Farm Laws নিয়ে প্রচারের ছবিতে BJP ব্যবহার করল এক প্রতিবাদীর পুরনো ছবি

তাঁর ছবিকে কৃষকের সমর্থন বলে প্রচার করায় পাঞ্জাব বিজেপির বিরুদ্ধে হরপ্রীত সিং বা হার্প ফার্মার আদালতে যাওয়ার কথা বলেন।

হার্প ফার্মার (Harp Farmer) ওরফে হরপ্রীত সিংহ (Harpreet Singh) নামে এক পাঞ্জাবী ভিসুয়াল আর্টিস্ট টুইটারে ভারতীয় জনতা পার্টির সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডলগুলির বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন যে, তাঁর অনুমতি ছাড়াই তাঁর ছবি কৃষি আইনের সমর্থনে একটি ছবিতে (photo) ব্যবহার করা হয়েছে, এবং তিনি বর্তমানে দিল্লিতে চলা প্রতিবাদে অংশগ্রহণ করছেন।

বুম হরপ্রীত সিংহয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে। তিনি হার্প ফার্মার (Harp Farmer)-এর নামে টুইটার ব্যবহার করেন। হরপ্রীত সিংহ (Harpreet Singh) বলেন যে, এই মুহূর্তে তিনি সিঙ্গু সীমান্তে কৃষকদের বিক্ষোভে অংশ নিয়েছেন। তিনি আরও জানান যে, কৃষি আইনের উপযোগিতা প্রচারের জন্য একটি গ্রাফিকে তাঁর ছবি ব্যবহার করার জন্য তিনি বিজেপির পাঞ্জাব শাখার বিরুদ্ধে আইনি নোটিস পাঠানোর কথা ভাবছেন।

সোমবার পাঞ্জাব বিজেপির (বিজেপি)(BJP4Punjab) ফেসবুক পেজ থেকে একটি গ্রাফিক পোস্ট করা হয়, যাতে কৃষকদের সমর্থনে মিনিমাম সাপোর্ট প্রাইস (এমএসপি) কার্যকর করার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিভিন্ন প্রচেষ্টার কথা বলা হয়। গ্রাফিকে এক জন শিখ কৃষককে হাসতে দেখা যাচ্ছে। এই ছবির মাধ্যমে দেখাতে চাওয়া হয়েছে যে, কেন্দ্রীয় সরকারের নীতি নিয়ে পাঞ্জাবের কৃষকরা খুশি।

কেন্দ্রীয় সরকারের তৈরি করা কৃষি আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ (farmers protest) দেখাতে হাজার হাজার কৃষক দিল্লির বিভিন্ন সীমান্তে জড়ো হয়েছেন এবং এই কৃষকদের মধ্যে অনেকেই পাঞ্জাব থেকে এসেছেন। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গ্রাফিকটি পোস্ট করা হয়েছে। কৃষকরা পুলিশি অত্যাচার, জলকামান ও বিভিন্ন জায়গায় ব্যারিকেড এবং দিল্লির প্রচণ্ড ঠান্ডা সহ্য করেও বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছেন। কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র তোমরের সঙ্গে অনেকগুলি বৈঠক ইতিমধ্যে ব্যর্থ হয়েছে।

তিনি নিজে যখন সিঙ্গু সীমান্তে অন্য কৃষকদের সঙ্গে প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন, তখন কৃষকরা মোদীকে সমর্থন করছেন তা দেখাতে তাঁর ছবি ব্যবহার করার জন্য ২২ ডিসেম্বর সিংহ বিজেপিকে নির্লজ্জ বলে উল্লেখ করেছেন।

সিংহ (৩৬) টুইটারে ওই পোস্টের বিররুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলেন যে, তিনি সিঙ্গু সীমান্তে (Singhu Border) প্রতিবাদ করছেন। পাঞ্জাবি ভাষায় তিনি লেখেন, "কেউ ওদের বলে দাও যে এই লোকটি সিঙ্গু সীমান্তে প্রতিবাদ করছে।" তিনি বিজেপিকে আক্রমণ করে বলেন, "বিজেপির নির্লজ্জতা জিওর আনলিমিটেড ইন্টারনেট অফারের মতো।"

সিংহ পাঞ্জাবের হোশিয়ারপুর থেকে এসেছেন। তিনি এক জন অভিনেতা, নির্দেশক, প্রযোজক এবং ফটোগ্রাফার। বর্তমানে তিনি সিঙ্গু সীমান্তে কৃষি বিলের বিরোধী বিক্ষোভে অংশ নিয়েছেন।


পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

ওদের আইনি নোটিস পাঠাব: হরপ্রীত সিং ওরফে হার্প ফার্মার:

বুম হরপ্রীত সিংহ'র সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান যে, তিনি কৃষি আইনের বিরোধিতা করছেন এবং পাঞ্জাব বিজেপি (BJP Punjab) তাঁর অনুমতি ছাড়াই তাঁর ছবি কৃষি বিলের সমর্থনে ব্যবহার করেছে। তিনি এই ঘটনা একদমই ভাল ভাবে নিচ্ছেন না।

সিংহ এক জন অভিনেতা এবং চলচ্চিত্র নির্মাতা। তিনি জানান যে, ছবিটি আসলে ২০১৪ সালের। ছবিটি তিনি ফেসবুকে পোস্ট করেন ২০১৫ সালে। তিনি বলেন, "আমার এক ডিজাইনার বন্ধুর অ্যাবস্ট্রাক্ট আর্টের ফটোশুটের সময় তোলা হয়। আমি ছবিটি ২০১৫ সালে আমার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট করি। আর বিজেপি এখন সেটিকে ব্যবহার করছে।"

সিংহ সোশাল মিডিয়ায় বেশ জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব। টুইটারে তাঁর ৯০০০ ফলোয়ার আছে এবং ফেসবুকে তাঁর ফলোয়ারের সংখ্যা ৪ লক্ষ ৫০ হাজার। হার্প ফার্মার নামে ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্ট থেকে তিনি সোশাল মিডিয়ায় অংশ নেন। মজার বিষয় হল পাঞ্জাব বিজেপির ব্যবহৃত সিংহয়ের এই হাতে কোদাল নিয়ে ছবিটি পিন্টারেস্টের মতো বিভিন্ন সোশাল মিডিয়া সাইটে ফ্যাশন এবং স্টাইলিং বিভাগে রয়েছে।


সিংহ নিজেকে এক জন কৃষক হিসাবে দাবি করেন এবং বলেন যে ছবিটি এর আগেও ভুল ভাবে ব্যবহার করা হয়েছে। পাঞ্জাবের কিছু সংস্থা এই ছবিটিকে বিজ্ঞাপনের উদ্দেশ্যে এবং বাণিজ্যিক প্রচারের জন্য ব্যবহার করেছে। সিংহ বলেন, "এর আগে জলন্ধরের একটি পাম্প কোম্পানি আমাকে জিজ্ঞাসা না করে এই ছবিটি ব্যবহার করে, কিন্তু আমি কখনও কিছু বলিনি। কিন্তু এ ক্ষেত্রে এরা কৃষি বিলের ব্যাপারে ছবিটি কৃষকরা খুশি বলে দেখানোর জন্য ছবিটি ব্যবহার করছে এবং এটা ভুল।" তিনি আরও জানান, "পাঞ্জাব বিজেপি আমাকে জিজ্ঞাসা না করেই ছবিটি ব্যবহার করেছে এবং কৃষকদের বদনাম করার জন্য তা ব্যবহার করছে।" তিনি আরও বলেন যে, তিনি দু'সপ্তাহ ধরে সিঙ্গু সীমান্তে বিক্ষোভে সামিল হয়েছেন।

বিজেপি পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপের কথা ভাবছেন জানিয়ে সিংহ বলেন, "ভুল ভাবে আমার ছবি ব্যবহার করার জন্য আমি ওদের আইনি নোটিস পাঠাব।" কোনও ওয়েবসাইটে ছবিটি বিক্রি করার কথাও তিনি অস্বীকার করেন এবং বলেন, "স্টক ফোটোর কোনও সাইটে আমি কোনও কিছু বিক্রি করিনি।"।

টুইটারে প্রতিক্রিয়া

বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডল থেকে টুইটারে প্রশ্ন করা হয়েছে যে, কেন বিজেপি কৃষি বিলের প্রচারের জন্য এমন এক জন মানুষের ছবি ব্যবহার করল যিনি এই আইন বিরোধী প্রতিবাদে অংশ নিয়েছেন।



আরও পড়ুন: না, শাহিন বাগের Bilkis Dadi জেলে নেই

Show Full Article
Next Story