীর প্রেয়সীকে আলিঙ্গনের ২০১৫ সালের ছবি ইউক্রেনে যুদ্ধ বলে ছড়াল

Claim :   ভিডিওর দাবি ইউক্রেনের লুহানস্ক শহরের একটি বিদ্যুৎকেন্দ্রে রুশ বিমান হানা
Claimed By :  Facebook Post & Twitter Users
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.