২০১৯'র গান্ধী গুপ্তহত্যা পুনর্নির্মাণের দায় বিজেপির কাল্পনিক বিধায়ক অনিল উপাধ্যায়ের উপর চাপানো হয়েছে

মহাত্মা গান্ধী গুপ্তহত্যা পুনর্নির্মাণের এই ভিডিওটিতে হিন্দু মহাসভার এক নেত্রীকে দেখা যাচ্ছে, যিনি নাথুরাম গডসের প্রতি সমর্থন জানাতে এটা করেছেন।

২০১৯ সালের একটি ভিডিও, যেখানে হিন্দু মহাসভার নেত্রী পূজা শকুন পান্ডে গান্ধীর একটি কুশপুতুল নিশানা করে গুলি ছুঁড়ছেন, সেটি জিইয়ে তুলে দাবি করা হচ্ছে যে, বিজেপির এক বিধায়কই এই অপকাণ্ডটি ঘটিয়েছিলেন।

অনিল উপাধ্যায় নামে এক কাল্পনিক বিজেপি এমএলএ-র নাম এই অপকর্মের সঙ্গে জুড়ে দিয়ে দাবি করা হচ্ছে যে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তার বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেননি।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, পূজা পান্ডে একটি খেলনা পিস্তল হাতে নিয়ে গান্ধীর একটি কুশপুতুল লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়ছে আর চারপাশে দাঁড়িয়ে তার সমর্থকরা ১৯৪৮ সালের ৩০ জানুয়ারি গান্ধীকে গুলি করে হত্যা করা নাথুরাম গডসে-র নামে জয়ধ্বনি দিচ্ছে। ৩০ জানুয়ারি উদযাপিত 'শহিদ দিবসে'র সময়েই ভিডিওটি ভাইরাল করা হয়েছে।

ভিডিওটির হিন্দি ক্যাপশনের অনুবাদ হলো, "কী করে মোদীজি তাঁরই দলের এমএলএ অনিল উপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন? এই ভিডিওটি সকলে মিলে শেয়ার করুন, যাতে গোটা জাতি বিষয়টা জানতে পারে।"

(হিন্দিতে মূল পোস্ট: B.J.P. विधायक अनिल उपाध्याय की इस हरकत पर क्या कहेगे मोदी जी, इन video को इतना वायरल करो की ये पूरा हिन्दुस्तान देख सके)


ভিডিওটি দেখা যাবে এখানে। ভিডিওটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

আরও পড়ুন: ২০১৮'র জম্মুর ভিডিওকে পাকিস্তানে হিন্দু মহিলাদের উপর নির্যাতন বলা হল

তথ্য যাচাই

বুম এ ব্যাপারে নিশ্চিত হয়েছে যে, গান্ধী-হত্যার পুনর্নির্মাণের এই দৃশ্যে অনিল উপাধ্যায় নামে কোনও নেতা জড়িত ছিলেন না। এর আগে বেশ কয়েকটি প্রতিবেদনে কংগ্রেস ও বিজেপির নামে ভুয়ো গুজব ছড়ানোর ব্যাপারে ব্যবহৃত কাল্পনিক চরিত্র অনিল উপাধ্যায়ের পর্দাফাঁস করেছে বুম।

খোঁজখবর নিয়ে আমরা এই ভিডিওটিরই দেখা পাই, যেটি ২০১৯ সালের ৩০ জানুয়ারি আলিগড়ে তোলা হয়েছিল। গেরুয়া শাড়ি পরে যে মহিলাকে গুলি চালাতে দেখা যাচ্ছে, তিনি হিন্দু মহাসভার জাতীয় সম্পাদক পূজা শকুন পান্ডে। পূজা গান্ধী-হত্যা উদযাপন করেন একটা খেলনা পিস্তল দিয়ে গান্ধীর কুশপুতুলে গুলি করে এবং তাঁর অনুগামীরা নাথুরাম গডসেকে 'প্রকৃত মহাত্মা' বলে জয়ধ্বনি দেয়। এই দিনটিকে হিন্দু মহাসভার সদস্যরা 'শৌর্য দিবস' রূপেও পালন করে। টাইমস অফ ইন্ডিয়ার এক রিপোর্ট অনুযায়ী, সেই উদযাপনের সময় তারা নিজেদের মধ্যে মিষ্টি বিলি করে এবং গডসের ছবিতে ফুলের মালাও পরায়।

হিন্দু মহাসভা একটি হিন্দু জাতীয়তাবাদী সংগঠন এবং গান্ধীর হত্যাকাণ্ডকে এ ভাবে সহর্ষে উদযাপন করার অভিযোগে আলিগড় পুলিশ পূজা পান্ডে ও তার ১৩ জন সহযোগীর বিরুদ্ধে মামলাও দায়ের করে।

ঘটনাটি নিয়ে প্রকাশিত খবর পড়তে পারেন এখানে এবং এখানে

কে এই রহস্যজনক অনিল উপাধ্যায়?

অনিল উপাধ্যায় একটি কাল্পনিক চরিত্র, যাকে সৃষ্টি করা হয়েছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সম্পর্কে ভুল তথ্য, গুজব ও ভুয়ো খবর ছড়ানোর উদ্দেশ্যে। বুম এই কাল্পনিক চরিত্রটির নাম দিয়ে প্রচার করা একাধিক ভুয়ো খবরের পর্দাফাঁস করেছে। অনুসন্ধান করে আমরা জেনেছি, অনিল উপাধ্যায় নামে বিজেপি কিংবা অন্য কোনও দলের কোনও বিধায়ক নেই।

আরও পড়ুন: কাল্পনিক অনিল উপাধ্যায়ের প্রত্যাবর্তন, এ বার নয়া নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে সরব এক বিজেপি বিধায়ক হিসেবে

Updated On: 2020-02-06T13:15:59+05:30
Claim Review :  ভিডিও দেখায় বিজেপি বিধায়ক অনিল উপাধ্যায় মহাত্মা গান্ধীর কুশপুতুলে গুলি চালাচ্ছে
Claimed By :  Facebook Post
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story