উত্তরপ্রদেশ ভোট: বিজেপি সমর্থকের সাম্প্রদায়িক গান ছড়াল মুসলিমের বলে

বুমকে গানের গায়ক সন্দীপ আর্য বলেন তিনি নিজে হিন্দুত্ববাদী এবং বিজেপি সমর্থক।

উত্তরপ্রদেশে (Uttar Pradesh) আসন্ন বিধানসভা নির্বাচন (Election) উপলক্ষ্যে একটি হিন্দুত্ববাদী গানের ভিডিওর একটি ছোট অংশ ভাইরাল হয়েছে। গানটি সমাজবাদী পার্টিকে (Samajwadi Party) নিশানা করে লেখা। সেটিতে সাম্প্রদায়িক ভীতি সৃষ্টি করার চেষ্টা হয়েছে। কিন্তু ভিডিওটি এই মিথ্যে দাবি সমেত শেয়ার করা হচ্ছে যে, গানটি মুসলমানরা (Muslim) রচনা করেছেন। গানটির কথায় বলা হয়েছে যে, সাম্রাজ্যবাদী পার্টি ক্ষমতায় এলে, মুসলমান সম্প্রদায় রাজ করবে ও রামমন্দির (Ram Temple) নির্মাণ বন্ধ হয়ে যাবে।

বুম সন্দীপ আচার্যর সঙ্গে কথা বলে। উনি জানান উনিই ভাইরাল ভিডিওর গানটির গায়ক। উনি আরও বলেন যে, উনি হিন্দুত্ববাদ ও বিজেপির সমর্থক। গানটি কোনও এক মুসলমান ব্যক্তি বা সমাজবাদী পার্টির সমর্থক গেয়েছেন, সেই দাবি উনি নস্যাৎ করে দেন।

২৯ সেকেন্ডের ওই গানের ভিডিওতে অস্বস্তিকর কথা আছে। সেগুলির অনেকটাই সাম্প্রদায়িকভাবে উস্কানিমূলক। যাতে দাবি করা হয়েছে যে, সমাজবাদী পার্টি ক্ষমতায় এলে, রামমন্দিরের নির্মাণ বন্ধ করে দেওয়া হবে। গানটির একটি লাইনে বলা হয়েছে, সমাজবাদী পার্টি জিতলে, সবুজ পতাকা ওড়ানো হবে ও নামানো হবে গেরুয়া পতাকা। ভিডিওটি এই মিথ্যা দাবি সমেত শেয়ার করা হচ্ছে যে, সেটি একজন মুসলমান তৈরি করেছেন। অনুবাদ করলে ক্যাপশনটি দাঁড়ায় এই রকম: "মুসলমান সম্প্রদায়ের তৈরি এই গান, হিন্দুদের চোখ খুলে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট। এর থেকে, উত্তরপ্রদেশে সমাজবাদী পার্টি কী ভাবছে তা স্পষ্ট হয়। তা সত্ত্বেও, কিছু আহাম্মক হিন্দু বর্ণের নামে সমাজবাদী সরকার গঠনের স্বপ্ন দেখছে।"

(হিন্দিতে লেখা ক্যাপশন: मुस्लिम समुदाय द्वारा बनाया गया ये गाना हिन्दुओ की ऑख खोलने के लिए पर्याप्त है। इससे हम देख सकते है कि उत्तर प्रदेश में समाजवादी पार्टी की क्या सोच है। फिर भी कुछ मूर्ख हिन्दू जाति के नाम पर यूपी में सपा की सरकार बनने का सपना देख रहे हैं।)



আরও পড়ুন: ২০১৭ সালের ১৭.৫% থেকে ২০২১ সালে ৪.২%, উত্তরপ্রদেশে বেকারত্বের হার কমল?

তথ্য যাচাই

বুম দেখে, মুসলমান ও সমাজবাদী পার্টিকে নিশানা করে গাওয়া গানটি গেয়েছেন সন্দীপ আচার্য। তিনি আমাদের বলেন, উনি হিন্দুত্ববাদ ও বিজেপির সমর্থক।

ভিডিওটির ডান দিকের কোণে সন্দীপ আচার্যর নাম ও তাঁর ফোন নম্বর রয়েছে।

ভাইরাল ভিডিওটি থেকে নেওয়া ছবি

সন্দীপ আচার্য নাম দিয়ে কি-ওয়ার্ড সার্চ করলে, আমরা গানটির পূর্ণ সংস্করণটি দেখতে পাই। সেটি ২০২১ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ইউটিউবে আপলোড করা হয়। এবং গানটির জন্য সন্দীপ আচার্যকে ক্রেডিট দেওয়া হয়।


আসল ভিডিওটির ৪০ সেকেন্ডের মাথায় ভাইরাল ভিডিওর কথাগুলি শুনতে পাওয়া যায়।

ভাইরাল ভিডিওতে যে নম্বরটি রয়েছে, আমরা সেই নম্বরে ফোন করে সন্দীপ আচার্যর সঙ্গে কথা বলি। উনি আমাদের নিশ্চিত করে জানান যে, ভাইরাল ভিডিওটিতে যে গানটি রয়েছে, সেটি উনিই গেয়েছেন। তিনি সমাজবাদী পার্টির সদস্য হওয়ার কথা অস্বীকার করেন।

"গানটির রচয়িতা আমিই। কোনও সমাজবাদী পাটির সদস্য সেটি গাননি। কোনও এসপি সমর্থক কি এই গান গাইতে পারে। এটা ৪-৫ মিনিটের গান। সেটি থেকে একটুখানি কেটে নিয়ে, সেই অংশটিকে ভাইরাল করেছে কিছু সমাজবিরোধী। সেই জন্য লোকে গানের পরিপ্রেক্ষিতটা বুঝতে পারছে না।"

আচার্য আরও বলেন, "...আমি হিন্দুত্ববাদী আদর্শের লোক। সেটাই হল গানটির ভিত্তি। আমি মনে করি যে, ৯০'এর দশকে, সমাজবাদী পার্টি রামভক্তদের ওপর গুলি চালিয়েছিল। এবং ক্ষমতায় এলে, তাঁরা রাম মন্দিরের নির্মাণে বাধা সৃষ্টি করতে পারে। এই গানটি কোনও মুসলমান রচনা করেননি। আমি একজন বিজেপি সমর্থক।"

আচার্যর ফেসবুক অ্যাকাউন্টে, বিজেপিপন্থী ও উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্য নাথের পক্ষে একাধিক পোস্ট ও গান রয়েছে। এমনকি গাঁধীর আততায়ী নাথুরাম গডসে'র ওপরও একটি পোস্ট রয়েছে সেখানে।


আরও পড়ুন: পশ্চিমবঙ্গে পুলিশের মসজিদ সাফাই, মিথ্যে দাবিতে ছড়াল তেলেঙ্গানার ছবি

Claim Review :   ভিডিওতে উত্তরপ্রদেশ নির্বাচনের জন্য সমাজবাদী পার্টির সমর্থনে মুসলমানদের তৈরি সাম্প্রদায়িক গান দেখানো হয়েছে
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story